বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

ইঞ্জিন বিকল হয়ে ৬দিন সাগরে থাকার পর হাতিয়া ভাসানচরে ১৩ জেলে উদ্ধার

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:৩০ পিএম

গত ২৮ নভেম্বর বরগুনা থেকে মাছ শিকারে বঙ্গোপসাগরে যায় এমভি হাওলাদার নামের একটি মাছ ধরার ট্রলার। মাছ শিকারকালে গত ৩০ নভেম্বর দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় ট্রলারটির ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়লে সাগরে আটকা পড়ে ১৩জন মাঝি-মাল্লা ও জেলে। মোবাইলে তথ্য পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করে নোয়াখালীর হাতিয়ার ভাসানচর কোস্টগার্ডের একটি দল।


রোববার রাত ২টার দিকে ইঞ্জিন বিকল হওয়া ট্রলারটিসহ তাদের ভাসানচরে নিয়ে আসে কোস্টগার্ড। উদ্ধার হওয়া সবার বাড়ি বরগুনার পাথরঘাটা এলাকায়।

কোস্টগার্ড জানায়, গত ৬দিন ধরে বঙ্গোপসাগরে জোয়ারে ভাসতে থাকা ফিসিং ট্রলারের লোকজন মোবাইলের নেটওয়ার্ক পেয়ে কোস্টগার্ডকে অবগত করে। খবর পেয়ে কোস্টগার্ড পূর্ব জোন বিসিজি কন্টিনজেন্ট হাতিয়ার ভাসানচরের একটি দল রোববার বিকেলে তাদের উদ্ধারে নামে। গভীর রাতে হাতিয়ার পূর্ব পাশে গাঘুরিয়ার চরের দক্ষিন অংশের বঙ্গোপসাগর থেকে ট্রলারসহ জেলেদের সন্ধান পেয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়। তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে দীর্ঘ সময় পর তাদের অবস্থান নিশ্চিত করা হয়।

উদ্ধার হওয়া ট্রলারের মাঝি এমাজল হক জানান, গত ২৮ নভেম্বর পাথরঘাটা থেকে মাছ শিকারের জন্য সাগরে যান তিনিসহ ১৩জন। গত ৩০ নভেম্বর তাদের ট্রলারের ইঞ্জিনটি বিকল হয়ে যায়। এর পর থেকে জোয়ারে সাগরের ভাসতে থাকেন তারা। কারো সাথে যোগাযোগ করার জন্য মোবাইলে নেটওয়ার্ক পাচ্ছিলেন না। রোববার বিকেলে মোবাইলে নেটওয়ার্ক পেয়ে পাথরঘাটা ট্রলারের মালিক সোহাগ হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি কোস্টগার্ডকে বিষয়টি অবগত করেন। ভাসানচরে অবস্থান করে ট্রলারের ইঞ্জিন মেরামত করে দ্রুত বাড়ি ফিরে যাবেন বলেও জানান তিনি।

ভাসানচর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, উদ্ধার হওয়া জেলেদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা দওেয়া হয়েছে। তাদেরকে ভাসানচর কোস্টগার্ডের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন