বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

জাতীয় নির্বাচনে ‘ব্লক চেইন’ পদ্ধতি চালু করুন - সংবাদ সম্মেলনে জাকের পার্টি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:৫২ পিএম | আপডেট : ৬:৫৭ পিএম, ২২ জানুয়ারি, ২০২২

সর্বাধিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে জাতীয় নির্বাচনকে বির্তকের উর্ধ্বে রাখতে হবে। অবাধ, নিরপেক্ষ সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে আগামী নির্বাচনে ব্লক চেইন টেকনোলজির মাধ্যমে ভোট গ্রহণের উদ্যোগ নিতে হবে। ব্লক চেইন (ব্লকের তৈরি শিকল) প্রধানত লেনদেনের প্রযুক্ত। এমন একটি প্রযুক্তি যেখানে চাইলেই লেনদেনে গড়মিল তৈরি করা সম্ভব না। ইভিএমের আধুনিক সংস্করণ হচ্ছে ব্লক চেইন পদ্ধতি। আজ শনিবার রাজধানীর বনানীতে জাকের পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের চেয়ারম্যান মোস্তফা আমীর ফয়সল এসব কথা বলেন। ব্লক চেইনের প্রসঙ্গে লিখিত বক্তব্যে আমীর ফয়সল উল্লেখ করেন, ভোটার ডাটা ব্লক চেইনের মাধ্যমে স্টোর করা এবং ভোটের ডাটাবেজ দেশের সকল নাগরিকদের জন্য উন্মুক্ত করার আহ্বান জানাচ্ছি। তার দাবি, ব্লক চেইন পদ্ধতি নন হ্যাকেবল, বাকি সব পদ্ধতি হ্যাকিং হতে পারে।

গত ডিসেম্বরে জাকের পার্টি আয়োজিত বিভাগীয় পর্যায়ে সমাবেশ ও প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংলাপের প্রসঙ্গে জানাতে সংবাদ সম্মেলন করেন মোস্তফা আমীর ফয়সল। জাকের পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘ব্লক চেইনের মতো সর্বাধুনিক প্রযুক্তির বাস্তবায়ন ও ই-ভোটিংয়ের মাধ্যমে ঘরে বসে ভোট প্রদানের প্রস্তাব আমরা প্রেসিডেন্টের কাছে আনুষ্ঠানিক আলোচনায় পেশ করেছি। এ প্রস্তাবনায় প্রেসিডেন্ট সন্তোষ প্রকাশ করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মোস্তফা আমীর বলেন, ‘ব্লক চেইন ছাড়া কোনও পদ্ধতি নেই, যেটা হ্যাক করা যায় না। এরচেয়ে অনেক গুণ বেশি আন হ্যাকেবল প্রযুক্তি রয়েছে, যার মাধ্যমে ভোটকে বিতর্কমুক্ত রাখতে পারি সর্বজন গ্রহণযোগ্য রাখতে পারি।’ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাকের পার্টির কাদের সঙ্গে নির্বাচন করবে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা সময়ে বলা যাবে।’ সংবাদ সম্মেলনে জাকের পার্টির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ড. সায়েম আমীর ফয়সল দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব শামীম হায়দারসহ বিভিন্ন সারির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মোস্তফা আমীর ফয়সল বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন আইনে হচ্ছে, যা আশাব্যঞ্জক। কিন্তু আইনের ধারা উপধারাগুলো কী হবে, সম্ভব হলে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সংলাপে অংশগ্রহণকারী স্বাধীনতার স্বপক্ষের রাজনৈতিক দলের কাছে পাঠানো হোক। এসময় তিনি উল্লেখ করেন, জাকের পার্টিসহ নিবন্ধিত দলগুলো তাদের মতামত লিখিতভাবে সরকারকে অবহিত করতে পারেন। এতে করে স্বাধীনতার স্বপক্ষের দলগুলো আশ্বস্ত থাকবে। ইভিএম প্রসঙ্গে জাকের পার্টির শীর্ষনেতা বলেন, ‘এভিএম প্রশ্নবিদ্ধ প্রক্রিয়া। এটার স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন আছে। এখনও সকলের আস্থা অর্জন হয়নি।’

তিনি সুষম বন্টন নিশ্চিত করার স্বার্থে অর্থনৈতিক অঙ্গরাজ্য প্রতিষ্ঠা করতে প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা গঠনের দাবি জানান। এছাড়া, পেনশন ফান্ড গঠন এবং বিপুল সংখ্যক যুবকদের বিকারত্ব দূরীকরণের স্টার্ট আপ ইকুইটি ফান্ড গঠন করতে হবে। তিনি জানান, বর্তমান সরকারের অধীনে যে আঙ্গিকেই নির্বাচন হোক তাতে জাকের পার্টি অংশগ্রহণ করবে। পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় সরকারসহ সকল বিরোধী দলের উচিৎ দেশের উন্নয়নের স্বার্থে তাতে সমর্থন দেয়া। মোস্তফা আমীর ফয়সল বলেন, দেশের স্থিতিশীলতা বিনষ্টের লক্ষ্যে দেশে ও বিদেশে ষড়যন্ত্র চালানো হচ্ছে। এ ব্যাপারে সবাইকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Shammi al halim ২২ জানুয়ারি, ২০২২, ৯:৩৩ পিএম says : 0
খুবই সুন্দর প্রস্তাব। তাহলে নির্বাচনে পেশী শক্তির ব্যবহার কমবে। এবং জনপ্রতিনিধিদের জনগণের নিকট ফিরে আসতে হবে।
Total Reply(0)
MEHEDI HASAN RIMON ২৩ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:২৪ পিএম says : 0
বর্তমান সময় এ ভোট কেন্দ্রে মানুষের উপর যে,সম-সাময়িক বিষয় জড়িত যেমন: মারামারি,কেন্দ্র দখল,আহত ,নিহতের ঘটনা সহ নানাবিধ সমস্যার সমাধান ই ভোটিং সিস্টেম এর মাধ্যমে সমাধান সম্ভব। মানুষ নির্বিঘ্নে ঘরে বসে ভোট দিতে পারবে এবং ভোটার দেড় ভোটে দানের যে অনাগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে তার অবসান ও সম্ভব বলে মনে হচ্ছে। দেশের কল্যাণ এ জাকের পার্টির এ ধরণের চিন্তাধারাকে স্বাগত জানাই এবং শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি। ভোটাধিকার রক্ষায় জাকের পার্টিকে এ ধরণের প্রস্তাব ১ম উত্থাপন করার জন্য ধন্যবাদ
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন