শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

বরিশালে সচেতন নাগরিক কমিটির ‘প্যাকটা প্রকল্প’র অবহিতকরণ সভা

বরিশাল ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০২২, ৫:১৩ পিএম

সচেতন নাগরিক কমিটি বরিশাল-এর আয়োজনে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ-টিআইবি’র ৫ বছর মেয়াদী ‘পার্টিসিপেটরি অ্যাকশন অ্যাগেইনস্ট করাপশন; টুওয়ার্ডস ট্রান্সপারেন্সি অ্যান্ড অ্যাকাউন্টেবিলিটি-প্যাকটা প্রকল্প’র অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার ও অতিরিক্ত সচিব মো: আমিন উল আহসান।

সনাক সদস্য সাইফুর রহমান মিরণ এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে সচেতন নাগরিক কমিটি বরিশাল এর সভাপতি প্রফেসর শাহ্ সাজেদা বলেন, প্যাকটা তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর কমিউনিটি ভিত্তিক একটি প্রকল্প। যা কমিউনিটির জনগোষ্ঠীকে সম্পৃক্ত করে সেবাদাতা ও সেবাগ্রহীতাদের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপনের মাধ্যমে কার্যকর ও টেকসই দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনকে এগিয়ে নেবে।
দাতা সংস্থার অর্থায়নে প্রকল্পটি বাংলাদেশের ৪৫টি সনাক এলাকায় বাস্তবায়িত হবে। টিআইবি একটি জন-অংশগ্রহণমূলক আন্দোলন পরিচালনা করে আসছে। প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতির বিরুদ্ধে বারবার তার শুন্য সহিষ্ণু অবস্থান ঘোষনা করেছেন। প্যাকটা প্রকল্পটি সরকারের বাংলাদেশের প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ২০২১-২০৪১, অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা ২০২১-২০২৫ এবং টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি)’র সাথে সংগতিপূর্ন। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, ভূমি, পরিবেশ এবং নির্মাণ খাতসমূহ এ প্রকল্পের কাজের আওতাভুক্ত হবে।
টিআইবি’র সিভিক এনগেজমেন্ট বিভাগের কো অর্ডিনেটর কাজী শফিকুর রহমান তার উপস্থাপনায় প্যাকটা প্রকল্পের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, কার্যক্রম, আওতাভুক্ত খাতসমূহ, প্রকল্পের অংশীজন, বাজেট ও বাস্তবায়ন পদ্ধতি সর্ম্পকে বিস্তারিত আলোচনা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার মো: আমিন উল আহসান বলেন- দুর্নীতি সমাজের সকল স্তরকে ক্ষতিগ্রস্ত করে, তাই সকলে মিলেই এটিকে প্রতিহত করতে হবে। স্ব-স্ব ধর্মীয় অনুশাসন মেনে পরিবার থেকেই দুর্নীতিবিরোধী চর্চা চালিয়ে যাবার ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি। পাশাপাশি সকলকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে একতাবদ্ধ হবার তাগিদ দিয়ে শিক্ষার্থীদেরকে ভাল মানুষ হওয়ার প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার অঅহবান জানান বিভাগীয় কমিশনার। তিনি টিআইবি’র ‘প্যাকটা প্রকল্প’কে স্বাগত জানান।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার সকল স্তরে স্বচ্ছ, কার্যকর ও দায়বদ্ধ প্রতিষ্ঠানের বিকাশ, ন্যায়বিচার ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার জন্য সকলকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএমপি’র ভারপ্রাপ্ত কমিশনার অতিরিক্ত ডিঅইজি প্রলয় চিসিম বলেন- সেবা প্রদান করার ক্ষেত্রে দুটি বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে, অ্যাকাউন্টেবিলিটি ও ট্রান্সপারেন্সি। সবাই যেন জানতে পারে আমরা কি সেবা প্রদান করছি, কিভাবে সেবা প্রদান করছি।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক মো: আবদুল হালিম, স্বাস্থ্য বিভাগীয় উপ-পরিচালক ডা: শ্যাামল কৃষ্ণ মন্ডল, এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের আঞ্চলিক উপ-পরিচালক মো: আনোয়ার হোসেন উপস্থিত ছিলেন । ১৫-৬-২০২২.

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন