বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০৬ মাঘ ১৪২৮, ১৬ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

কোরআন ও নবী (সা.) অমর্যাদা হলে হৃদয়ে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়

হেফাজতে ইসলামের সম্মেলনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ নভেম্বর, ২০২১, ৬:৪৫ পিএম | আপডেট : ৬:৫০ পিএম, ২৭ নভেম্বর, ২০২১

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, পবিত্র কোরআন ও নবী (সা.) এর অমর্যাদা হলে আমাদের হৃদয়েও ক্ষোভের সৃষ্ট হয়। ইসলামে কারো ধর্ম বিশ্বাসের ওপর আঘাত দেয়ার সুযোগ নেই। নবী (সা.) বলেছেন, কারো ধর্ম পালনে বাধার সৃষ্টি করা যাবে না। সংবিধানেও স্পষ্টভাবে বলা আছে সকল ধর্মালম্বিরা তাদের স্ব স্ব ধর্ম পালনের যথাযথ সুযোগ পাবেন।
মহান আল্লাহ তায়ালা, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ও কোরআন-সুন্নাহ তথা ইসলাম অবমাননাকারীদের বিরুদ্ধে জাতীয় সংসদে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আইন পাস করার দাবিতে আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ আয়োজিত ওলামা-মাশায়েখ সম্মেলনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একজন পাক্কা ঈমানদার। তিনি আলেম ওলমাদের যথেষ্ট শ্রদ্ধা করেন। তিনি ওয়াদা করেছেন কোরআন সুন্নাহ বিরোধী কোনো আইন করবেন না। প্রধানমন্ত্রী মরহুম আল্লামা শাহ আহমদ শফী (রহ.) কে অত্যান্ত ভালোবাসতেন। তিনি দীর্ঘ দিনে দাবি কওমি মাদরাসা শিক্ষার স্বীকৃতি দিয়েছেন।


হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বানুনগরীর সভাপতিত্বে এবং মাওলানা মুহিউদ্দিন রব্বানীর পরিচালনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম জেহাদী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের নায়েবে আমির মাওলানা সালাহ উদ্দিন নানুপুরী, নায়েবে আমির মাওলানা তাজুল ইসলাম, নায়েবে আমির হাফেজ ক্বারী শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, নায়েবে আমির প্রিন্সিপাল মাওলানা মিজানুর রহমান চৌধুরী, নায়েবে আমির মুফতি ইয়াহহিয়া, মুফতি জসিম উদ্দিন, বেফাক মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা সাজেদুর রহমান,মাওলানা আব্দুল আউয়াল, মাওলানা আবুল কালাম, মুফতি মোহাম্মদ আলী, মাওলানা আইয়ুব বাবুনগরী, মাওলানা মীর ইদ্রিস, মাওলানা আনোয়ার কারিম, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মুফতি কামাল উদ্দিন, মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম সোবহানী ও মাওলানা শাব্বির আহমদ রশিদ।

নেতৃবৃন্দ পবিত্র কোরআন, নবী (সা.) ও ইসলামের বিরুদ্ধে কটুক্তিকারীদের বিরুদ্ধে জাতীয় সংসদে শাস্তিমূলক আইন পাশ এবং কারাবন্দি সকল নির্দোষ আলেম ওলামাদের অনতিবিলম্বে মুক্তির জোর দাবি জানান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বি-বাড়িয়া ও হাটহাজারীর ঘটনায় যারা ইন্তেকাল করেছেন তাদের মধ্যে দু’জন মাদরাসার ছাত্র ছিল। তিনি বলেন, আপনাদের মধ্যে অনুপ্রবেশকারী ঢুকে অপ্রীতিকর ঘটনা কেমনে ঘটায় এ ব্যাপারে সর্তক থাকা উচিৎ ছিল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কারাবন্দি নির্দোষ আলেমদের জামিন দেয়ার ব্যবস্থা করেছি।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন