ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ

বাংলাদেশ থেকে রফতানি পণ্য গ্রহণ না করার প্রতিবাদ

মহসিন মিলন, বেনাপোল থেকে : | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২০, ১২:০৪ এএম

বাংলাদেশ থেকে রফতানি পণ্য গ্রহণ না করার প্রতিবাদে গতকাল বুধবার সকাল থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলো।
ফলে বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায় শতশত পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকা পড়েছে বেনাপোলের ওপারে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে। সিএন্ডএফ এজেন্ড কর্মচারীরাও বাংলাদেশি রফতানি পণ্য গ্রহণ না করলে আমদানি বাণিজ্য বন্ধের সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন।

বেনাপোল বন্দরে আটকা পড়েছে ৫০০ ট্রাক রফতানি বোঝাই পণ্য। গত তিন মাস ধরে এসব ট্রাক আটকে আছে বেনাপোল বন্দরে। দীর্ঘ ৩ মাস বন্ধ থাকার পর গত ৭ জুন বোনপোল বন্দর দিয়ে আমদানি বাণিজ্য চালু হলেও রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। ভারত সরকার ও সে দেশের ব্যবসায়ীরা ভারতীয় পণ্য বাংলাদেশে ঢোকার অনুমতি দিলেও বাংলাদেশি রফতানি পণ্য ভারতে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে না। বেনাপোল চেকপোস্ট এলাকায় রফতানি পণ্যের গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকায় তৈরি পোশাক, গার্মেন্টস পণ্য ও পাটজাত পণ্যসহ বিভিন্ন পণ্য থাকায় রোদ বৃষ্টিতে ভিজে পুড়ে নষ্ট হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি আলহাজ মফিজুর রহমান সজন জানান, ভারত আমদানি পণ্য দিলেও তারা বাংলাদেশি রফতানি পণ্য গ্রহণ করছেন না। যার জন্য রফতানি কারক ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে আসা আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ভারত থেকে কোন আমাদানি পণ্য বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। বাংলাদেশি রফতানি পণ্য ভারতে ঢুকতে না পেরে মোটা অংকের ট্রাক ডেমারেজ গুনতে হচ্ছে রফতানি কারকদের।

বেনাপোল কাস্টমসের কার্গো শাখার সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা শামিমুর রহমান বলেন, রফতানি পণ্য ভারত গ্রহণ না করায় বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা আমদানি বাণিজ্য বন্ধের ঘোষণা দেয়। যার জন্য সকাল সাড়ে ৯টা থেকে আমদানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সিএন্ডএফ এজেন্টন্স ওয়েলফেয়ার স্টাফ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশি রফতানি পণ্য নেয়া হচ্ছে না। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা যদি মনে করে তারা এই ভাইরাসের কারণে আমদানি পণ্য নিবে না তাহলে সেটা তাদের ব্যাপার। আমাদের বিধি নিষেধ থাকার কারণে আমরা বাংলাদেশ থেকে পণ্য নিতে পারছি না।

বেনাপোল বন্দরের পরিচালক মামুন কবীর তরফদার জানান, বাংলাদেশি রফতানি পণ্য ভারত গ্রহণ না করায় বাংলাদেশি বন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন গতকাল সকাল থেকে ভারতীয় পণ্য আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে ওপারে শতশত পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকে আছে যত্রতত্র। অনুরুপভাবে বেনাপোল বন্দর এলাকায় ৪/৫ শ’ রফতানি পণ্য বোঝাই ট্রাক আটকে আছে ভারতে যাওয়ার অপেক্ষায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
মোঃ আনোয়ার আলী ৩ জুলাই, ২০২০, ১১:৫৯ পিএম says : 0
বন্ধুপ্রতিমদেশ সারাজীবনই আমাদের উপর নির্যাতন করল।
Total Reply(0)
Abdulaziz ৩০ জুলাই, ২০২০, ৫:০৮ পিএম says : 0
এ প্রতিবাদের জন্য ধন্যবাদ জানাই
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন