শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রাবিতে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র সংঘর্ষ : ২ শিক্ষার্থী আহত

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১০:২৩ পিএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) চলমান আন্তঃবিভাগ ফুটবল টুর্নামেন্ট খেলাকে কেন্দ্র করে ফের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ২ জন শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে । বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষার্থীরা হলো- আব্দুর রাকিব ও বায়েজিদ। তারা ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৩য় ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেল ৪টায় ইসলামিক স্টাডিজ এবং ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কোন দল গোল না পেলে খেলা ট্রাইবেকারে গড়ায়। ট্রাইবেকারে ফার্সি বিভাগ ৫টি শর্টের মধ্যে ৪ টি গোল দেয় এর বিপরীতে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ ৪ টির মধ্যে ৩ গোল করে। তবে ৫ম শর্টটি গোলবারে লেগে উপরে উঠে যায় এতে ফার্সি বিভাগের গোলকিপার ও খেলোয়াড়েরা উদযাপন করতে থাকে। পরে বলটি মাটিতে পড়ে পুনরায় গোলবারের দিকে আসতে লাগলে ওই বিভাগের অন্য খেলোয়াড় বলটি শর্ট মেরে বাহিরে পাঠিয়ে দেয়। এ নিয়ে শুরু হয় বাকবিতন্ডা। পরে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ৪-৫ জন শিক্ষার্থী স্টেডিয়ামের মূল ফটকে আসার চেষ্টা করলে ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থীরা তাদের উপর হামলা করে। এতে ২ জন আহত হয়। আহতদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আব্দুর রাকিব বলেন, খেলা নিয়ে ঝামেলা শুরু হলে আমরা ৪-৫ জন স্টেডিয়ামের মূল ফটকে খেলোয়াড়দের রিসিভ করতে যাবার চেষ্টা করলে তোরা এখানে কেন? এটা বলে ফার্সি বিভাগের শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সোহরাওয়ার্দী হল সহসভাপতি শাখাওয়াত হোসেন শাকিলের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন সাইকেল তালা দেয়ার চেন খুলে হামলা শুরু করে। এসময় আমার মাথা ও মুখে এলোপাথাড়ি আঘাত করতে থাকে। এতে আমি ও আমার আরেক ছোট ভাই বায়েজিদ মাটিতে পরে যায়। এসময় তারা উচ্চস্বরে বলতে থাকে ধ্রুব আর মারিস না। পরে আমার সহপাঠীরা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে নিয়ে আসে।

এবিষয়ে ফার্সি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ওসমান গণি বলেন, 'ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থীরাই আগে লাঠি-সোঁটা নিয়ে এসেছে। এরপর দু-পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হলে একপর্যায়ে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের একজন আরেকজনের দ্বারা আঘাত পেলে তারা আহত হয়।'

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. আসাবুল হক বলেন, আমি ছেলেটির সাথে কথা বলেছি। তার মাথায় ও মুখে আঘাতের নমুনা দেখেছি। তারা এখনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে খেলা নিয়ে যে ঝামেলা হয়েছে তা টুর্নামেন্ট কমিটি বরাবর অভিযোগ দিলে তারা ব্যবস্থা নিবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন