ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট ২০২০, ২২ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপে বাংলাদেশী গার্মেন্টের দাম ক্রমাগত কমছে সংবাদ সম্মেলনে বিজিএমইএ সভাপতি

প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ঃ যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক পণ্যের দরপতন অব্যাহত রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজিএমইএর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান। গতকাল (মঙ্গলবার) বিকালে বিজিএমইএয়ের সভাকক্ষে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান। সাসটেইনেবিলিটি কমপ্যাক্টের আলোকে তৈরি পোশাক খাতের নিরাপদ কর্মপরিবেশ ও শ্রম অধিকারের ক্ষেত্রে অর্জিত অগ্রগতি নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলন আনুষ্ঠিত হয়।
বিজিএমইএ’র সভাপতি বলেন, ক্রেতাদের কাছে অনুরোধ গেøাবাল ভ্যালু চেইনের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের শিল্পকে টেকসই করার লক্ষ্যে দায়িত্বশীল ব্যবসা করুন, পোশাকের ন্যায্যমূল্য দিন। সব ক্রেতারা বাংলাদেশ থেকে পোশাক নিতে একই রকম শর্ত আরোপ করুন।
সিদ্দিকুর রহমান বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর তৈরি পোশাক খাতে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। এখন ক্রেতারা অর্ডার দিতে দ্বিধান্বিত হয় না। ক্রেতারা আসছেন স্বাচ্ছন্দে। তবে এক্ষেত্রে ক্রেতাদেরও আমাদের কথা বিবেচনা করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, ২০১৮ সালের জুলাই মাস পর্যন্ত অ্যাকর্ড এবং অ্যালায়েন্স মেয়াদ রয়েছে। তারা পোশাক খাতের অগ্রগতিতে কিছু শর্ত দিয়েছে। আশা করি এর আগেই আমরাও তাদের শর্ত পূরণে সমর্থ হবো।
বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ন্যাশনাল অ্যাকশন প্লান (ন্যাপ), অ্যাকর্ড ও অ্যালায়েন্সের আওতায় কারখানার নিরাপত্তা সংক্রান্ত পরিদর্শনে বিজিএমইএ পূর্ণ সহযোগিতা করে আসছে। আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ৩ হাজার ৬৬০টি চালু কারখানা পরিদর্শন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে এবং কারখানাগুলো প্রয়োজনীয় সংস্কার প্রায় ৯০ শতাংশ শেষ করেছে।
বেআইনি সাব কন্ট্রাকটিং বন্ধে বিজিএমইএ সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে মো. সিদ্দিকুর রহমান আরো বলেন, সাব কন্ট্রাকটিং করতে হলে সংশ্লিষ্ট কারখানাকে কমপ্লায়েন্ট হতে হবে। বিজিএমইএ’র বৈধ সদস্য হতে হবে এবং শ্রমিকেরদরে জন্য গ্রæপ ইন্স্যুরেন্স থাকতে হবে। রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর কারখানার নিরাপত্তা প্রশ্নে বিজিএমইএ জিরো টলারেন্স প্রদর্শন করছে। এই নীতির আলোকে অ্যাকর্ড, অ্যালায়েন্স, আইএলওসহ সংশ্লিষ্ট সব স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে একযোগে কাজ করছে। বাংলাদেশ বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ পোশাক তৈরির দেশ হিসেবে পরিচিতি লাভ করছে।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিজিএমইএ’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ফারুক হাসান, সহ-সভাপতি (অর্থ) মোহাম্মদ নাসির উদ্দীন, বিকেএমইএ’র সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ, পরিচালক সাইফুদ্দিন আহমেদ, মিজানুর রহমান প্রমুখ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন