সোমবার, ০২ আগস্ট ২০২১, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২২ যিলহজ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ঈদ শেষে শিমুলিয়া নৌরুটে উভয়মুখী মানুষের ঢল

লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ জুলাই, ২০২১, ২:০৭ পিএম

ঈদের দ্বিতীয় দিনে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে সকাল থেকে উভয়মুখী যাত্রীর দেখা গেছে। শিমুলিয়া ঘাট দিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি দক্ষিণবঙ্গ হতে বাংলাবাজার ঘাট দিয়ে ঢাকাগামী যাত্রীর চাপ রয়েছে। এদিকে,বিধি-নিষেধে শিথিলতা আর বাড়ানো হচ্ছে না এবং আগামীকাল শুক্রবার (২৩ জুলাই) আবারো শুরু হচ্ছে ১৪ দিনের ফের কঠোর বিধি-নিষেধ গত বুধবার রাতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেনের এমন ঘোষণার পর ঢাকা ও দক্ষিণবঙ্গের উদ্দেশে রওনা হয়েছে মানুষ।
আজ বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের ফেরি ও লঞ্চে উভয়মুখী যাত্রীরা নদী পারাপার হচ্ছে। তবে বাড়ি ফেরা মানুষের চাইতে কর্মস্থলে ফেরা মানুষের সংখ্যা কয়েকগুণ বেশি। এদিকে শিমুলিয়া ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় চার শতাধিক ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী গাড়ির দীর্ঘসারি রয়েছে।
বিআইডাব্লিউটিসি সূত্রে জানা যায়, ঘাটে ব্যক্তিগত ও পণ্যবাহী মিলিয়ে ৫ শতাধিক গাড়ি পদ্মা পারের অপেক্ষায় আছে। অন্যদিকে ঘাটে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী না থাকায়। যাত্রীর চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে। এদিকে পদ্মায় তীব্র স্রোত,গণপরিবহন ও ব্যক্তিগত গাড়ির চাপ বাড়ায় ফেড়িতে যানবাহন পারাপারে বেগ পেতে হচ্ছে। শিমুলিয়া ঘাট কর্তৃপক্ষ জানান, যানবাহন ও যাত্রী পারাপারে নৌরুটে বর্তমানে ১৫টি ফেরি ও ৮৪টি লঞ্চ সচল রয়েছে।
বিআইডাব্লিউটিসি শিমুলিয়া কর্তৃপক্ষ জানান,নৌরুটে বর্তমানে ছোট-বড় মিলিয়ে ১৫টি ফেরি সচল রয়েছে। ঘাট এলাকায় পারাপারের জন্য ব্যক্তিগত গাড়ি মিলিয়ে ৪ শতাধিক যানবাহন রয়েছে। সকাল থেকে যাত্রী এবং মোটরসাইকেল চাপ রয়েছে ফেরি গুলোতে।
পদ্মায় তীব্র স্রোতে নৌরুটে ফেরি চলাচলে বেশি সময় আর ঘাটে থাকা যানবাহন পারাপারে বেগ পেতে হচ্ছে।

মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ ইন্সপেক্টর মো. হাফিজুল ইসলাম দৈনিক ইনকিলাবকে জানান, ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ রয়েছে। ৩ শতাধিক ছোট-বড় ও পন্যবাহী যানবাহন পারাপারে অপেক্ষায় আছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন