ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

দুর্নীতির বীজ মহিরুহ হয়ে গেছে: প্রধানমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৯ জুলাই, ২০২০, ২:১৫ পিএম | আপডেট : ২:৪১ পিএম, ৯ জুলাই, ২০২০

দুর্নীতি অনিয়মের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থানের কথা তুলে ধরে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দীর্ঘদিন মিলিটারি ডিক্টেটরশিপ দেশের মানুষের চরিত্র হনন করেছে। বছরের পর বছর তারা দুর্নীতির বীজ বপন করেছে। এটা এখন মহিরুহ হয়ে গেছে, আপনি যতই কাটেন আবার কোথা থেকে গজিয়ে ওঠে। যতই চেষ্টা করেন এটা মূলোৎপাটন করা যথেষ্ট কঠিন।

বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুরে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে একাদশ সংসদের ৮ম অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্যে সংসদ নেতা এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষের চরিত্র নষ্ট করে দিয়ে গেছে ১৯৭৫-এর পর যারা রাতের অন্ধকারে অস্ত্রহাতে নিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল তারাই। হ্যাঁ কারণ, অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে সেই ক্ষমতা কুক্ষিগত করবার জন্য এরা মানুষকে দুর্নীতি শিখিয়েছে, কালো টাকা শিখিয়েছে, ঋণ খেলাপি শিখিয়েছে।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ডাক্তার নার্সদের সুযোগ সুবিধা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ করা হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতালে যথেষ্ট বেড এবং সব রকম সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ডাক্তার নার্স যারা কাজ করছে এবং টেকনিশিয়ানদের পরিবার থেকে আলাদা রাখার জন্য হোটেল ভাড়া করে থাকা খাওয়া ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে খরচ তো হবেই।

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর কে কোন দলের সেটা বড় কথা নয়। কে দুর্নীতির সাথে জড়িত, অনিয়মের সাথে জড়িত, আমরা যাকেই পাচ্ছি, যেখানেই পাচ্ছি ধরছি। আবার ধরছি বলে নিজেই চোর হয়ে যাচ্ছি। আমরাই ধরি আবার আমাদেরকেই দোষারোপ করা হয়। এটাই হচ্ছে দুর্ভাগ্য। এর আগে তো দুর্নীতিটাই নীতি ছিল। অনিয়মটাই নিয়ম ছিল, অনিয়মটাই নিয়ম ছিল সেভাবেই রাষ্ট্র চলেছে।

সংসদ নেতা বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আগেই বলেছি আমরা এই অনিয়মগুলো নিশ্চই মানব না। যেই হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং নেব এটা অব্যাহত থাকবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Hossain Lutfi ৯ জুলাই, ২০২০, ৮:১৪ পিএম says : 0
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, কারা এই মহীরুহের গোড়ায় পানি ঢেলছে এবং কার ছত্রছায়ায় এই মহীরুহের বিস্তার এদের পরিচয় জনসম্মুখে প্রকাশ করুন। না হলে এর দায় ভার আপনার কাঁধে!
Total Reply(0)
Mohammed Shah Alam Khan ৯ জুলাই, ২০২০, ১১:৫৭ পিএম says : 0
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতি অনিয়ম নিয়ে বলেছেন, “দীর্ঘদিন মিলিটারি ডিক্টেটরশিপ দেশের মানুষের চরিত্র হনন করেছে। বছরের পর বছর তারা দুর্নীতির বীজ বপন করেছে। এটা এখন মহিরুহ হয়ে গেছে, আপনি যতই কাটেন আবার কোথা থেকে গজিয়ে ওঠে। যতই চেষ্টা করেন এটা মূলোৎপাটন করা যথেষ্ট কঠিন।“ প্রধানমন্ত্রী এই কথাগুলো কঠিন সত্য কথা। আমি এই ইনকিলাব পত্রিকায় কয়েক বছের ধরে জিয়া মিয়া, এরশাদ চাচা ও খালেদা জিয়ার আমলে কিভাবে দুর্নীতি দেশের জনগণের রন্ধে রন্ধে প্রবেশ করিয়েছে সেটা বলে আসছিলাম। এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংসদের একই কথা বলেছেন। আমি জানি এই কয়টা কথা উনি বহু আগেই জানেন কিন্তু প্রশাসনিক কারনে জেনেও নাজানার ভান করেছিলেন। আমাদের প্রচুর লেখা লেখির পর এখন তিনি এটা প্রকাশ্যে বললেন এবং সেটা এমন এক যায়গায় বললেন যেখান থেকে আইন প্রণয়ন করা হয়। কাজেই এখন এরউপর কোন প্রতিকার নিতে আর কোন বাধা রইলোনা। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “আওয়ামী লীগ সরকার আসার পর কে কোন দলের সেটা বড় কথা নয়। কে দুর্নীতির সাথে জড়িত, অনিয়মের সাথে জড়িত, আমরা যাকেই পাচ্ছি, যেখানেই পাচ্ছি ধরছি। আবার ধরছি বলে নিজেই চোর হয়ে যাচ্ছি। আমরাই ধরি আবার আমাদেরকেই দোষারোপ করা হয়। এটাই হচ্ছে দুর্ভাগ্য। এর আগে তো দুর্নীতিটাই নীতি ছিল। অনিয়মটাই নিয়ম ছিল, অনিয়মটাই নিয়ম ছিল সেভাবেই রাষ্ট্র চলেছে।“ প্রধানমন্ত্রীর এসব কথা অতিবাস্তব কথা। তিনি জনগণের মঙ্গলের জন্যে কাজ করে যাচ্ছেন আর ওনাকেই বদনামের ভাগিদার হতে হচ্ছে। তবে তিনি নিরাস নন তাই বলেছেন, “দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আগেই বলেছি আমরা এই অনিয়মগুলো নিশ্চই মানব না। যেই হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি এবং নেব এটা অব্যাহত থাকবে।“ আমি নিশ্চিত বিশ্বাস করি প্রধানমন্ত্রী আমাদেরকে একটি সুন্দর সমাজ দিতে সক্ষম হবেন। মহান আল্লাহ্‌র কাছে আমার প্রার্থনা তিনি যেন আমাকে সহ সবাইকে সত্য জানা, সত্য বুঝা এবং সত্যকে নিয়ে চলার ক্ষমতা দান করেন। আমিন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন