ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

মহানগর

ডিসিসির ব্যানার ফেস্টুন অপসারণে হাইকোর্টের নির্দেশ

প্রকাশের সময় : ৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন রাস্তা, ফুটপাত, সড়কদ্বীপ, রোড মিডিয়ানে অননুমোদিত ব্যানার-ফেস্টুন তাৎক্ষণিকভাবে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। গতকাল বুধবার বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি মো. খুরশীদ আলম সরকারের সমন্বয়ে বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকায় অননুমোদিত বিভিন্ন প্রকার বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, গেইট, তোরণ, দেয়াল লিখন ইত্যাদি অপসারণে করপোরেশনের কার্যক্রম অব্যাহত রাখারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আদালতে সিটি করপোরেশনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. শাহজাহান। রিটকারী সংগঠনে পক্ষে মিনহাজুল ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. খুরশিদুল আলম। এর আগে আদালতের নির্দেশে গত ২২ আগস্ট ডিসিসি দক্ষিণ ও উত্তর হাইকোর্টে ব্যানার-ফেস্টুন অপসারণের অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করে।
ডিসিসি দক্ষিণের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত এক বছরে বিভিন্ন রাস্তা, ফুটপাত, সড়ক দ্বীপ, রোড মিডিয়ান ইত্যাদি হতে প্রায় ৪৪ হাজার ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার অপসারণ করা হয়েছে। ঢাকা মহানগরীকে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও বাসযোগ্য রাখার লক্ষ্যে এই অপসারণ কার্যক্রম বর্তমানে চলমান রয়েছে। ডিসিসি উত্তর এর পক্ষে দেয়া প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উক্ত সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকায় অননুমোদিত বিভিন্ন প্রকার বিলবোর্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন, গেইট, তোরণ, দেয়াল লিখন ইত্যাদি অপসারণে করপোরেশনের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে এই অপসারণ কার্যক্রম ৯০ ভাগ বাস্তবায়ন হয়েছে। এছাড়া করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাকে এই অপসারণ কার্যক্রম বাস্তবায়নে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
এর আগে পরিবেশ আইনবিদ সমিতির বেলার এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১২ সালের ১৮ মার্চ রাজধানীতে অননুমোদিত সকল পোস্টার, ব্যানার ও তোরণ ২২ আগস্টের মধ্যে অপসারণ করে তার প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে দেয়াল লিখনও মুছে ফেলতে বলা হয়। হাইকোর্টের ওই নির্দেশ মোতাবেক হলফনামা আকারে এই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন