ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

লিবিয়ায় যুদ্ধবিরতির আহবান রাশিয়ার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

লিবিয়ায় অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির আহবান জানিয়েছে রাশিয়া। সোমবার রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ প্রায় এক দশকের সংঘাত বন্ধে যুদ্ধবিরতির এ আহবান জানিয়েছেন। মস্কো আলোচনার মাধ্যমেই সংঘাত নিরসন চায় বলেও জানান তিনি। মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুর্কি সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ। ২০২০ সালের ২১ আগস্ট লিবিয়ায় যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় দেশটির বিবদমান দু’টি পক্ষ। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকারের প্রধানমন্ত্রী ফায়েজ সরাজ এবং রাশিয়া-আমিরাত সমর্থিত বিদ্রোহী নেতা খলিফা হাফতারের প‚র্বাঞ্চলীয় পার্লামেন্টের স্পিকার অ্যাগুইলা সালে ইসা এ সংক্রান্ত সমঝোতায় উপনীত হন। তবে ওই সমঝোতার পরও খলিফা হাফতারের বাহিনীর হামলা অব্যাহত রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে সোমবার আলোচনার মাধ্যমে সংঘাত বন্ধ তথা যুদ্ধবিরতির আহŸান জানালো রাশিয়া। এদিকে মস্কো প্রকাশ্যে যুদ্ধবিরতির কথা বললেও গত সপ্তাহে জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হাফতার বাহিনীর প্রতি রাশিয়ার পৃষ্ঠপোষকতা আগের চেয়ে আরও বেড়েছে। রাশিয়া, মিসর, ফ্রান্স ও সংযুক্ত আরব আমিরাত সমর্থিত হাফতার বাহিনী ইতোমধ্যে দেশটির প‚র্বাঞ্চলের বিস্তৃত এলাকার দখল নিতে সমর্থ হয়েছে। সেখানে নিজস্ব স্টাইলে পার্লামেন্টও স্থাপন করা হয়েছে। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বহিঃশক্তির সমর্থন নিয়ে ত্রিপোলি দখলের চেষ্টা করে আসছিল হাফতার বাহিনী। তবে লিবিয়া সরকারের আমন্ত্রণে তুরস্ক এতে যুক্ত হওয়ার পরই পরিস্থিতি বদলে যেতে শুরু করে। ক্রমেই পিছু হটতে থাকে হাফতার বাহিনী। এক পর্যায়ে মরিয়া হয়ে দেশটিতে হস্তক্ষেপের জন্য রাশিয়া, মিসর, ফ্রান্স ও আমিরাতের মতো দেশগুলোর শরণাপন্ন হন জেনারেল হাফতার। জীবনযাপনের মানের দিকে থেকে তেলসমৃদ্ধ লিবিয়া একসময় আফ্রিকার শীর্ষে ছিল। ডেইলি সাবাহ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন