সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পরিবহন শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

৭ অ্যাম্বুলেন্স চালক আটক

দিনাজপুর অফিস : | প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০২২, ১২:৩০ এএম

সিএনজি চালক কর্তৃক মোটর শ্রমিককে মারধোর এবং সরকারি কাজে বাধা ছাড়াও রোগী ও লাশ নিয়ে টানাটানিসহ বিভিন্ন হয়রানীমূলক মামলায় ৭ অ্যাম্বুলেন্স চালককে আটকের ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বাস টার্মিনালসহ শহরের প্রবেশমুখগুলোতে পরিবহন শ্রমিকেরা আকষ্মিকভাবে অবরোধ সৃষ্টি করে। ফলে দিনাজপুর শহর থেকে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা থেকে দিনাজপুরে প্রবেশের ৪টি মুখে শত শত বাস, ট্রাক, মিনিবাস আটকা পড়ে। বালুয়াডাঙ্গাসহ কয়েকটি এলাকায় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা লাঠি হাতে প্রতিরোধ গড়ে তোলায় মানুষের মনে ভয়ের সঞ্চার হয়। ঈদে ঘরমুখী মানুষের পাশাপাশি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সেমিষ্টার পরীক্ষায় অনেক ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহন করতে পারেনি।

পুলিশ ও শ্রমিকের বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে, গত বুধবার বিকেল ৫ টার দিকে দিনাজপুরের বালুয়াডাঙ্গা মোড়ে সিএনজি চালকের হাতে মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা লাঞ্চিত হয়। এ সময় দু’পক্ষের সংঘর্ষ হয়। একই সময়ে দিনাজপুর এম আবদুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রোগী ও লাশ নিয়ে সরকারি এম্বুলেন্স ও বেসরকারি অ্যাম্বুলেন্স শ্রমিকদের মধ্যে বিবাদ সৃষ্টি হয়। এই ঘটনার পর কোতয়ালী পুলিশ ৪ পরিবহন শ্রমিককে আটক করে। এর প্রতিবাদে রাত ১২টার দিকে মেডিক্যাল কলেজের সামনে পরিবহন শ্রমিকেরা দিনাজপুর ফুলবাড়ী সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ একপর্যায়ে লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিলে যান চলাচাল স্বাভাবিক হয়। এ সময় আরো ৩ জনকে আটক করা হয়।
দুপুরে দিনাজপুর সদর থানার এএসপি (সার্কেল) সুজন সরকার তার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, পুলিশ নির্দিষ্ট মামলায় ৭জনকে আটক করেছে এবং তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরদিকে বালুয়াডাঙ্গা মোড়ে এক বাস চালককে সিএনজি চালক কর্তৃক মারধোরের পাশাপাশি স্থানীয় শ্রমিক নেতা ডাবলুকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। অপরদিকে দিনাজপুর মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, অবৈধভাবে চলা সিএনজি চালকের হাতে মোটর শ্রমিক ও শ্রমিক নেতা আহত হলে মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু কাউকে আটক না করে উল্টো কোন পূর্ব ঘটনা ছাড়াই ৭ অ্যাম্বুল্যান্স চালককে আটকের অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, মোটর শ্রমিকের উপর হামলাকারীদের শাস্তি দাবি ছাড়াও আটক ৭ চালকের নিঃশর্ত মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষনা দেন।
পরে দুপুর আড়াইটার দিকে দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে মোটর পরিবহন মালিক গ্রুপ, মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের সাথে বৈঠকে বসেন পুলিশ প্রশাসন। আটক ৭ অ্যাম্বুল্যান্স চালককে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অতএব তাদের মুক্তির কোন সুযোগ নেই। তাদের বিজ্ঞ আদালত থেকে জামিনে মুক্তি নেয়ার পর মামলায় সহযোগিতা করার পাশাপাশি বালুয়াডাঙ্গা শ্রমিক নেতা ডাবলুর উপর হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলা তদন্ত সাপেক্ষে দোষিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেয়া হয়। উভয়পক্ষ পবিত্র রমজান মাস ও ঈদকে কেন্দ্র সাধারণ মানুুষের ভোগান্তি দূর করতে অবরোধ প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেন। বিকেল পৌনে ৪ টায় সকল রুটে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে যায়। বৈঠকে পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন, কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাফ্ফর হোসেন, মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারি ফজলে রাব্বীসহ অন্য কর্মকর্তা ও নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps