মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বাতিলকৃত ওমরা এজেন্সি নিয়ে আবারও মাঠে পাচারকারী চক্র

প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী থেকে : ওমরার নামে সউদী-আরবে লোক পাচারের দায়ে বাতিলকৃত লাইসেন্স নিয়ে আবারও মাঠে নেমেছে আল-আরাফাহ্ ওভারসিজ’র মালিক চক্র। সে তার হজ এজেন্সি আল-আরাফা ওভারসিজ’র নামে নরসিংদী জেলা শহরসহ সারা জেলায় প্যানাসাইন ঝুলিয়ে দিয়েছে। তবে এবার সে তার প্যানাসাইনে আল-আরাফা ওভারসিজ’র নাম উপরে দিয়ে নিচে তার ছেলের নামে করা হজ এজেন্সি সালমান অ্যাভিয়েশনের নাম বড় করে লিখে দিয়েছে। এছাড়া সে তার এজেন্সির দালালদের দিয়ে লোকজনকে তার এজেন্সির মাধ্যমে ওমরা করার জন্য প্ররোচনা দিচ্ছে। ওমরা লাইসেন্স বাতিল করার পরও মাওলানা জাকারিয়ার তৎপরতা নিয়ে নরসিংদীর জনগণের মধ্যে চলছে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড়। লোকজন প্রশ্ন করছে ওমরার নামে সউদী-আরবে লোক পাচার করে দেশের সুনাম বিনষ্ট করার পরও জাকারিয়া কোন খুঁটির জোরে আবার তার বাতিলকৃত এজেন্সি নিয়ে মাঠে নামতে পেরেছে।
জানা গেছে, ওমরা এজেন্সির মাধ্যমে সউদী-আরবে ওমরাযাত্রী পাঠিয়ে জাকারিয়া কোটিপতি বনে গেছে। রাতারাতি মালিক হয়ে গেছে গাড়ি-বাড়ি জমিজমা ও ফ্লাটের। জাকারিয়া প্রতিবছরই ওমরা ও হজে লোক প্রেরণ করে আর হাজীদের হজ করার ক্ষেত্রে তাদের খাওয়া-দাওয়া, বাসা-বাড়িতে রাখা নিয়ে প্রতারণা করে থাকে। হাজীরা জানিয়েছে প্রায় প্রতিবছরই জাকারিয়ার প্রতারণা নিয়ে সউদী-আরবেই হাজীদের সাথে তার বাক-বিত-া হয় এবং দেশে এসেও হাজীরা তার কুকীর্তির সমালোচনা করে। গতবছর বাংলাদেশ থেকে ওমরা হজের জন্য চতুর জাকারিয়া সব ওমরাকারীদের তার এজেন্সির নামে পাঠায়নি। সে পাচারের দায় থেকে মুক্ত থাকার জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় অন্য এজেন্সিদের মাধ্যমে পাঠিয়েছে। কিন্তু গতবছর এই পাচারের ঘটনা ধরা পড়ার পর সে নিজেকে বড় ধরনের পাচারের দায় থেকে বাঁচাতে সক্ষম হলেও শেষপর্যন্ত শেষ রক্ষা হয়নি। ধর্ম মন্ত্রণালয় আল-আরাফা ওভারসিজ’র লাইসেন্স বাতিল করে এবং ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করে। সম্প্রতি সউদী-আরব সরকার ওমরা হাজী প্রেরণে বাংলাদেশের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের পর জাকারিয়া আবার তৎপর হয়ে উঠেছে। ওমরা হাজী সংগ্রহের জন্য নরসিংদীর অলি-গলিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। একটি সূত্র জানিয়েছে, জাকারিয়া সউদী-আরবে লোক প্রেরণের ক্ষেত্রে ঝুঁকি এড়ানোর তথা পরিবর্তিত পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য পূর্ব থেকেই তার ছেলের নামে সালমান অ্যাভিয়েশন এবং তার ভাইয়ের নামে নরসিংদী ট্রাভেলস্সহ বেশ কয়েকটি এজেন্সির সনদ নিয়ে রাখে।
এ ব্যাপারে জাকারিয়ার সাথে যোগাযোগ করা হলে তার আল-আরাফা ওভারসিজ’র লাইসেন্স বাতিল হয়নি বলে জানিয়ে মোবাইলের লাইন কেটে দেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন