ঢাকা, রোববার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬, ১০ শাবান ১৪৪১ হিজরী

মহানগর

বরিশালে ঘাম ঝরানো গরমে অঝোর বর্ষণ

প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বরিশাল ব্যুরো : আশ্বিনের অমাবস্যার ভরা কোটালে ভর করে শরতের ঘাম ঝরানো গরমের মধ্যেই গতকাল শেষ রাত থেকে সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত অঝোর বর্ষণে বরিশালের জনজীবন প্রায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। সকাল ১০টার পর বৃষ্টির দাপট কিছুটা কমলেও দুপুর ১২টা পর্যন্ত হালকাভাবে তা অব্যাহত ছিল। গতকাল সকাল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত বরিশালে ১২২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। গত মাসের ২১ তারিখের স্মরকালের ভয়াবহতম লাগাতার বর্ষণে ২৮৭ মিলিমিটার বর্ষণের পর চলতি মাসে বৃষ্টিপাতের ঘাটতি গতকাল অনেকটাই পূরণ হয়েছে। চলতি মাসে আবহাওয়া বিভাগ থেকে বরিশাল অঞ্চলে স্বাভাবিক ৩৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের কথা বলা হলেও গতকাল পর্যন্ত বৃষ্টি হয়েছে ২৭৫ মিলিমিটারের মতো।
তবে গতকাল শেষ রাত থেকে শুরু হওয়া প্রবল বর্ষণের সাথে লাগাতার বজ্রপাতে জনজীবনে আতঙ্কও ছড়ায় যথেষ্ট। আর এ বর্ষণের সাথে ঘণ্টায় মাত্র ১৮ কিলোমিটার বেগের বাতাসে বরিশাল মহানগরীসহ গোটা জেলা এবং ঝালকাঠী জেলার বিদ্যুৎ সঞ্চালন, সরবরাহ ও বিতরণ ব্যবস্থাও বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। খোদ বরিশাল মহানগরীর অনেক এলাকায়ই বিদ্যুৎ ব্যবস্থা পুনর্বাসনে বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হয়ে  যায়। আর  প্রবল বর্ষণে যথারীতি বরিশাল মহানগরীর প্রায় অর্ধেক এলাকাই পুনরায় পানিতে তলিয়ে যায় গতকাল। নগরীর নবগ্রাম রোডসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনের রাস্তার বড় অংশ সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পানিতে থৈ থৈ করছিল।
মৌসুমি বায়ু দুর্বল অবস্থা থেকে মাঝারি অবস্থায় ফিরে আসার পরই বঙ্গোপসাগর থেকে ধেয়ে আসা বিপুল মেঘমালা বরিশাল-ভোলাÑসন্দ্বীপ হয়ে পূর্ব উপকূলের বিভিন্ন এলাকায় প্রচুর বৃষ্টি ঝরিয়েছে গতকাল। সকাল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত এ বর্ষণ হলেও অঝোর ধারায় বৃষ্টি হয়েছে সকাল ৬টা থেকে সাড়ে ৮টা পর্যন্ত। আবহাওয়া বিভাগের মতে, মৌসুমি বায়ুর অক্ষ ভারতের হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, পূর্ব মধ্য-প্রদেশ, উড়িষ্যা, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের দক্ষিণাংশ হয়ে উত্তর-পূর্ব দিকে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বরিশাল ও খুলনাসহ উপকূলের বেশিরভাগ এলাকাসহ দেশের অধিকাংশ এলাকায়ই অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টির সম্ভাবনার কথাও বলা হয়েছে। পাশাপাশি দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনার কথা বলা হলেও আগামীকাল থেকে সারাদেশে বৃষ্টিúাতের প্রবণতা হ্রাস পাবার সম্ভাবনার কথাও জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। একই  সাথে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পাবার পাশাপাশি  রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। গতকাল বরিশালে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে আসে, যা আগের দিন ৩২.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ছিল। এমনকি শরতের এসময়ে বরিশালে তাপমাত্রার পারদ প্রায় ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে ঘোরাফেরা করে গত সপ্তাহে।
গতকাল সকালের প্রবল বর্ষণের পর বরিশাল মহানগরীর নবগ্রাম রোডসহ কয়েকটি রাস্তায় অনেক সৌখিন মৎস্য শিকারি জাল ফেলে মাছ ধরারও চেষ্টা করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন