ঢাকা, বুধবার, ২৭ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

আইপিএলেও দূর্দান্ত অভিষেক মুস্তাফিজুরের

প্রকাশের সময় : ১৩ এপ্রিল, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : হায়ারাবাদে পৌঁছেই পেয়েছেন মুস্তাফিজুর সতীর্থদের অভিনন্দন। এক সপ্তাহেরও কম সময়ে সানরাইজার্স হায়দারাবাদের মধ্যমনি হয়ে উঠেছেন এই বিস্ময় কাটার মাস্টর। এ ক’দিন মুস্তাফিজুরের পেছনে ছাঁয়ার মতো লেগেছিলেন কোচ টম মুডি। দিয়েছেন তিনি আগে-ভাগে খেলার নিশ্চয়তা। ১ কোটি ৪০ লাখ রুপিতে কিনে যে ভুল করেননি ভি ভি এস লক্ষন, টম মুডিÑগতকাল আইপিএল ২১ বছর বয়সী বাঁ হাতি পেস বোলার মুস্তাফিজুরের অভিষেকে সেটাই জেনে গেছেন তারা। টি-২০ আন্তর্জাতিক অভিষেকই বলুন, কিংবা ওয়ানডে, টেস্টÑঅভিষেকে ছড়িয়েছেন দ্যুতি মুস্তাফিজুর। আইপিএলের অভিষেকটাও হলো তার দূর্দান্ত (২/২৬)।
দলে আশিষ নেহরা, ভুবনেশ্বর কুমার আছেন, আছে হেনরিকস। অথচ, তাদের কেউ নির্ভরতা দিতে পারেনি প্রথম ম্যাচে। বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে স্বাগতিক রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরু ব্যাটসম্যানরা সানরাইজার্স হায়দারাবাদের অধিকাংশ বোলারদের উপর চাবুক চালালেও মুস্তাফিজুরের সামনে তাদের সব জারি-জুরি গেছে থেমে! কোহলী, ডি ভিলিয়ার্স পর্যন্ত মুস্তাফিজুর আতঙ্কে কাটিয়েছেন রাতটি। ২ ওভারের প্রথম স্পেলটি তার ২-০-১০-০, দ্বিতীয় স্পেলটি সেখানে ২-০-১৬-২! ১৭তম ওভারে লেগ স্পিনার কারণ শর্মা মার খাওয়ার পর (১৭ রান) ১৮তম ওভারে মুস্তাফিজুরের হাতে বল তুলে দিয়ে বিস্ময়কর ডেলিভারি দেখতে চেয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। দেখেছেনও তা। দ্বিতীয় ডেলিভারিটি কাটার দিয়েই টি-২০ স্পেশালিস্ট ডি ভিলিয়ার্সকে শিকারে আইপিএলে অভিষেক উইকেটÑতাও আবার কাটার বুঝতে না পেরে আকাশে তুলে দিয়েছেন ভিলিয়ার্স ক্যাচ (৮২)! পরের ডেলিভারিটি লেগ স্ট্যাম্পের বাইরে ছিল পিচিং, গøান্স করতে যেয়ে টি-২০’র বিশ্বসেরা অল রাউন্ডার শেন ওয়াটসন (১৯) উইকেট কিপারের হাতে দিয়েছেন ক্যাচ। ভাগ্যটা ভাল হলে এই ওভারেই আর একটি শিকার করতে পারতেন তিনি। কিন্তু সরফরাজ খানকে শর্ট থার্ডম্যানে ক্যাচে পরিনত করতে পারেননি সানরাইজার্স ফিল্ডার। ১৯তম ওভারে ভুবনেশ্বর কুমারকে কি শিক্ষাই না দিয়েছিলেন সরফরাজ, ৪ বাউন্ডারি,১ ছক্কায় ২৮ রান খরচায় ডেভিড ওয়ার্নারের মাথায় উঠেছিল হাত। তবে মুস্তাফিজুর নামক বোলার মজুদ ছিল বলে শেষ ওভারে ১৩’র বেশি খরচা হয়নি। ২৪টি ডেলিভারির মধ্যে ১১টি ই তার ডট, অবশিস্ট ১৩টি ডেলিভারির মধ্যে ২টি চার এবং ১টি ছক্কা খেতে হয়েছে মুস্তাফিজুরকে। অথচ, পায়ের পেশিতে টান পড়ে মাঠ ছাড়ার আগে নেহরার মতো অভিজ্ঞ পেস বোলারের ১৩ বলে খরচা ২১, গেইল এবং কোহলীকে শিকারের বিপরীতে ২৪ ডেলিভারিতে পেস বোলার ভুবনেশরের খরচা ৫৫! লেগ স্পিসার কারণ শর্মার খরচা ৫৭!
এমন ম্যাচে কোহলী-ভিলিযার্সের ১৫৭ রানের জুটিতে ভর করে ২২৭/৪ পর্যন্ত স্কোর টেনে নিয়ে জয়ের পথ করেছে প্রশস্ত রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। ৪৫ রানে জিতেছে তারা। বৃথা গেছে সানরাইজার্স অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের ৫৮। সানরাইজার্সের ওভারপিছু সংগ্রহ যেখানে ১১.৩৫ রান, সেখানে মুস্তাফিজুরের খরচা ৬.৫০!

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Shahlam Khan ১৩ এপ্রিল, ২০১৬, ১০:৩৯ এএম says : 0
Cutters boy proved he is the world class players
Total Reply(0)
Anasur ১৩ এপ্রিল, ২০১৬, ৮:৪৮ এএম says : 0
I like mostafuger
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন