ঢাকা, সোমবার, ১০ মে ২০২১, ২৭ বৈশাখ ১৪২৮, ২৭ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

আনোয়ারায় ঢিলেঢালা লকডাউন, প্রশাসনের পর্যাবেক্ষণ, নেই জেল-জরিমানা

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০২১, ২:২০ পিএম

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় চলছে ঢিলেঢালা লকডাউন, সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন সড়কে প্রাইভেট কার, রিক্সা, ও কিছু সিএনজিচালিত অটোরিক্সা চলতে দেখা গেছে। দ্বিতীয় দিনে লকডাউন দেখে বোঝার উপার নেই। ম্যাজিস্ট্রেট চলে যাওয়ার পরে উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ বাজারে মানুষের আনাগোনা ছিল আগের মত। করোনা ভাইরাসের সংক্রমন প্রতিরোধে সরকারের ২য় দফা লকডাউনে দ্বিতীয় দিনে বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের না হওয়া, মুখে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি মানাতে হাট-বাজার এবং সড়কে মাইকিং করে উপজেলা প্রশাসন ও আনোয়ারা থানার পুলিশ।
বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলার চাতরী চৌমুহনী বাজারে মাইকিং করে জনগণকে বিনা প্রয়োজনে ঘর থেকে বের না হওয়া, মুখে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে আহবান জানান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হাসান চৌধুরী ও উপ সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল আনোয়ারা) হুমায়ূন করিব। এসময়ে থানার অফিসার ইনচার্জ এস.এম দিদারুল ইসলাম সিকদারসহ উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ, ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সরেজমিনে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার চাতরী চৌমুহনী, বন্দর কমিউনিটি সেন্টার, বটতলী শাহ্ মোহছেন আউলিয়া রুস্তমহাট, কালাবিবি দিঘির মোড়, আনোয়ারা সদর, তৈলারদ্বীপ সরকার হাটে অন্যান্য দিনের মতো মানুষের আনাগোনা ছিল আগের মত। সড়কে বড় গাড়ী চলাচল না করলেও সিএনজি অটোরিক্সা, ব্যাটারী চালিত রিক্সা ও ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক ছিল। এছাড়া উপজেলার বড় বড় মার্কেট ও শপিংমল গুলো বন্ধ দেখা যায়। বন্ধ ছিল বিভিন্ন খাবারের দোকানপাটও।
উপ সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল আনোয়ারা) হুমায়ূন করিব বলেন, সরকারের স্বাস্থ্য বিধি মানতে সকলকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হচ্ছে। প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে প্রতিদিন। করোনা থেকে বাঁচতে মানতে হবে সরকারের নির্দেশনা। নিজে সুস্থ থাকি, সুস্থ রাখি নিজের পরিবারকেও।
জানতে চাইলে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হাসান চৌধুরী বলেন, করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে সাধারণ মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন হাট-বাজার পর্যবেক্ষন করা হয়েছে। এ সময় সাধারণ মানুষকে সচেতন করা ও কিছু দোকানদার ও গাড়ী চালককে সতর্ক করা হয়েছে। প্রশাসন সার্বক্ষণিক মাঠে নজরদারী রয়েছে। তবে কাউকে জরিমানা করা হয়নি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন