ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ক্রেতার খোঁজে টিসিবি

দক্ষিণাঞ্চলে পেঁয়াজ বিক্রি

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২১ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

দক্ষিণাঞ্চলে এখন পেঁয়াজের ক্রেতার খোঁজে টিসিবি। এতোদিন পেঁঁয়াজসহ বিভিন্ন পণ্য কেনার জন্য টিসিবির গাড়ির খোঁজ করতেন সাধারণ মানুষ। মাত্র এক সপ্তাহ আগেও এক কেজি পেঁয়াজের জন্য ভোক্তাদের আকুতি চোখে পড়েছে। গতকাল দিনভর টিসিবির ডিলাররা ‘টিসিবির পণ্য, কিনে হন ধন্য’ স্লােগান দিয়ে ভোজ্য তেল, মসুর ডাল ও চিনির সাথে বাধ্যতামূলকভাবে পেঁঁয়াজ বিক্রি করেছে। 

গত দু’দিন বাজারে টিসিবির চেয়ে ভাল মানের পেঁয়াজের সরবরাহ বৃদ্ধির ফলে দরপতন ঘটেছে। ফলে ক্রেতারা হাতের নাগালে ভালো মানের পেঁয়াজ পাচ্ছেন। যদিও তার দাম টিসিবির পেঁয়াজের চেয়ে কেজি প্রতি ৫ টাকা বেশি। টিসিবির পেঁয়াজের মান খোলা বাজারের চেয়ে কিছুটা খারাপ হওয়ায় একটু বেশি দামে কিনতেও স্বাচ্ছন্দ বোধ করছেন ক্রেতারা। গত দু’দিন দক্ষিণাঞ্চলের জেলা সদরগুলোতে টিসিবির ডিলাররা পেঁয়াজ, ভোজ্যতেল, চিনি ও মসুর ডাল নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় মাইকিং করছে। আগে মাথাপিছু ১ কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হলেও এখন কোন সীমা নেই।
মূলত টিসিবির আমাদানির সাথে বেসরকারি পর্যায়েও বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ দেশে আসতে শুরু করেছে। ফলে বাজারে দরপতন ঘটেছে। গতকাল বরিশালের বাজারে প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৭০-৭৫ টাকায় বিক্রি হয়। আমদানিকৃত পেঁয়াজ ছিল ৩৫-৪০ টাকার মধ্যে। তবে সে পেঁয়াজের মান টিসিবির চেয়ে ভালো বলে ক্রেতারা জানিয়েছেন। আর টিসিবি পেঁয়াজ বিক্রি করছে ৩০ টাকা কেজি।
টিসিবির কেন্দ্রীয় পর্যায়ে পেঁয়াজ নিয়ে দুর্ভাবনা শুরু হয়েছে। গতকাল ডিলারদের সরবরাহের পরেও বরিশাল আঞ্চলিক অফিসের গুদামে প্রায় ১০ টনের মত মজুত ছিল। উপরন্তু আরো প্রায় ৪০ টন রাতের মধ্যেই বরিশালে পৌঁছার কথা। ফলে এ ৫০ টন পেঁয়াজ নিয়ে কর্তৃপক্ষের দুর্ভাবনার শেষ নেই। বরিশাল আঞ্চলিক অফিস থেকে প্রতিদিন গড়ে ৫ টন পেঁয়াজ বিক্রিও এখন দূরহ হয়ে পড়েছে। ডিলারদের দাবি, পেঁয়াজের দাম ২৫ টাকা নির্ধারণ না করলে তারা বিক্রি করতে পারবেন না। বিষয়টি নিয়ে টিসিবির বরিশাল আঞ্চলিক অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কোন মন্তব্য করতে রাজি না হলেও সব কিছু সদর দফতর অবহিত আছে বলে জানান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন