ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সম্পাদকীয়

পথশিশুদের দেখবে কে?

রাশিদুল ইসলাম | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০২০, ১২:০২ এএম

করোনাভাইরাস নামক অদৃশ্য শত্রুর বিরুদ্ধে লড়ছে বাংলাদেশে। ঘটছে করোনায় মৃত্যু, বেড়েই চলেছে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা। যেহেতু প্রাণঘাতী এ ভাইরাসটির কোনো প্রতিষেধক এখনও আবিষ্কার হয়নি, তাই সবার সচেতনতাই এর রক্ষাকবচ হিসেবে কাজ করছে। ভাইরাসটির বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে নেওয়া হয়েছে বিভিন্ন ধরনের ব্যবস্থা। সবাইকে করোনার ঝুঁকি থেকে নিরাপদ রাখতে ঘরে থাকতে বলা হচ্ছে। কিন্তু তখনো আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের একটি বিরাট অংশ অন্ধকার তিমিরেই রয়ে যাচ্ছে। যাদের সুবিধা বঞ্চিত আর্তনাদ আমাদের সকল অর্জনকে ¤øান করে দিচ্ছে। এরা হচ্ছে আমাদের সমাজের পথশিশু। এদের জীবন-জীবীকা, বেড়ে ওঠা সবকিছু পথে পথে। এরা সমাজের ন্যূনতম মৌলিক অধিকারটুকু থেকেও বঞ্চিত, অবহেলিত এবং উপেক্ষিত। এরা নিজেদের বাঁচিয়ে রাখতে আপনা থেকেই নিয়ম তৈরি করে নেয়। যেহেতু এদের দেখভাল করার কেউ নেই, তাই তারা স্বভাবতই সঠিক পথের আলো থেকে অনেক দূরেই রয়ে যায়। প্রয়োজনীয় সচেতনতা, বিচারবুদ্ধি ও দিক নির্দেশনার অভাবে প্রায়শই নিজেদেরকে ভুল পথে পরিচালিত করে। আমাদের একটু মানবতাই বদলে দিতে পারে তাদের এই অনিশ্চিত অন্ধকার জীবনের গতিপথ। তাদের জন্য পর্যাপ্ত পুনর্বাসন কেন্দ্র তৈরির পাশাপাশি সকল মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তাদের মাঝে করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করে, তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। মনে রাখতে হবে, আমাদের ছোট ছোট মানবিক উদ্যোগগুলোই বদলে দিতে পারে এই সমাজ, এই দেশ।
শিক্ষার্থী, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
jack ali ১০ জুন, ২০২০, ৮:৫২ পিএম says : 0
If our Beloved country run by the Law of Allah [SWT] then there will be no street children.. Corrupt government only know how to loot our hard earned tax payers money and send money to other country and also they want to remain in power fore ever as if they will not die as such they torture innocent people if anybody talk about their criminal activities.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন