ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ধামরাইয়ে জুয়েলার্সে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

৬০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি বর্ষণ আহত-২০

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা : ঢাকার ধামরাই পৌরসভা বাজারে গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রাজমনি নামের একটি জুয়েলারি দোকানে মালিককে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মুখে জিম্মি ও আটক করে প্রায় ৬০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করেছে ডাকাতরা ।
পালিয়ে যাওয়ার সময় তারা ১৫/২০ককটেল বিস্ফোরণ ও বৃষ্টির মত গুলি করে দ্রত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।
এ সময় ককটেল ও গুলির শব্দে ধামরাই বাজারের সব দোকান-পাট বন্ধ হয়ে যায়। এমনকি রিকশাচালক রিকশা রেখে জীবন বাঁচানোর জন্য দৌঁড়াতে থাকে। ফলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো বাজার এলাকায়।
ঘটনার সময় ডাকাতদের ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলিতে ধামরাই পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি স্বপনসহ কমপক্ষে ২০ জন পথচারী আহত হয়েছে। তাদের ধামরাই সরকারি হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।
পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ, র‌্যাব এবং ডিবি পুলিশের সদস্যরা পৌঁছলে ধামরাই বাজারের মালিকরা দোকান থেকে বের হয়ে আসেন। এ সময় ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ মালেক।
রাজমনি জুয়েলার্স মালিক রিপন পাল জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে একদল ডাকাত দোকানে ঢুকে প্রথমে আমাকে ও আমার ভাই সুমন পালকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে প্রায় ৬০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় আমরা চিৎকার দিলে ডাকাতরা রাস্তার মধ্যে ১৫/২০টি ককটেল ও বৃষ্টির মতো গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। ডাকাতদের ককটেল ও গুলি শব্দে এলোপাথাড়ি ছুটাছুটি করে অনেক পথচারী আহত হয়েছেন।
রাজমনি জুয়েলার্সের পাশে অনুপা মিষ্টির দোকানের মালিক প্রাণ গোপাল পাল জানান, ডাকাতরা লুট করে পালিয়ে যাওয়ার সময় ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি করে। এ সময় দোকানের ভেতর ককটটেল বিস্ফোরণ ঘটালে কর্মচারী আদাদুল ও এক মহিলা ক্রেতা আহত হন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন