ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

সেই ওয়েস্টহ্যামে আর্সেনালের স্বপ্ন ফিকে

প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়েস্টহ্যামের কাছেই ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হেরে এবারের লিগ শুরু হয়েছিল আর্সেনালের। গতকালের ম্যাচে লক্ষ্য ছিল তাই প্রতিশোধের। মেসুত ওজিল ও আলেক্সিস সানচেসের গোলে এগিয়ে যাওয়ার পরও অ্যান্ডি ক্যারলের হ্যাটট্রিকে হারতেই বসেছিল তারা! দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে ৩-৩ গোলে ড্র করে ফিরেছে আর্সেন ওয়েঙ্গারের দল। লরাঁ কোসিয়েলনির গোলে শেষ পর্যন্ত ১ পয়েন্ট নিশ্চিত হয় দলটির। ফলে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আর্সেনালের শিরোপা স্বপ্ন প্রায় শেষ হয়ে গেছে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের মাঠে হোঁচট খাওয়ায়। এই ড্রয়ের পর ৩২ ম্যাচে আর্সেনালের পয়েন্ট ৫৯, তৃতীয় স্থানে আছে তারা। সমান ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে আছে ওয়েস্টহ্যাম। শীর্ষে থাকা লেস্টার সিটির পয়েন্ট ৬৯।
ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে মানুয়েল লান্সিনির হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে বেঁচে যায় আর্সেনাল। আর পঞ্চদশ মিনিটে এই আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার জালে বল জড়ালেও অফসাইডের বাঁশিতে হাফ ছাড়ে অতিথিরা। এর তিন মিনিট পরেই আর্সেনালকে কাক্সিক্ষত গোল এনে দেন ওজিল। আলেক্স আইওবির পাস ধরে বক্সে ঢুকে কোণাকুণি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এই জার্মান মিডফিল্ডার। রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক মিডফিল্ডার ওজিলের এবারের প্রিমিয়ার লিগে এটা ষষ্ঠ গোল। ৩৫তম মিনিটে ওজিলের মতো একই জায়গা থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সানচেস। নাইজেরিয়ার ফরোয়ার্ড আইওবির উঁচু করে বাড়ানো বল প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁ-পায়ের কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন চিলির এই ফরোয়ার্ড। ইপিএলে শেষ পাঁচ ম্যাচে সানচেজের এটা তৃতীয় গোল, এ সময়ে সতীর্থদের দিয়ে তিনটি গোলও করিয়েছেন তিনি।
দুই গোলে পিছিয়ে পড়লেও তিন মিনিটের মধ্যে ক্যারলের জোড়া গোলে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ওয়েস্টহ্যাম। ৪৪তম মিনিটে বাঁ-দিক থেকে স্বদেশি ডিফেন্ডার অ্যারন ক্রেসওয়েলের ক্রসে হেড করে প্রথম গোলটি করেন এই ইংলিশ স্ট্রাইকার। ক্যারোলের দ্বিতীয় গোলটি এককথায় দুর্দান্ত; স্বদেশি মিডফিল্ডার মার্ক নোবেলের উঁচু করে বাড়ানো বল বুক দিয়ে নামিয়ে প্রথমবার ঠিক মতো শট নিতে পারেননি লিভারপুলের সাবেক এই খেলোয়াড়। আর্সেনালের গাব্রিয়েলের গায়ে লেগে আসা ফিরতি বলে শরীরটাকে ঘুরিয়ে বাঁ-পায়ের ভলিতে জালে জড়ান ২৭ বছর বয়সী ক্যারল।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আর্সেনালের রক্ষণে চেপে বসে স্বাগতিকরা। পঞ্চম মিনিটে এগিয়েও যেতে পারতো তারা, ফাঁকা জালে বল পাঠিয়ে উৎসবে মাতেন দিমিত্রি পায়েত। কিন্তু ফাউলের বাঁশি বাজান রেফারি, মুহূর্ত আগে বল দখলের লড়াইয়ে লরেন্ত কোসিয়েলনিকে পিছন থেকে ধরে রাখার অভিযোগে। দুই মিনিট পরেই অবশ্য সে হতাশা ভুলিয়ে দেন ক্যারল, মিডফিল্ডার মিখাইল আন্তোনিওর উঁচু করে বাড়ানো বলে অনেকটা লাফিয়ে উঠে হেডে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন তিনি। মাঝপথে প্রতিহতের চেষ্টা করেছিলেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার গাব্রিয়েল, কিন্তু তিনি শুধু বলের দিকই বদলাতে পারেন। ম্যাচে প্রথমবারের মতো পিছিয়ে পড়ার পর নিজেদের গুছিয়ে নিতে সময় নেয়নি আর্সেনাল। ধারাবাহিক আক্রমণে ৬৮তম মিনিটে গোল পেয়ে যেতে পারতো তারা, কিন্তু ২৫ গজ দূর থেকে নাচো মনরিলের শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও গোললাইন থেকে ঠেকিয়ে দেন লান্সিনি। দুই মিনিট পরেই অবশ্য স্বস্তির সমতায় ফেরে আর্সেনাল। ওজিলের ক্রস ড্যানি ওয়েলবেকের পা হয়ে পেয়ে যান পাঁচ গজ দূরে দাঁড়ানো কোসিয়েলনি, গোলরক্ষককে পরাস্ত করতে কোনো সমস্যাই হয়নি তার। লড়াইয়ের বাকিটা সময় আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে উঠলেও গোল পায়নি কোনো দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন