ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ঢাকায় আসবেন এরদোগান

তথ্যমন্ত্রীর সাথে তুরস্কের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:০৮ এএম

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এবং কোভিড পরিস্থিতি অনুক‚লে থাকলে তিনি আসবেন বলে সম্মতি দিয়েছেন। তিনি বলেন, তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপিত হবে। গতকাল সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত মুস্তফা ওসমান তুরান। এসব তথ্যমন্ত্রী এ কথা জানান। এ সময় তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তফা ওসমান তুরান বলেন, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাতে আধুনিক তুরস্কের পিতা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য এবং তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ সময় তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, তথ্যসচিব খাজা মিয়া ও মন্ত্রীর দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

তুর্কি রাষ্ট্রদূতের সাথে বৈঠকের পর তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ ও তুরস্কের মধ্যে ঐতিহাসিক সম্পর্ক এবং মূল্যবোধ ও সংস্কৃতির অনেক মিল রয়েছে। আপনারা জানেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এবং কোভিড পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে তিনি আসবেন বলে সম্মতিও দিয়েছেন। এছাড়া, তুরস্কের টেলিভিশন টিআরটি’র ইংরেজি চ্যানেলে মুজিববর্ষ উপলক্ষে অনুষ্ঠান সম্প্রচার এবং আগামী বছর আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে দু’দেশের মধ্যে সাংবাদিক প্রশিক্ষণ ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বিনিময় নিয়েও আলোচনা হয়েছে।’

ড. হাছান জানান, আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু ও ঢাকায় কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপনের পাশাপাশি তুরস্কের বাণিজ্যিক রাজধানী ইস্তাম্বুলে এবং বাংলাদেশের বাণিজ্য নগরী চট্টগ্রামেও অনুরূপ কিছু করা যায় কিনা সেটি নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত তুরান বলেন, বন্ধুত্বপূর্ণ দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আশা করি আমরা মুজিববর্ষের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগ দেব। বঙ্গবন্ধু হচ্ছেন বাংলাদেশের প্রতীক আর কামাল আতাতুর্ক হচ্ছেন তুরস্কের প্রতীক। এই দুই নেতার ভাস্কর্য দুই দেশে স্থাপন করবো এ ব্যাপারে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এবং ঢাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউয়ে কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য স্থাপিত হবে। শিগগিরই এই কাজ শুরু করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
Md Kazol Ahmed ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
welcome from my heart
Total Reply(0)
Sariful Islam Sajib ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৩ এএম says : 0
Warmly welcome
Total Reply(0)
Md Rubel ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৪ এএম says : 0
It’s will be great work, if Bangladesh can make a sustainable relationship with Turkey... I love this man from my heart
Total Reply(0)
নাবিল আব্দুল্লাহ ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৫ এএম says : 0
বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাতে আধুনিক তুরস্কের পিতা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য এবং তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমি এই সিদ্ধান্তের সাথে একমত হতে পারলাম না
Total Reply(0)
মাহমুদ ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৭ এএম says : 0
ভাস্কর্য এর কারণে তার এই সফর নিয়ে কিছুটা বিতর্ক তৈরি হতে পারে
Total Reply(0)
মোঃ দুলাল মিয়া ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ২:৩৮ এএম says : 0
উনি আসবে ভালো কথা কিন্তু আমাদের দেশের ব্যক্তিগত বেপারে কেন রকম হস্তক্ষেপ কামনা করার সুযোগ নেই। উনি আমাদের মেহমান আমরা উনাকে ইজ্জত করবে।
Total Reply(0)
salman ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ৫:৪৭ এএম says : 0
Wlc 2 DHAKA MR. ARDUAN, but ONI asben na. R Kono MURTI Bangladesh a kortay dewaa hobay naa, Vengayy fela hobay. In Sha Allah
Total Reply(0)
মোঃ দুলাল মিয়া ৩ ডিসেম্বর, ২০২০, ৯:২০ এএম says : 0
ইয়া মারহাবা মারহাবা এরদেগান আপনি আমাদের দেশে আসবেন তাতে আমরা খুশি হবে ।আপনি আমাদের মেহমান। জনাব আসবেন ভালো কথা দেখে যান বাংলাদেশের মুসলমানদের কিন্তু একটি কথা আপনাকে বলবে বলতে চাই।বর্তমানে আপনি যে বাংলাদেশে আসতেছেন সেই বাংলাদেশে বর্তমানে বহিতে সরকার বলতে নেই। কিন্তু আমাদের দেশে দেশে আসার পর বর্তমানে যে অবহিত সরকার আছে এই সরকার আপনাকে বলবে বাংলাদেশের ভিতরে জগগিবাদ আছে তখন আপনি বলবেন ঠিক আছে আমি জগগিবাদীদের নির্মূল করতে চাই তখন তখন এই অবহিতে সরকারের সাথে চুক্তিবদ্ধ ওহাত মিলিতে চাইবেন।আমি ও আমাদের দেশের জনগনের পক্ষ থেকে বলবে আমাদের দেশের ভিতরে কেন রকমের জগগিবাদ নাই শত% আপনি এই ভোট বিহীন সরকারের কথা শুনবেন না এবং ইসলাম ও মুসলমানদের বিপক্ষে কেন রকম কাজ করবেন না। আপনি হয়তে জানেন না এই দেশ আলেমদের হাফেজদের মুফতিদের এই দেশের রেকড আছে পতি বসর কতে মাওলানা মৌলভী মুফতি হাফেজ ইসলামী আদর্শ নিয়ে বাহির হয়।আমার অনুরোধ আপনি এই জালেম ভোট বিহীন সরকারের কথা শুনবেন না। যদি আপনি সরকারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয় আপনার ভুল হবে।আপনি একজন ভালো মানুষ আমাদের দেশের জনগণ চায় না আপনার সাথে জনগণের দুই কথা হউক।তর পরেও আপনি যদি না বুজে কিছু করেন সেটা আপনার বেপার। অন্যথায় কিছু হলে আমাদের দেশের মাওলানা মৌলভী মুফতি হাফেজ ইসলামী আদর্শ নিয়ে রাজনীতি করে তাদের বিরুদ্ধে যাওয়ার চেষ্টা করবেন না আমরা তাহা মেনে নিবে না আললাহ হাফেজ ইসলামী আদর্শের ইসলাম দেশ তার আসল নাম বাংলাদেশ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন