মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ঝাড়খন্ড বিধানসভায় নামাজ পড়ার জন্য আলাদা ঘর

বিজেপি’র বিরোধিতা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০১ এএম

এবার থেকে ঝাড়খন্ড বিধানসভা ভবনের ভেতরেই নামাজ পড়তে পারবেন মুসলমান বিধায়করা। সেজন্য আলাদা করে ঘর বরাদ্দ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের জেএমএম-কংগ্রেস জোট সরকার। তবে এই সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা শুরু করেছে কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপি। এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না করা হলে, বিধানসভা ঘেরাও করার হুঁশিয়ারি পর্যন্ত দিয়েছে তারা।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই ঝাড়খন্ড বিধানসভায় নামাজের জন্য আলাদা ‘নামাজ কক্ষ’ বরাদ্দ করেছে সরকার। সরকারের যুক্তি, অনেক সময় মুসলিম বিধায়করা অধিবেশন মাঝপথে ছেড়ে নামাজ পড়তে যান। যার ফলে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজে সমস্যা হয়। সেকারণেই বিধানসভার ভেতরেই মুসলিম বিধায়কদের জন্য নামাজ পড়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যা নিয়ে তীব্র আপত্তি বিজেপির। মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেনের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে চলতি অধিবেশনের শুরু থেকেই বিধানসভা উত্তাল। দিন দুই আগেই বিধানসভা ভবনের সামনে মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সরেনের কুশপুতুল পুড়িয়েছে বিজেপি। সোমবার দিনভর বিধানসভায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন বিজেপি বিধায়করা। সোমবার বিধানসভায় ঢোকার মুখেই জয় শ্রীরাম সেøাগান দেন বিজেপি বিধায়করা। কেউ কেউ হনুমান চালিশাও পাঠ করেন।

বিজেপির দাবি, বিধানসভা কক্ষে যেমন নামাজের জন্য আলাদা কক্ষ তৈরি করা হয়েছে, তেমনই বড় হনুমান মন্দির তৈরি করতে হবে। অন্য ধর্মের উপসনা কক্ষও তৈরি করতে হবে। আর নাহয় নামাজ কক্ষটিকে সব ধর্মের প্রার্থনা কক্ষে পরিণত করতে হবে। যদিও, সেই প্রস্তাবে রাজি নন মুখ্যমন্ত্রী সোরেন। তার বক্তব্য, ‘এতে কোনও সমস্যার সমাধান হবে না। ঈশ্বর সর্বত্র বিরাজমান। মন পরিষ্কার থাকলে এতে কারও সমস্যা থাকার কথা নয়। ক‚ট মানসিকতা থাকলে সবকিছু নিয়েই সমস্যা হয়।’ এরপরই বিজেপি হুঁশিয়ারি দিয়েছে, অবিলম্বে ওই নামাজ কক্ষ বন্ধ না হলে বিধানসভা কক্ষ ঘেরাও করবে তারা। সূত্র : এনডিটিভি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন