সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

লকডাউন দিলে দেশের ক্ষতি হয়

মানিকগঞ্জে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মানিকগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৩ এএম

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশে আশঙ্কাজনকভাবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলছে। সরকার ঘোষিত ১১ দফা বিধিনিষেধ না মানলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ। আমাদের নিজের জন্য, পরিবারের জন্য, দেশের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

এই নির্দেশনা মানলে দেশে লকডাউনের প্রয়োজন হবে না। কারণ লকডাউন দিলে দেশের ক্ষতি, মানুষের ক্ষতি। নির্দেশনা না মানলেই লকডাউন দেয়ার চিন্তা রয়েছে। টিকা করোনা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। মাস্কই একমাত্র আমাদের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেয়। তাই আমাদের সবাইকে মাস্ক পড়তে হবে, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে, সবাইকে টিকা নিতে হবে। আমাদের টিকার কোনো ঘাটতি নেই। ইতোমধ্যে সোয়া ১৪ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। গতকাল শনিবার মানিকগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ৫ বেডের ডায়ালাইসিস ও সিটি স্ক্যান মেশিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ১ কোটি ২০ লাখ শিক্ষার্থীর মধ্যে আমরা ৭০ লাখ শিক্ষার্থীকে টিকা দিয়েছি। আশা করা যায়, এ মাসের মধ্যে সকল শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া যাবে। টিকার কোনো অভাব হবে না। যারা এখনো টিকা নেননি তারা সকলেই টিকা নিয়ে নেবেন। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে এটা ভালো লক্ষণ না। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এক সমীক্ষায় দেখা গেছে আক্রান্ত ব্যক্তিদের শতকরা একজনের আইসিইউ প্রয়োজন হয়। যে হারে করোনা বাড়ছে তাতে হাসপাতালে আইসিইউ বেডের সঙ্কট দেখা দেবে।

বাণিজ্যমেলার সমালোচনা করে তিনি বলেন, বাণিজ্য মেলাসহ অনেক স্থানেই যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। এটা খুবই উদ্বেগজনক। নিজের জন্য, দেশের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। মাস্ক পড়ার কোনো বিকল্প নেই। মাস্ক পড়তে হবে, যাতে আমরা সংক্রমিত না হই। সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে আমাদের আরও সচেতন হতে হবে। সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও করোনা দ্রæত সংক্রমিত হচ্ছে। গতকাল একদিনে ৪ হাজার ৪০০ জন সংক্রমিত হয়েছেন। এ হিসাবে সংক্রমণের হার প্রায় ১৩ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। প্রতিদিন ৩ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে, যোগ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আহমেদুল কবির, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আরশাদ উল্লাহ, সিভিল সার্জন ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল ডা. জাকির হোসেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন