ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কক্সবাজাররে মাস্ক পরতে প্রশাসনের কড়াকড়ি, তবু মানুষের অনীহা

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৬ নভেম্বর, ২০২০, ১২:৫০ পিএম

কক্সবাজারে বেড়াতে আসা পর্যটকরা মানছে না স্বাস্থ্যবিধি। স্থানীয়রাও এ ব্যাপারে উদাসীন। কেউই ব্যবহার করছে না মাস্ক। স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রচারণার পাশাপাশি করা হচ্ছে জেল জরিমানা।
করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য সেকেন্ড ওয়েভ প্রতিরোধে মাঠে নেমেছে কক্সসবাজার জেলা প্রশাসন। গত রবিবার থেকে দিনব্যাপী লাবনী, সুগন্ধা ও কলাতলী তিনটি পয়েন্টে (ভ্রাম্যমাণ আদালত) অভিযান পরিচালনা করা হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আল আমিন মো. পারভেজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসরামে ও চারজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বয়ে এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। অভিযানে ১৪ জনকে বিভিন্ন অংকে জরিমানা করা হয়েছে।
এসময় শহরের কলাতলী বীচ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান জাহিদ খান ১৭ টি মামলায় মোট ২,৩০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন।
সুগন্ধা বীচে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মুরাদ ইসলাম মাস্ক না পরার দায়ে ০৭ জনকে মোট ১,৯০০ টাকা জরিমানা করেন।
সৈকতের লাবণী বীচ পয়েন্টে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া সুলতানা। তিনি ১৮ টি মামলায় মোট ১,৮২০ টাকা অর্থদÐ প্রদান করেন।
লাবনী, সুগন্ধা ও কলাতলী তিনটি পয়েন্টে (ভ্রাম্যমাণ আদালত) অভিযান পরিচালনা করা হয় ৪২ টি মামলায় ৬ হাজার ২০ টাকা অর্থদÐ প্রদান করা হয়।
অভিযান পরিচালনার সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) ইমরান জাহিদ খান বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার্থে মাস্ক বাধ্যতামূলকের চলমান অভিযানে জেল-জরিমানার তুলনায় প্রচারণাকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। জেলাবাসী ও বেড়াতে আসা পর্যটকের নিরাপত্তায় এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান।
অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আল আমিন মো. পারভেজ বলেন, একটি কার্যকর ভ্যাকসিন আবিষ্কার ও সহজলভ্য হবার আগে পর্যন্ত করোনাভাইরাসের সংক্রমনের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় ব্যক্তিগত সতর্কতা তথা মাস্ক পরিধান করা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিকল্প নেই।

জনস্বাস্থ্য নিশ্চিতে জেলা প্রশাসনের এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। নিজের ও দেশের স্বার্থে সচেতন হোন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরিধান করুন। পৌরসভার বাইরে বিভিন্ন উপজেলায়ও একযোগে পরিচালিত হচ্ছে মোবাইল কোর্ট।
চকরিয়া উপজেলায় ১৩ টি মামলায় ১,৯০০ টাকা, কুতুবদিয়া উপজেলায় ৩১ জনকে ২৪৩০ টাকা এবং মহেশখালী উপজেলায় ১৬ জনকে স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ৪, ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। মোবাইল কোর্ট চলাকালে দন্ড প্রদানের পাশাপাশি স্বল্প সামর্থ্যের ব্যক্তিদের মধ্যে বিনামুল্যে মাস্ক বিতরণ এবং মাস্কবিহীন চলাচলকারী সকলকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
স্বাস্থ্যবিধি না মানলে জেলা প্রশাসন আরও কঠোর আইন প্রয়োগে বাধ্য হবে বলে জানান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক।
তবে এত কড়াকরির পরেও মানুষ বেপরোয়া। মাক্স পড়তে কে যেন তাদের অনীহা। উকিয়া মরিচ্যা পশুর হাটে দেখাগেছে শতভাগ হাটুরে মাস্কহীন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন