ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০১৯, ০৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২০ যিলক্বদ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

ঈদের আনন্দ ভাগ্যে নেই পরিবারে

মানব পাচারের শিকার মাদারীপুরের ৭ যুবক

প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আবুল হাসান সোহেল মাদারীপুর থেকে : দালালের খপ্পরে পড়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়েছেন মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার একই গ্রামের সাত যুবক। তাদের পরিবারে চলছে কান্নার রোল। ঈদের আনন্দ ভাগ্যে নেই পরিবারগুলোতে।
এলাকা ঘুরে জানা যায়, মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা বলে রাজৈরের আমগ্রাম ইউনিয়নের তেলিকান্দি গ্রামের সাত যুবককে গতবছর ১৫ মার্চ ঢাকা নিয়ে যায় বাজিতপুর ইউনিয়নের পাখুল্যা গ্রামের মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য সাদেক বয়াতী ও এহছাক মল্লিক। এরপর থেকেই নিখোঁজ রয়েছেন তারা।
এরা হলেন-চেলিগ্রামের বান্দু মাতুব্বরের ছেলে হান্নান মাতুব্বর (২৮), সোহরাব মাতুব্বরের ছেলে জহিরুল মাতুব্বর (২০), আবেদ আলীর ছেলে রাসেল মোল্লা (২১), মতি শেখের ছেলে হানিফ শেখ (১৮), জাহাঙ্গীর খাঁর ছেলে ওবায়দুর খাঁ (১৬), তৈয়ব আলী খাঁয়ের ছেলে অহিদুল খাঁ (১৮) এবং কাজল খাঁর ছেলে বিনাদ খাঁ (২৪)।
তেলিকান্দি গ্রামের বাসিন্দা ইউনুস মিয়া জানান, মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বাজিতপুর ইউনিয়নের পাখুল্যা গ্রামের মানব পাচারকারী দালাল চক্রের সদস্য সাদেক বয়াতী এছাহাক মল্লিক ওই সাত যুবকের প্রত্যেকের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা নেয়।
নিখোঁজ বিনাদের মা ফরিদা বেগম জানান, দালালরা তার ছেলেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা বলে ২০ হাজার টাকা নেয়। টাকা দিলে গতবছর ১৫ মার্চ তার ছেলেকে নিয়ে যায় দালালরা। এরপর কোনো খোঁজ মেলেনি তার। ছেলেকে ফিরে পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।
নিখোঁজ রাসেলের বাবা আদিলউদ্দিন মোল্লা জানান, তার ছেলেকে জিম্মি করে বিভিন্ন কায়দায় টাকা চাচ্ছে দালালরা। কখনো বলছে থাইল্যান্ডে আছে, কখনো বা বলছে মালয়েশিয়ায়। ছেলে আদৌ কোথায় আছে কেউ জানে না। পরিবারগুলোর লোকেরা বলেন, একটু সুখের আশায় বহু কষ্ট করে টাকা যোগাড় করে দালালদের কাছে নিজের প্রিয়জনকে হাতে তুলে দিলে তাদের নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ কত যে কষ্টের তা নিজের না হলেও বোঝার উপায় নেই। নিখোঁজ প্রিয়জনের খোঁজ না পাওয়া পর্যন্ত ঈদের আনন্দ কপালে নেই। প্রিয়জনের খোঁজের আশায় মহান আল্লাহর কাছে দোয়া প্রার্থনা করে দিন-রাত পার করছি। কবে নিখোঁজদের সন্ধান মিলবে সে আশায় পথের দিকে চেয়ে আছি।
মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মো. সরোয়ার হোসেন বলেন, ‘এ ধরনের মানব পাচারকারী ও দালালদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভবিষ্যতে কেউ যাতে এই ধরনের কার্যকলাপ করতে সাহস না পায় সেই পদক্ষেপ গ্রহণ করবে পুলিশ।
মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক কামাল উদ্দিন বিশ্বাস বলেন, ‘নিখোঁজদের পরিবারের অভিযোগ পেলে তাদের ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ট দফতরের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন