সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

হাতুড়ির টুং টাং শব্দে মুখরিত নাটোরের কামারপাড়া

নাটোর জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০২২, ১২:০০ এএম

ঈদ উল আযহাকে সামনে রেখে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে নাটোরের বিভিন্ন কামারপাড়া । হাতুড়ি দিয়ে পোড়ানো লোহা পেটানোর টুং টাং শব্দে মুখরিত। সকাল থেকে রাত অবধি চলে এই হাতুড়ি পেটানোর কাজ। লোহা আর ইস্পাত গলিয়ে চলে দা, বটি, চাকু তৈরির কাজ।

নাটোরের বড় হরিশপুরে কামারপাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, কেউ ভারি হাতুড়ি দিয়ে পেটাচ্ছেন আগুনরঙা লোহার খণ্ড। কেউবা হাঁফর টানছেন। কেউ আবার কয়লার আগুনে বাতাস দিচ্ছেন। কেউ আবার চাকু, ছুরি, বটিতে ধার দিচ্ছেন। তবে বড়হরিশপুরের কামারপাড়ার কারিগররা জানান, তাদের পরিশ্রমের তুলনায় মজুরি অনেক কম। সারাদিন আগুনের পাশে বসে থাকতে হয়। ফলে বিভিন্ন ধরনের রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। তবে সরকারি পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে নাটোরে কমে যাচ্ছে কামারদের সংখ্যা। বাধ্য হয়ে কেউ কেউ পৈত্রিক পেশা পরিবর্তন করছেন।

নাটোর সদরের শংকরভাগ হাটের কামার যুগল বলেন, সারা বছর আমাদের মোটামুটি বিক্রি হয়। তবে এই সময় বিক্রি হয় সবচেয়ে বেশি। উৎপাদন ও প্রতিযোগিতা বেড়ে যাওয়ায় লাভ আগের চেয়ে কম। নাটোর হেমাঙ্গীনি ব্রীজের পাশে কামার মিঠু জানান, বর্তমানে লোহা ও কয়লার দাম অনেক বেড়েছে। সে তুলনায় কামার শিল্পের উৎপাদিত পণ্যের দাম বাড়েনি। এছাড়া আধুনিকতার ছোঁয়ায় এসব পণ্য তৈরির বেশকিছু প্রযুক্তি নির্ভর হওয়ায় কামার সম্প্রদায় আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়ছে। তাদের প্রত্যাশা সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এ শিল্প আবারও ঘুরে দাঁড়াবে। চাকু, বটি আর চাপড় কিনতে আসা মাসুদ, জাহাঙ্গীর জানান, অন্য বছরের চেয়ে এবার ছুরি, চাকু, বটির দাম বেশি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন