ঢাকা শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭, ১৩ রজব ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সিলেটে খুলছে বিনোদন পার্ক

সিলেট ব্যুরো: | প্রকাশের সময় : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১২:০৬ এএম

অবশেষে খুলছে সিলেটের বিনোদন পার্কগুলো। তবে ২৫টি শর্ত বেঁধে দেয়া হয়েছে। তারপরও স্বস্তি ফিরেছে বিনোদন প্রত্যাশীদের মনে। এছাড়া বিনোদন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরাও আশার আলো দেখছেন।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় ৬ মাস ধরে বন্ধ ছিল সিলেটের বিনোদন স্পটগুলো। এবার ২৫টি শর্ত সাপেক্ষে সিলেটের বিনোদন পার্ক খোলার অনুমতি দিয়েছে জেলা প্রশাসন। তবে বিনোদন পার্কগুলো শর্ত না মেনে পার্কের কার্যক্রম পরিচালনা করলে তাদের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে কঠোর ব্যবস্থা।

সিলেট জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (গণমাধ্যম) শাম্মা লাবিবা অর্ণব জানান, গত বুধবার সিলেটের জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম শর্তগুলো উল্লেখ করে সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে একটি পত্র প্রেরণ করেছেন। পত্রে পার্কগুলো খোলার অনুমতির কথা জানানো হয়। তবে কেউ যদি জেলা প্রশাসনের শর্ত না মানেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশকে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।
জেলা প্রশাসনের দেয়া শর্তাবলীর মধ্যে রয়েছে, বিনোদন কেন্দ্রে ধারণ ক্ষমতার ৫০ শতাংশ অতিথি প্রবেশ করতে দেয়া যাবে, দর্শনার্থী-অতিথিদের প্রবেশ ও প্রস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে আলাদা আলাদা পথের। শারীরিক দূরত্ব বজার রাখার সুবিধার্থে প্রতিটি রাইডে একমুখী চলাচল নিশ্চিত করতে হবে। দর্শনার্থী-অতিথিদের বসানোর ক্ষেত্রে একটি করে আসন ফাঁকা রেখে বিন্যাস করতে হবে আসন। এ ছাড়া আগত দর্শনার্থী অতিথিদের সেন্টারে প্রবেশ ও অন্যান্য স্থানে (৩ ফুট) ১ মিটার শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। খেলার কক্ষে দর্শনার্থী অতিথিদের মধ্যে ৬ ফুট (২ ফুট মিটার) শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে মেশিন স্থাপন করা এবং পাশপাশি থেকে বিরত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক মেশিন ব্যবহার বন্ধ রাখতে হবে। দৃশ্যমান স্থানে একাধিক ছবিসহ ঝুলিয়ে রাখতে হবে স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশনা। নিরাপত্তা মূলক সর্তকর্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করতে হবে।

আগত যানবাহনকে অবশ্যই জীবাণুমুক্ত করার ব্যবস্থাও রাখতে হবে এবং বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করতে হবে সংশ্লিষ্টদের। বিনোদনপার্কগুলো খুলে দেয়ার এক প্রতিক্রিয়ায় ট্যুরিজম ক্লাব সিলেটের সভাপতি হুমায়ুন কবির লিটন বলেন, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর প্রশাসনের ইতিবাচক পদক্ষেপে বিনোদন স্পটগুলোতে প্রাণে সঞ্চার হবে। এখাতে সংশ্লিষ্টরাও উজ্জীবিত হয়ে উঠবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন