সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২০ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

এতকিছুর পরও রেকর্ড পার্টনারশিপ!

প্রকাশের সময় : ২২ মার্চ, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শামীম চৌধুরী ব্যাঙ্গালুরু (ভারত) থেকে : তাসকিন, আরাফাত সানি নেই-তাতে দলের কম্বিনেশনটা এমনিতেই ভেঙে পড়ার কথা। বোলিং অ্যাকশনে ত্রæটি খুঁজে ওই দু’জনকে নিষিদ্ধ করায় ভেঙে পড়েছে পুরো দলটি। তার উপর নিয়মিত একাদশে নেই তামীম ইকবাল। পেটের পীড়ায় আক্রান্ত, সঙ্গে জ্বরও। দুর্বল শরীর নিয়ে খেলার মতো অবস্থায়ই নাকি ছিলেন না তামীম। এই ইনফর্ম ওপেনারকেও পায়নি গতকাল মাশরাফিরা। যে ছেলেটির সর্বশেষ ৪ ইনিংস ৮৩*, ৪৭, ১০৩* ও ২৪, টি-২০ বিশ্বকাপের চলমান আসরে সর্বাধিক ২৫৭ রান সংগ্রাহক তামীমকে ছাড়া টি-২০ কল্পনা করে কীভাবে বাংলাদেশ? এখানেও যে ধাক্কা খেতে হয়েছে। টানা ৮ম ম্যাচে মাশরাফির টসে হার! এটাও কী কোনো বাজে আলামত? তবে চেন্নাইয়ের পরীক্ষাগারে ত্রæটিপূর্ণ পরীক্ষা নিয়ে সোচ্চার মাশরাফি নিজে ভেঙে পড়েও ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বশক্তি দিয়ে খেলবেন বলে দিয়েছিলেন কথা। অন্ততঃ অধিনায়কের দেওয়া সে কথা রাখতে পেরেছেন টিমমেটরা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইতোপূর্বের তিন ম্যাচে সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ১৫৩/৫, ২০১৪ টি-২০ বিশ্বকাপের ওই স্কোর ছাপিয়ে গতকাল ব্যাঙ্গালুরুতে ভাঙাচোরা বাংলাদেশ দল করেছে ১৫৬/৫! তা সম্ভব হয়েছে ¯øগের ব্যাটিংয়ে।
যে ম্যাচে নিয়মিত একাদশের তিনজনকে হারিয়ে মনোবল ভেঙে পড়ার কথা, সেই ম্যাচে ক্রিকেট পরাশক্তিদের বিপক্ষে চ্যালেঞ্জটা মন্দ হয়নি। ওভার প্রতি ৭.৮৫ রানের চ্যালেঞ্জ তো ছুঁড়তে পেরেছে বাংলাদেশ দল। ইনিংসের শুরুতে তাসকিন, আরাফাতের শূন্যতায় বিষাদের ছাপ। প্রথম ১৮ বলে ১০’র বেশি তুলতে পারেনি বাংলাদেশ। টি-২০ যেখানে মার মার কাট কাট ব্যাটিংয়ের খেলা, সেখানে প্রথম বাউন্ডারির জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে বাংলাদেশকে ৪র্থ ওভার পর্যন্ত। ফিল্ড রেস্টিকশনের প্রথম ৬ ওভারের স্কোরও বলার মতো নয় (৩৩/২)। ধারাবাহিক ব্যর্থ সৌম্য ব্যাঙ্গালুরুতে ফিরেছেন ১ রানে, তাও আবার ওই রানটির জন্য কোল্টার নিলকে তিনটি ডট উপহার দেওয়ার পর ওয়াটসনের বলে পয়েন্টে করেছেন ক্যাচ প্র্যাকটিস! হেস্টিংসকে এক ওভারে লং অফ, লং অনে ২টি বাউন্ডারি মেরে ওয়াটসনকে মিড অনের উপর দিয়ে খেলতে যেয়ে ভুলটা করেছেন সাব্বির, দিয়ে এসেছেন ক্যাচ (১২)। সাকিব-মিঠুনের পার্টনারশিপটি উঠেছিল জমে কিন্তু পুরোদমে তা জমতে দেননি অজি লেগ স্পিনার জাম্পা। তৃতীয় জুটি থামিয়ে দিয়েছেন ৩৭ রানে। মিচেল মার্শকে ডাউন দ্য উইকেটে স্ট্রেইট বাউন্ডারি এবং লং অফের উপর দিয়ে ছক্কায় চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম মাতিয়ে জাম্পার পুলে মিড উইকেটে দিয়ে এসেছেন ক্যাচ মিঠুন (২৩)।
ঢাকা থেকে উড়ে এসে জুড়ে বসতে চাননি, খেলার সুযোগ পেয়েই জাম্পাকে লং অনের উপর দিয়ে বিশাল ছক্কা এবং পয়েন্ট দিয়ে মেরেছিলেন বাউন্ডারি পর পর দুই বলে। তবে পরের বলে এলবিডবøুউতে পড়েছেন কাটা! দলের প্রয়োজন মেটাতে থাকা সাকিব থামলেন ৩৩-এ (২৫ বলে ৩ চার ১ ছক্কা), জাম্পাকে পয়েন্ট দিয়ে খেলতে যেয়ে শর্ট থার্ডম্যানে ক্যাচ দিয়ে। সেখান থেকে বাংলাদেশের স্কোর দেড়’শ আশা করেনি কেউ। সেখান থেকে শেষ তিন ওভারে ৪৫ রানে অবিশ্বাস্যভাবে বাংলাদেশ স্কোর টেনে নিয়েছে ১৫৬/৫ এ। তা সম্ভব হয়েছে ৫ম জুটিতে মাহামুদুল্লাহ-মুশফিক দুই ভায়রার ৫১ রানের পার্টনারশিপে। ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে এর চেয়েও বেশি আছে বাংলাদেশের। এ বছরের শুরুতে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫৭ রানের সেই পার্টনারশিপে নেতৃত্ব দেওয়া মাহামুদুল্লাহ পার্টনার পেয়েছিলেন নূরুল হাসান সোহানকে। গতকালও পার্টনারশিপে দিয়েছেন নেতৃত্ব মাহামুদুল্লাহ। ৫১ রানের অবিচ্ছিন্ন পার্টনারশিপে তার অবদান ৩৫! প্রথম ২ স্পেলে ওয়াটসনকে খেলতে ধুঁকেছে টপ অর্ডাররা, সেই ওয়াটসনকে শ্লগে বেধড়ক পিটুনি দিয়েছেন রিয়াদ-মুশফিকুর। ১৯তম ওভারে ১৭ রান তুলেছেন তারা। যার মধ্যে মাহামুদুল্লার ২টি বাউন্ডারির একটি বাউন্সারে হুক!
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৬ষ্ঠ জুটির ৫১ শুধু এই প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই নয়, টি-২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পার্টনারশিপ এটি। ৫১তম ম্যাচে তৃতীয় ফিফটি উদ্যাপন করতে পারেননি মাহামুদুল্লাহ মাত্র ১টি রানের জন্য। তবে ২৯ বলে ৪৯ রানের ইনিংসে ৭ টি চারের পাশে একটি ছক্কা-বিশ্বমঞ্চে বড় ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরার পাত্র যে তিনি। ভায়রার সঙ্গে ২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বড় পার্টনারশিপ থেকে টনিক নিয়ে চিন্নাস্বামীতে ফর্মে ফেরার চেষ্টাটা তো অন্ততঃ করতে পেরেছেন মুশফিক (১১ বলে ১৫)। এই ম্যাচে একটু বেশিই বল ডট করেছে বাংলাদেশ। ডট বলের সংখ্যা ৪৬। সংক্ষিপ্ত ভার্সনের খেলায়ও লেগ স্পিন ভীতি! ক্যারিয়ারের প্রথম তিন টি-২০ ম্যাচে উইকেটহীন কাটিয়ে বাংলাদেশকে পেয়ে দেখেছেন উইকেটের মুখ। তাও আবার একটি, দু’টি নয়-তিনটি। খরচা তার ২৩। কোল্টার নিলের শেষ ওভারে ১৩ রান নিলেও প্রথম তিন ওভারে ১০টি ডট উপহার দিয়েছেন এই অজি পেসারকে বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানরা।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন