রোববার, ২২ মে ২০২২, ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সাবেক ওসি প্রদীপের নির্দেশে বরখাস্ত এসআই লিয়াকতের গুলিতে নিহত হয় মেজর (অবঃ) সিনহা - সাক্ষ গ্রহণকালে মামলার বাদী

কক্সবাজার ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০২১, ৩:৩১ পিএম

মেজর (অবঃ) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশের নির্দেশে বরখাস্ত হওয়া ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলীর গুলিতে নির্মমভাবে নিহত হয়েছেন বলে দাবী করেছেন মামলার বাদী মেজর সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। তিনি বলেন, প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে এ হত্যাকান্ডের বিস্তারিত বিবরণ জেনে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট আদালতে মামলা দায়ের করেছি।

চাঞ্চল্যকর মেজর (অবঃ) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার সাক্ষ্য প্রদানকালে মামলার মামলার বাদী ও নিহত সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস সোমবার ২৩ আগষ্ট
কক্সবাজার জেলা দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এর আদালতে এ সাক্ষ্য দেন।

রাষ্ট্র পক্ষে মামলাটির আইনজীবী ও কক্সবাজার জেলা দায়রা জজ লতের পিপি এডভোকেট ফাদুল
সাক্ষ্য গ্রহণকালে মামলার ১৫ জন আসামীও আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। এর আগে কড়া নিরাপত্তায় কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে ১৫ জন আসামীকে সোমবার সকালে আদালতে হাজির করা হয়।

এর আগে আদালতে সমন দেওয়া ৫ জন সাক্ষীর মধ্যে ৩ জন সাক্ষী যথাক্রমে বাদী শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস, পিতা-বীর মুক্তিযোদ্ধা এরশাদ খান, টেকনাফের শামলাপুরের ডা. মৃত ফজল করিমের পুত্র মোঃ আবদুল হামিদ এবং শামলাপুরের মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ ইউনুচ সমন পেয়ে সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য সোমবার সকালে আদালতে হাজিরা দেন। সোমবার সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য আদালত থেকে সমন দেওয়া সাক্ষী মেজর (অবঃ) সিনহার ‘জাস্ট গো' ডকুমেন্টারি টিমের সদস্য সাহিদুল ইসলাম প্রকাশ সিফাত, টেকনাফের মিনাবাজারের কাজী
মিনাবাজারের কাজী ঠান্ডা মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ আলী অনুপস্থিত ছিলেন।

সোমবার আদালতে শুরু হওয়া সাক্ষ্য গ্রহন একটানা আরো ২ দিন ২৪ ও ২৫ আগস্ট, যথাক্রমে মঙ্গলবার ও বুধবারও চলবে। মামলাটির চার্জসীটভুক্ত প্রথম ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহনের জন্য আদালত থেকে সমন দেওয়া হয়েছে বলে জানান কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সেরেস্তাদার নুরুল কবির। প্রতিদিন ৫ জন করে সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করার কথা রয়েছে।

কক্সবাজার জেলা দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র বেঞ্চ সহকারী (পেশকার) সন্তোষ বড়ুয়া জানান, চলতি বছরের গত ২৭ জুন কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মুহাম্মদ ইসমাইল মামলাটির চার্জ
গঠন করে সাক্ষ্য গ্রহনের দিন ধার্য্য করেন।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই ঈদুল
আজহার আগের রাত সাড়ে সাড়ে ৯টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কে শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশ কর্মকর্তা লিয়াকত আলীর গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। হত্যার পাঁচদিনের মাথায় ৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন টেকনাফ থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নম্বরঃ এসটি-৪৯৩/২০২১ ইংরেজী। যার জিআর মামলা নম্বরঃ ৭০৩/২০২০ ইংরেজি। যার টেকনাফ মডেল থানা মামলা নম্বরঃ ৯/২০২০ ইংরেজি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন