ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

স্ত্রীর মামলায় শিক্ষক কারাগারে

ঝালকাঠি জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২০ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় চিংড়াখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শৌলজালিয়া ইউপি সদস্য মো. ছগির হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক ছানিয়া আক্তার এ আদেশ প্রদান করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, চিংড়াখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছগির হোসেনের সঙ্গে চিংড়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাছুমা আক্তারের পরকীয়া সম্পর্ক চলছিল। মাছুমা দুই সন্তান রেখে তাঁর স্বামীকে তালাক দেন। অপরদিকে ছগির হোসেন তাঁর স্ত্রীকে তালাক না দিয়েই পরকীয়া প্রেমিকাকে বিয়ে করেন। এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক ও ইউপি সদস্য ছগির হোসেনের বিরুদ্ধে তাঁর প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তার গত ১৩ সেপ্টেম্বর বাদী হয়ে দুই লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগে ঝালকাঠির জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালতে হাজির হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার জামিন চাইলে আদালত তা নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বাদীপক্ষে মামলা পরিচালনা করে অ্যাড. মো. নাসির উদ্দিন কবির, শামীম আলম বাবু ও মানিক আচার্য্য। 

মাছুমা আক্তারের পূর্বের স্বামী মো. জালাল আকন অভিযোগ করেন, ১৯৯৩ সালের ২৫ জানুয়ারি তাঁর খালাত বোন মাছুমাকে বিয়ে করি। পরবর্তীতে তাকে চিংড়াখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে চাকরি দেই। খুবই সুখে শান্তিতে চলছিল এক ছেলে ও এক মেয়ে নিয়ে আমাদের সংসার। কিন্তু আমার স্ত্রী ছগিরের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পরেন। প্রেমিক ছগির হোসেনের সঙ্গে সংসার করার উদ্দেশ্যে ২০১৭ সালে আমাকে তালাক দিয়ে প্রেমিক ছগিরকে বিয়ে করে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন