ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

দৌলতপুরে সংসদ সদস্যের বাড়িতে বোমা হামলা মামলার তদন্ত কাজ ৬ বছরেও শেষ হয়নি

মামলা নিয়ে অনিশ্চয়তায় পরিবার

প্রকাশের সময় : ১৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

দৌলতপুর উপজেলা সংবাদাতা : আজ ১৩ নভেম্বর। কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের বর্তমান সরকারের আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দীন আহমেদের বাড়িতে বোমা হামলার ৬ষ্ঠ বার্ষিকী। ২০১০ সালের এই দিনে চালানো বোমা হামলায় সংসদ সদস্য অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান। তবে এ বোমা হামলায় নিহত হন এক নিরীহ স্কুল শিক্ষক ও বোমা হামলাকারী দু’জন। নির্মম এ হত্যাকা-ের ৬ বছর পার হলেও মামলার তদন্ত কাজ শেষ না হওয়ায় মামলার ভবিষ্যৎ নিয়ে যেমন সংশয় প্রকাশ করেছেন, তেমনি অনিশ্চয়তার মধ্যেও রয়েছেন মামলার বাদী এবং বোমা হামলার শিকার এমপি পরিবারসহ নিহত পরিবারের লোকজন।

২০১০ সালের ১৩ নভেম্বর রাত সোয়া ৮টার দিকে তৎকালীন সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দীন আহমেদের তারাগুনিয়াস্থ বাসভবনে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দের সাথে সাংসদের বৈঠক চলাকালে সেখানে দূরনিয়ন্ত্রিত যন্ত্রের সাহায্যে একটি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে বোমা বহনকারী আহাদুল ও তার সহযোগী ছিদ্দিক এবং সংসদ সদস্যের কাছে কাজে আসা তারাগুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসমত আলী নিহত হন। আহত হন সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দিন আহমেদ ও অপর এক শিক্ষক আবুল হামজা। ঘটনার রাতেই সাংসদ পুত্র এডভোকেট এজাজ আহমেদ মামুন বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেন। ২০১১ সালের ১৯ এপ্রিল ৭ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে একটি মামলার চার্জশীট দাখিল করা হয়। কিন্তু রহস্যজনক কারণে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়া আসামীদের বাদ দিয়ে চার্জশীট দাখিল হওয়ায় উচ্চ আদালতে কোয়াশমেন্ট করেছেন মামলার বাদী এড. এজাজ আহমেদ মামুন। এদিকে হত্যাকা-ের সাথে জড়িত মামলার প্রধান আসামী জাহিদুল ইসলাম জাহিদসহ অন্য সব আসামীরা জামিনে ছাড়া পেয়ে এলাকায় বহাল-তবিয়তে থাকায় বোমা হামলার শিকার এমপি পরিবারের লোকজন রয়েছেন শংকার মধ্যে।
দৌলতপুর আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ও তৎকালীন সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দিন আহমেদকে হত্যার উদ্দেশে ন্যক্কারজনকভাবে চালানো এ বোমা হামলায় যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার দাবি দৌলতপুরবাসীর।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন