শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

স্বেচ্ছাশ্রমে শিবসার ভাঙা বাঁধ মেরামত

৩৩ কিলোমিটার এখনো ঝুঁকিতে

খুলনা ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

বৈরী আবহাওয়া ও শিবসা নদীর অস্বাভাবিক জোয়ারের পানিতে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার সোলাদানা এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ স্বেচ্ছাশ্রমে সংস্কার করেছে এলাকাবাসী। গতকাল সোমবার উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধায়নে ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে পাউবোর সরবরাহকৃত সরঞ্জামাদি দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধটির প্রাথমিক সংস্কার করেছে। এদিকে জোয়ারের পানির চাপে উপজেলার মাহমুদকাটি ও রামনাথপুরের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হলেও এখন পর্যন্ত সেখানকার বাঁধ মেরামতে কোন প্রকার ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

এর আগে গত রোববার দুপুরে বৈরী আবহাওয়ায় জোয়ারের প্রবল পানির চাপে শিবসার সোলাদানা ইউনিয়নের পাউবোর ২৩নং পোল্ডারের বয়ারঝাঁপা এলাকার ভাঙ্গাহাড়িয়া নামক স্থানে প্রায় ৩০ ফুট ওয়াপদার বাঁধ ভেঙে ও কপোতাক্ষের মাহমুদকাটি ও রামনাথপুরে উপচে পড়া পানিতে লোকালয়ে ঢুকে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। এসময় ভেসে যায় ছোট-বড় বহু মৎস্য ঘের। পানির তোড়ে অনেক বসতঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সোলাদানা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান গাজী জানান, গত রোববার শিবসা নদীর তীরবর্তী তার ইউনিয়নের বয়ারঝাঁপার ভাঙ্গাহাড়িয়া নামক স্থানে ওয়াপদার দূর্বল বেড়িবাঁধটি ভেঙে গিয়ে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। গতকাল সকাল থেকে উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধায়নে তার নেতৃত্বে স্থানীয় এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধটির প্রাথমিকভাবে মেরামত করেছেন। পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, থানা অফিসার ইনচার্জসহ পাউবো কর্তৃপক্ষ ওই এলাকা পরিদর্শন করেছেন বলেও জানান তিনি। হরিঢালী ইউনিয়নের পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলি মো. রাজু হাওলাদার জানান, পাইকগাছা উপজেলার ৬টি পোল্ডারে মোট ২৫০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে। তার মধ্যে মোট ৩৩ কিলোমিটার বাঁধ অতিরিক্ত ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। ওয়াপদার বাঁধ ভেঙে যাওয়ার খবরে পেয়ে তিনিসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন