শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ২৩

নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতা

সাতক্ষীরা জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০১ এএম

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার খাজরা ইউনিয়নে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতার ঘটনায় পুলিশ ২৩ জনকে আটক করেছে। এরমধ্যে খাজরা ইউপির নবনির্বাচিত আওয়ামীগের এস,এম শাহনেওয়াজ ডালিম ও পরাজিত বিদ্রোহী প্রার্থী ওয়াহেদুজ্জামান রয়েছেন।

আটককৃত অন্যান্যদের মধ্যে রয়েছেন, গদাইপুর গ্রামের আফতাব মোল্লার ছেলে মুক্তিযোদ্ধা রুহুল কুদ্দুছ, ইনামুল সরদারের ছেলে রাব্বি, নওশের সরদারের ছেলে মোহাম্মদ আলী, মুকুল হোসেনের ছেলে রাসেল, বেদের সরদারের ছেলে মঈনুর সরদার ও তার ভাই হাওলাদার সরদার, নূর ইসলাম সরদারের ছেলে মোস্তফা সরদার, নাছিম উদ্দিনের ছেলে আক্তার হোসেন, কোকিল দাই এর ছেলে লিটু দাই, সুধাংশু মণ্ডলের ছেলে সুপদ মণ্ডল, লতিফ মোল্লার ছেলে রবিউল মোল্লা, আমির আলী গাজীর ছেলে জুয়েল গাজী, আলাউদ্দিন মোল্লার ছেলে নরিম মোল্লা, আকবর আলী মোল্লার ছেলে আমান মোল্লা, মিঞারাজ মোল্লার ছেলে শ্যামল মোল্লা, ইউনুছ ওরফে খোকন মোল্লার ছেলে আবুল খায়ের, গফুর মোল্লার ছেলে হাসান মোল্লা,হাসমত মোল্লার মেয়ে ফুটফুটি, হাফিজুল মোল্লার ছেলে মোস্তাকিম ও ইয়াছিন, রফিকুল মোল্লার ছেলে আসাদুর, পরাজিত চেয়ারম্যানের দেহরক্ষী খুলনা শহেরর রাসেল। গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তাদের আটক করা হয়।
উল্লেখ্য, ৫ম দফার ইউপি নির্বাচনে গত বুধবার ১২২ ভোটে নৌকা প্রতীক নিয়ে এস,এম শাহনেওয়াজ ডালিম খাজরা ইউপির চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হন। পরদিন গত বৃহষ্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তিনি কর্মী সমর্থকদের নিয়ে বিজিয় মিছিল নিয়ে তুয়ারডাঙা ব্রিজের পাশে আনারস প্রতীকের পরাজিত প্রার্থী অহিদুল ইসলামের বাড়ির সামনে পৌঁছালে বিজয় মিছিলকে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজ করা হয়। জবাবে তার কর্মী সমর্থকরাও গালিগালাজ করে। একপর্যায়ে উভয়পক্ষ ইট পাটকেল নিক্ষেপ করার সময় পরাজিত প্রার্থী অহিদুল ইসলামের বাড়ির দোতলা থেকে এনামুলের ছেলে রাব্বি বিজয় মিছিলকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এতে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানের ভাতিজাসহ পাঁচজন গুলিবিদ্ধ হয়। ইটের আঘাতে আহত হয় তিন জন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় গুলিবিদ্ধ রাসেল ও আসাদুলকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যদের আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।
গতকাল আশাশুনির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম কবির জানান, ঘটনাস্থলে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পুলিশ অহিদুলের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশ কিছু ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোটা জব্দ করেছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। সকাল ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত টানা দুই ঘণ্টার সহিংসতায় ৮ জন আহত হয়েছেন বলে তিনি দাবি করেছেন। এছাড়া, প্রতাপনগরে দু’জনকে পিটিয়ে জখমের ঘটনায় সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন