ঢাকা শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১, ০৮ মাঘ ১৪২৭, ০৮ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

আরো এক আসামির স্বীকারোক্তি

লালমনিরহাটে জুয়েলকে পুড়িয়ে হত্যা

লালমনিরহাট জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০০ এএম

লালমনিরহাটের বুড়িমারীতে গণপিটুনি দিয়ে শহিদুন্নবী জুয়েলকে হত্যার পর লাশ পোড়ানোর ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার রাসেল ইসলাম রাজ ওরফে বিশু (২২) নামে আরও এক আসামী স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এ নিয়ে পাঁচজন দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিলেন।

গত শুক্রবার রাতে আমলি আদালত-৩ এর বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসরাফিল আলমের আদালতে পাঁচদিনের রিমান্ড শেষে জবানবন্দি দেন রাসেল। এর আগে গত রোববার দুপুরে আমলি আদালত-৩ এর বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফেরদৌসী বেগম পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। রাসেল লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের জুম্মাপাড়া এলাকার হামিদুল ইসলামের ছেলে। জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বলেন, বহুল আলোচিত জুয়েল হত্যা মামলায় দায়ের করা তিন মামলার অজ্ঞাতনামা আসামি রাসেলকে গত বৃহস্পতিবার রাতে পাটগ্রাম কলেজ মোড় থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনটি মামলা তদন্তে সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়ায় রাসেলকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রাসেলের পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদনের মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে রাসেলকে আদালতে হাজির করা হলে তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। এ মামলার মূলহোতা বুড়িমারী ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি আবুল হোসেন ওরফে হোসেন ডেকোরেটর এবং মসজিদের খাদেম জোবেদ আলীসহ এ নিয়ে মোট পাঁচজন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
এদিকে আলোচিত এ মামলায় গত বৃহস্পতিবার বুড়িমারী ইউনিয়নের ইসলামপুর ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আইনুল হকের ছেলে ফরিদুল ইসলামকে (৩৫) গ্রেফতার করে শুক্রবার সন্ধায় জেলহাজতে পাঠানো হয়। এ নিয়ে আলোচিত এ মামলায় মোট ৪০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
যার মধ্যে ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ড নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলেও জানান ওসি ওমর ফারুক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন