বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বিরামপুরে লিচু বাগান থেকে কওমি মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

বিরামপুর (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ আগস্ট, ২০২২, ১০:৫৯ পিএম

আজ (মঙ্গলবার) দিনাজপুর জেলার বিরামপুর পৌর শহরের দোশরা পলাশবাড়ী লিচু বাগান থেকে ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়ন এর দেবীপুর গ্রামের মিন্টু প্রামাণিকের পুত্র মাহবুবুল ইসলাম সাকিব (১৫) পার্বতীপুর উপজেলার তানজিমুল উলুম আব্দুল বারী কওমি মাদ্রাসা হেফজ কুরআনের ছাত্র লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মৃত মাহবুবুল ইসলাম সাকিব এর দাদা ছামেস প্রামানিক পিতা শরফুদ্দিন প্রামানিক জানান, গতকাল সোমবার সকাল দশটার সময় মাহবুবুল ইসলাম সাকিব বাড়ি থেকে নতুন পায়জামা পাঞ্জাবি সহ মাদ্রাসার বেতন বাবদ ২ হাজার টাকা নিয়ে মাদ্রাসায় আসে। আর তিনি আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জানতে পারেন তার নাতিকে বিরামপুরে কে বা কারা হত্যা করে একটি লিচু বাগানে ফেলে যায়। তিন নম্বর ওয়ার্ড দেবীপুর শিবনগর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য সাহিল সর্দার জানান, শাকিব হেফজ কুরআনের অষ্টম পারার ছাত্র তার বাবা-মা ঢাকার একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতো। বাবা মা বাড়িতে না থাকায় সাকিব ও তার ছোট ভাই সুফিয়ান দাদার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করত।


সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (বিরামপুর -নবাবগঞ্জ) সার্কেল এএসপি ওহেদুন্নবী, বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) নওয়াবুর রহমান ও এসআই এরশাদ মিয়াসহ পুলিশের একটি টিন ও দিনাজপুর পিবিআই করত। সিআইডি এর একটি টিম ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও থানা সূত্রে জানা যায়।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) নওয়াবুর রহমান জানান, বিকালে পৌর শহরের দোশরা পলাশবাড়ী মৃত খাজের উদ্দিন প্রফেসরের লিচু বাগানে লাশটি পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন মোবাইল ফোনে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে বিরামপুর থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল গিয়ে তার মানিব্যাগে থাকা জন্ম নিবন্ধন ও কাগজে লেখা মোবাইল নম্বরের সুত্রধরে নিহতের নানার মাধ্যমে তার পরিচয় নিশ্চিত হয়।

নিহতের পরনে লুঙ্গি, গায়ে গেঞ্জি, ১টি মানিব্যাগ ও ১টি জন্ম নিবন্ধন কার্ড পাওয়া গেছে। তার মাথায় থেতলানো আঘাতের চিহ্ন ও গলায় গামছা পেচানো ছিল। তবে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে এটা একটি পরিকল্পিত হত্যা। কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা এই মুর্হুতে বলা যাচ্ছে না।

এ ব্যাপারে সার্কেল সিনিয়ার সহকারী পুলিশ সুপার এ কে এম ওহিদুন্নবী জানান পোস্ট মডামের পর হত্যার আসল রহস্য জানা যাবে। হত্যার রহস্য উদঘাটনের জন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক টিম মাঠে কাজ কাজ করছেন বলে ও জানান। মোহাম্মদ আবু তাহের

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন