বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৬ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

সাধারণ দর্শকদের জন্য মাত্র সাড়ে ৫ হাজার টিকিট

স্পোর্টস রিপোর্টার : | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ১২:০২ এএম

দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে বিশ্বকাপ খ্যাত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ দরজায় কড়া নাড়ছে। আগামী মঙ্গলবার ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উদ্বোধন হবে টুর্নামেন্টের ১২তম আসরের। শেষ হবে ১৫ সেপ্টেম্বর। এতে স্বাগতিক বাংলাদেশসহ সাফের সাতটি সদস্য দেশ অংশ নেবে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে নিজেরে শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করতে। ঘরের মাঠে ফের ফিরে এসেছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। ২০০৩ সালের পর আবারো এ টুর্নামেন্টে সেরা হতে বদ্ধপরিকর বাংলাদেশ। টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে সব প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন করেছে সাউথ এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন (সাফ)। দলগুলোর আবাসন ও প্র্যাকটিস ভেন্যুও চুড়ান্ত হয়েছে। স্টেডিয়ামে প্রবেশের টিকিটও ছাপা হয়েছে। যদিও স্থানীয় আয়োজক বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) কাছে তা এখনো পৌঁছায়নি। তবে গতকাল বাফুফে ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জানা যায়, সাধারণ দর্শকদের জন্য মাত্র ৫৫৮০টি টিকিট বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সাফ সুজুকি কাপের লোকাল অর্গানাইজিং কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী ও সদস্য শওকত আলী খান জাহাঙ্গীর। সালাম মুর্শেদী বলেন,‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দর্শক ধারণ ক্ষমতা প্রায় ২৩ হাজার হলেও ১৭,৪২০টি টিকিট আমরা ডিএফএ, বিপিএল, বিসিএল, প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও পাইওনিয়র লিগের ক্লাব, পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান, বাফুফে নির্বাহী কমিটি ও বিভিন্ন সংস্থার জন্য বরাদ্দ রেখেছি। বাকি সাড়ে ৫ হাজার টিকিট সাধারণ দর্শকদের জন্য রাখা হয়েছে।’ তবে দর্শক বাড়লে টিকিটের বিকল্প ব্যবস্থা থাকবে বলে জানান তিনি। টিকিটের মূল্য ধরা হয়েছে: ৫০ টাকা ( গেইট নং ২ ও ৩) এবং ২০ টাকা (গেইট নং: ৫, ৬, ১৩, ১৪, ১৮ ও ১৯) করে।
টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর সদস্যদের জন্য আবাসন ব্যবস্থা করা হয়েছে রাজধানীর তিনটি অভিজাত হোটেলে। ওয়েসটিন হোটেলে থাকবে ভারত, পাকিস্তান ও নেপাল জাতীয় দল। স্বাগতিক বাংলাদেশ, ভুটান, মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কা দল থাকবে ফারস হোটেলে। এছাড়া ম্যাচ কমিশনার, রেফারি, সহকারী রেফারী ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের আবাসন ব্যবস্থা করা হয়েছে হোটেল পূর্বাণীতে।
সাফ সুজুকি কাপে অংশগ্রহনকারী সাত দলের জন্য প্র্যাকটিস ভেন্যু নির্ধারণ হয়েছে ঢাকার চারটি মাঠ। এগুলো হলো- আবাহনী লিমিটেড মাঠ, শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব মাঠ, নেভি গ্রাউন্ড ও উত্তরার এপিবিএন গ্রাউন্ড।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন