শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১১ শ্রাবন ১৪৩১, ১৯ মুহাররম ১৪৪৬ হিজরী

মহানগর

ক্যাম্পস আয়োজিত “ফ্রি মেডিকেলও চক্ষু ক্যাম্প”-এ স্বাস্থ্য সেবা পেল প্রায় ৩ হাজার সাধারণ মানুষ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৭:৪৫ পিএম

প্রায় তিন হাজার সুবিধা বঞ্চিত রোগীদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান, পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও ঔষধ সরবরাহ করেছে স্বেচ্ছাসেবী স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান কিডনি এওয়ারনেস মনিটরিং এন্ড প্রিভেনশন সোসাইটি (ক্যাম্পস)। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে ব্যতিক্রমধর্মী এ আয়োজনটিবিগত ১৮ বছর ধরে করে আসছে ক্যাম্পস।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৯ তম বছরে এসে ক্যাম্পস চলতি বছরেও টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর থানার হাতিবান্ধা গ্রামের তালিমঘর প্রাঙ্গণে ‘‘ফ্রি মেডিকেল ও চক্ষু ক্যাম্প’’ এর মাধ্যমে অসহায় রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে।

দেশের শীর্ষস্থানীয় কিডনি বিশেষজ্ঞ এবং ক্যাম্পস এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতিঅধ্যাপক ডাঃ এম এ সামাদ এর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী বিভিন্ন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে“ সবার জন্য কিডনি স্বাস্থ্য-সুরক্ষায় করণীয়”শীর্ষক একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনজনাব এড. জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের), সংসদ সদস্য, টাঙ্গাইল-০৮। ফ্রি মেডিকেল ও চক্ষু ক্যাম্প এর উদ্বোধন করেন জনাব জসীম উদ্দীন হায়দার, জেলা প্রশাসকও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, টাঙ্গাইল।

প্রয়াস-১৯ এর মোড়ক উন্মোচন করেন জনাব সরকার মোহাম্মদ কায়সার, পুলিশ সুপার, টাঙ্গাইল। বরেণ্য অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ মনছুরুল আলম (হীরা), সাধারণ সম্পাদক, টাঙ্গাইল জেলা সমিতি, ঢাকা ও অতিরিক্ত সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

আলোচনা সভায় কিডনি বিষয়ের উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ক্যাম্পস এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এবংআনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান ডা. এম এ সামাদ।

তিনি বলেন, এক সময় ছিল যখন কলেরা, কালাজ্বর, গুটি বসন্ত, প্লেগ, ম্যালেরিয়া ইত্যাদি সংক্রামক ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে বেশীর ভাগ মানুষের অকাল মৃত্যু হতো। গ্রামের পর গ্রাম উজাড় হয়ে যেত। বর্তমানে চিত্র বদলে গেছে।

এখন প্রতি বছর প্রায় পাঁচ কোটি মৃত্যুর মধ্যে চার কোটি মৃত্যু ঘটে অসংক্রামক ব্যাধিতে। আমাদের মত নি¤œ অথবা মধ্য আয়ের দেশে প্রায় ৭০ ভাগ মৃত্যু ঘটে এই অসংক্রামক রোগে। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, এক বছরে যত মৃত্যু হয় তার ৫০ ভাগের বেশি ক্ষেত্রে কোন না কোনভাবে কিডনি রোগ সম্পৃক্ত আছে।

তিনি আরো বলেন, আমরা জানি কোভিড-১৯ মহামারিতে যত মানুষ কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে তার চেয়ে বেশী লোক মারা গেছে হৃদরোগ, কিডনি বিকল, ক্যান্সার সহ অনেক চিকিৎসা যোগ্য অসংক্রামক ব্যাধিতে- লক ডাউন, যান বাহন ও সময়মত চিকিৎসক এর অভাবে।

সভায় প্রধান অতিথি এড. জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের) বলেন, এটি একটি মানবিক আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার। সমাজের প্রত্যেকেরক্যাম্পস এর মতো মানবিক কর্মকান্ডে নিজেদের সাধ্যমতো অবদান রাখা উচিত।

এছাড়াও আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রফেসর ডা. মো. আব্দুল হালিম, প্রিন্সিপাল কমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মো. আওলাদ হোসেন (সুমন), উপসচিব, তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়, মো. আমিমুল এহসান কবির, পরিচালক, শিক্ষা অডিট অধিদপ্তর মুহাম্মদ শরীফ (সুপন), সদস্য ক্যাম্পস, ফারজানা আলম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সখিপুর, টাঙ্গাইল, সখিপুর, টাঙ্গাইল অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন