রোববার, ১৯ মে ২০২৪, ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১০ জিলক্বদ ১৪৪৫ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ইনশাল্লাহ আগামিতে মুসলমানরা বিশ্বের নেতৃত্ব দেবে--- পীরে ত্বরিকত আল্লামা গোলামুর রহমান আশরাফ শাহ(মা.জি.আ)

বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাস অবিলম্বে বাতিল করতে হবে।

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৩:১৭ পিএম

বেতাগী দরবারের সাজ্জাদানশীন পীরে ত্বরিকত আলহাজ্জ আল্লামা গোলামুর রহমান আশরাফ শাহ(মা.জি.আ) বলেছেন আগামিতে এমন একটি সময় আসবে মুসলমানরা বিশ্বের নেতৃত্ব দেবে।সেদিন আর বেশি দূরে নয়।যেহেতু একমাত্র ইসলাম হচ্ছে আল্লাহর মনোনীত ধর্ম,সেহেতু সারা বিশ্বে মুসলমানের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। বর্তমানে বিশ্বের শত কোটি মুসলমানরা নেতৃত্ব দিতে কারো দিকে থাকাতে হবেনা এমন সময় ঘনিয়ে আসছে।আল্লাহ রাসুল(স.),ছাহবায়ে কেরাম,অলিয়ে কেরামরা ইসলামের জন্য ধন সম্পদ দান করেছেন,নিজের শরিরের রক্ত জড়িয়েছেন,যুদ্ধ করেছেন এসবের উসিলায় মুসলমানদের কেউ ধাবিয়ে রাখতে পারবেনা।এমন একটি সময় আসবে যেদিন মুসলমানরা নেতৃত্ব দেবেন আর ইহুদী খ্রিষ্টানরা তাকিয়ে থাকবে।তিনি বলেন নাস্তিকতা বাংলাদেশে দিন দিন বৃদ্বি পাচ্ছে,তারা ইসলামকে কটুক্তি করছে,তারাও একদিন মুমের মত গলে যাবে।আযানের ধ্বনীর আওয়াজে সারা দেশে নাস্তিকরা পালিয়ে বেড়াবে।তিনি আরো বলেন ইসলাম বিরোধী সিলেবাসে প্রজন্মকে নাস্তিক বানানোর ষড়যন্ত্র রুখে দাঁড়ানো সকলের ঈমানী দায়িত্ব।তিনি বলেন ইসলাম বিরোধী বিতর্কিত শিক্ষা সিলেবাস অবিলম্বে বাতিল করতে হবে।আশরাফ শাহ বলেন,বাংলাদেশের মুসলমানের সন্তানদের ঈমান আকিদা ও দেশপ্রেম ধ্বংসের জন্য শিক্ষানীতি প্রণয়নের দায়িত্ব ইসলাম বিরোধী শক্তির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।মুসলমানরা সেটি মেনে নিতে পারেনা।তিনি (৩ফেব্রুয়ারি) শুক্রবার রাতে বেতাগী আঞ্জুমানে রহমানিয়া রাউজান হলদিয়া আমিরহাট শাখার অভিষেক অনুষ্টানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন।এয়াছিনশাহ পাবলিক কলেজের একে এম ফজলুল কবির চৌঃ হলরুমে আয়োজিত অনুষ্টানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি আলহাজ্জ ইদ্রিছ মিয়া চৌধুরী।নবাগত কমিটির অর্থ সম্পাদক আহছান হাবিব চৌধুরী(রায়হান)এর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রিয় যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এডভোকেট সৈয়্যদ রেজাউল করিম বাবর,মাওলানা বদরুদ্দীন,এম এ হাসেম কন্ট্রাক্টর,মুঃ বখতেয়ার সওদাগর,ডাক্তার মুঃ ইউছুফ,মোঃ হারুন,নবাগত সভাপতি মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন,সেক্রেটারী রবিউল হোসেন (রবি)প্রমুখ।পরে মিলাদ কিয়াম ও মোনাজাত অনুষ্টিত হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন