ঢাকা, বুধবার, ১৯ মে ২০২১, ০৫ জৈষ্ঠ্য ১৪২৮, ০৬ শাওয়াল ১৪৪২ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

শত বিলিয়ন ডলার ছাড়ানো তৃতীয় ভারতীয় প্রতিষ্ঠান আদানী গ্রুপ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০৪ এএম

বিলিয়নেয়ার গৌতম আদানীর বন্দর থেকে জ্বালানী সংগ্রহকারী সংস্থা মঙ্গলবার বাজার মূলধনে ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিক্রমকারী তৃতীয় গ্রুপে পরিণত হয়েছে। এদিন তার তালিকাভুক্ত ছয়টি সংস্থার মধ্যে চারটির শেয়ার সর্বকালের উচ্চতায় পৌঁছে।
স্টক এক্সচেঞ্জের তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার বাণিজ্য সমাপ্তির সময় আদনী গ্রুপের ছয়টি তালিকাভুক্ত সংস্থার মোট বাজার ক্যাপিটাল ছিল ৭.৮৪ লাখ কোটি রুপি বা ১০৬.৮ বিলিয়ন ডলার।
টাটা গ্রুপ এবং রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পরে ১০০ বিলিয়ন ডলারের মার্কেট ক্যাপ মার্ক অতিক্রমকারী তৃতীয় ভারতীয় গ্রুপ হচ্ছে আদানী গ্রুপ।
১৯৮০-এর দশকের শেষের দিকে পণ্য ব্যবসায়ী হিসাবে কাজ শুরু করার পরে গৌতম আদানী দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে একটি সাম্রাজ্য তৈরি করেছেন যা এখন খনি, বন্দর এবং বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে শুরু করে বিমানবন্দর, ডেটা সেন্টার, সিটি গ্যাস এবং প্রতিরক্ষা পর্যন্ত বিস্তৃত।
গত দুই বছরে তার দলটি সাতটি বিমানবন্দর এবং ভারতের বিমান চলাচলের প্রায় এক চতুর্থাংশের নিয়ন্ত্রণ অর্জন করেছে, নবায়নযোগ্য জ্বালানি সক্ষমতা সংযোজনে দ্রুত অগ্রগতি অর্জন করেছে, শ্রীলঙ্কায় একটি বন্দর টার্মিনাল সহ-বিকাশের চুক্তি জিতেছে এবং ভারতে বন্দর কিনেছে।
সা¤প্রতিক সপ্তাহগুলোতে এ গ্রুপটি গঙ্গারাম বন্দরে ছত্রাক অর্জন করেছে, গুজরাটে বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু করেছে, মুম্বাই উপক‚লে প্রাকৃতিক গ্যাসের মজুদ আবিষ্কার করেছে, সৌর প্রকল্প গ্রহণ করেছে, এসেল ইনফ্রাপ্রোজেক্টস থেকে বিদ্যুৎ সংক্রমণ প্রকল্প কিনেছে এবং ১ গিগাওয়াট বিকাশের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ভারতে তথ্য কেন্দ্রের ক্ষমতা।
আদানী বন্দরগুলো দেশের বন্দর শিল্পের ৩০ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করে এবং এর নবায়নযোগ্য জ্বালানি এবং শহর গ্যাস বিতরণ ব্যবসায়ের অংশীদার হিসাবে ফরাসি জ্বালানি জায়ান্ট।
আদানী গ্রিন ২০২৫ সালের মধ্যে ২৫ গিগাওয়াট নবায়নযোগ্য বিদ্যুত সক্ষমতার লক্ষ্য নির্ধারণ করছে।
বিএসইর তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার বিএসইতে আদানী এন্টারপ্রাইজস সর্বকালের সর্বোচ্চ ১,২২৫.৫৫ রুপিতে বন্ধ হয়েছে, যা আগের দিনের বন্ধের তুলনায় ৭.৬৭ শতাংশ বেশি।
আদানী টোটাল গ্যাস ১২২৮.৩৫ টাকায় বন্ধ হওয়ার আগে রেকর্ড সর্বোচ্চ ১,২৪৮ রুপিতে পৌঁছে, আর আদানী ট্রান্সমিশন পাঁচ শতাংশ বেড়ে লাফিয়ে ১,১৪৭ রুপিতে উঠে দিন শেষে ১১০৯.৯০ রুপিতে দাঁড়িয়েছে। আদানী পোর্টস ১২.৪৮ শতাংশ বেড়ে সর্বশেষ সর্বোচ্চ ৮৩৭.৪৫ টাকায় দাঁড়িয়েছে। আদানী পাওয়ার ৫ শতাংশ বেড়ে ৯৮.৪০ টাকায় দাঁড়িয়েছে, আর আদানী গ্রিন এনার্জি ২.২ শতাংশ বেড়ে ১,১৯৪.৫৫ টাকায় দাঁড়িয়েছে।
আদনী গ্রিন এবং আদানী পাওয়ার বাদে অন্য তালিকাভুক্ত সংস্থাগুলির শেয়ার রেকর্ড সর্বোচ্চ ছুঁয়েছে।
টাটা গ্রুপের বর্তমান বাজার ক্যাপ প্রায় ২৪২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং আরআইএল এম-ক্যাপ ১৭১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে রয়েছে।
আদানী গ্রুপের পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের মার্কেট ক্যাপ রয়েছে ১ লাখ কোটি টাকারও বেশি, আর একটি - আদানী পাওয়ার - এর এম-ক্যাপ রয়েছে ৩৭,৯৯২.২৮ কোটি টাকা। সূত্র : বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
মিনহাজ ৭ এপ্রিল, ২০২১, ২:২২ এএম says : 1
আমাদের দেশে এরকম যদি কয়েকটা প্রতিষ্ঠান থাকতো
Total Reply(0)
হেদায়েতুর রহমান ৭ এপ্রিল, ২০২১, ২:২২ এএম says : 0
অভিনন্দন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন