রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

যশোর ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ১২:০৬ এএম

যশোরের চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইরুফা সুলতানার হস্তক্ষেপে শ্যামলী আক্তার (১৩) নামে সপ্তম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বাল্য বিয়ে বন্ধ হয়েছে। সে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার পাঁচবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা। গত রোববার রাতে চৌগাছা উপজেলার বুন্দলীতলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। জানা যায়, মেয়েটি চৌগাছা উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ে। তার অমতে মেয়েটির পিতা-মাতা তার নানা চৌগাছা উপজেলার বুন্দলীতলা গ্রামের বাবুল মুন্সির বাড়িতে নিয়ে এসে বিয়ে দেয়ার আয়োজন করেছিলেন। মহেশপুর উপজেলার’ই যাদবপুর গ্রামের একটি ছেলের সাথে তাকে বিয়ে দেয়া হচ্ছিল। স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানা ওই গ্রামের ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমানকে নির্দেশ দেন বিয়েটি বন্ধ করার জন্য। ইউএনওর নির্দেশ পেয়ে ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান মেয়েটির নানার বাড়ি গিয়ে বিষয়টি বলে বিয়ে বন্ধ করেন।
উপজেলা নারায়ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হাবিবুর রহমান জানান, ইউএনওর নির্দেশ পেয়ে আমি ওই বাড়িতে যেয়ে দেখি রান্না-বান্নার আয়োজন চলছে। বরপক্ষের লোকজনও সেখানে উপস্থিত আছেন। আমি তাদেরকে বুঝাই যে, এটি বাল্য বিয়ে। এই বিয়ে দেয়া আইনত অপরাধ। ইউএনওর নির্দেশ পেয়ে আমি এসেছি। পরে উভয়পক্ষ তাদের ভুল বুঝতে পেরে বিয়ে বন্ধ করে দেন এবং বরপক্ষ নিজেদের বাড়ি চলে যায়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানা জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্যকে দিয়ে বাল্য বিয়েটি বন্ধ করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps