ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

তেরখাদার দুই ইউপিতে পুনঃতফসিল দাবি

প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

খুলনা ব্যুরো : তেরখাদা উপজেলার সদর ও ছাগলাদহ ইউনিয়নে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র ছিনতাই, সন্ত্রাসী হামলা, হুমকি, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ প্রশাসনের নিষ্ক্রিয়তা এবং রিটার্নিং অফিসারের পক্ষপাতদুষ্ট আচরনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিএনপি।
বিএনপির নেতারা অভিযোগ করেছেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনী প্রক্রিয়ার শুরুতেই এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘৃণ্য ঘটনা প্রমাণ করে, এই সরকারের অধীনে ও বশংবদ নির্বাচনের কমিশনের মাধ্যমে এ দেশে কোন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজন সম্ভব নয়।
তারা অবিলম্বে পক্ষপাতদুষ্ট পুলিশ ও জনপ্রশাসন এবং নির্বাচনী কর্মপ্রক্রিয়ার সাথে সম্পৃক্ত কর্মকর্তা, যারা এহেন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়েছেন তাদের বদলী করে নিরপেক্ষ ও সাহসী কর্মকর্তাদেরকে দায়িত্ব দিয়ে নির্বাচন আয়োজনের এবং তেরখাদা সদর ও ছাগলাদহ ইউনিয়ন নির্বাচনের পুনঃতফসিল দাবি করেন।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে খুলনা জেলা বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের নেতারা এ দাবি জানান। গত ২২ ফেব্রæয়ারি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় তেরখাদা উপজেলায় বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে দলীয় মনোনয়নপত্র ছিনতাই, ছিড়ে ফেলা, উপজেলা বিএনপি সভাপতি চৌধুরী কওসার আলীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা, থানায় জিডি করতে গেলে না নিয়ে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের হুমকির মুখে ফিরিয়ে দেয়ার প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এ্যাড. গাজী আব্দুল বারী। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু।
তারা বলেন, অতীতে এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, পৌর সভা নির্বাচন কোনটিই সুষ্ঠু হয়নি। এবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে জেনেও বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তার কারণ বিএনপি দেশের জনগন ও বর্হিবিশ্বকে এই সরকারের প্রহসন, ক্ষমতালিপ্সা, গণতন্ত্রের লেবাসে এক দলীয় স্বৈরতান্ত্রিক আচরনকে আরো পরিস্কার করে ফুটিয়ে তুলতে চায়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফখরুল আলম, আমির এ্জাজ খান, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, আরিফুজ্জামান অপু, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, শফিকুল আলম তুহিন, আবু হোসেন বাবু, মোলা খায়রুল ইসলাম, মেজবাউল আলম, জি এম কামরুজ্জামান টুকু, আশরাফুল আলম নান্নু প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন