ঢাকা, শনিবার , ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

স্বস্তি ফিরল আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলে

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ মার্চ, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

আগের ম্যাচে দুই দলকেই পুড়তে হয়েছিল হতাশায়। তিতের ব্রাজিল পানামার সঙ্গে ড্র করলেও মেসির ফেরার ম্যাচে ভেনিজুয়েলার কাছে হেরে যায় আর্জেন্টিনা। সেই হতাশা ভুলে এবার একই রাতে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে জয়ের দেখা পেয়েছে দুই দলই। মরক্কোর মাঠে অ্যাঞ্জেল কোররেরার শেষ দিকের গোলে জয় পায় আর্জেন্টিনা। গ্যাব্রিয়েল জেসুসের জোড়া গোলে চেক রিপাবলিককে তাদেরই মাঠে ৩-১ গোলে হারায় ব্রাজিল।

পরশু রাতে প্রাগে স্বাগতিকদের বিপক্ষে পিছিয়ে পড়েও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে জয় ছিনিয়ে নেয় পাঁচবারের বিশ^ চ্যাম্পিয়নরা। প্রথমার্ধে পিছিয়ে পড়ার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে সমতাসূচক গোলটি করেন রবার্তো ফিরমিনো। ফিলিপ কুতিনহোর বদলি নামা জেসুস শেষ দশ মিনিটে দুই গোল করে সেলেসাওদের জয় নিশ্চিত করেন।

ওদিকে তানজিয়ারের ইবনে বতুতা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠেয় ম্যাচে মরক্কোকে ১-০ গোলে হারায় আর্জেন্টিনা। উত্তাপহীন গোলশূন্য ড্রয়ের দিকে এগুতে থাকা ম্যাচের শেষদিকে একমাত্র গোলটি করেন কোররেয়া। কুঁচকির ইনজুরির কারণে দলে ছিলেন না লিওনেল মেসি।
আর্জেন্টিনা-মরক্কো ম্যাচটি ছিল এলোমেলো ফুটবলের প্রদর্শনী। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণের তেমন কোনো ঝাঁজ ছিল না। ডি বক্সের আসেপাশে মেসির অভাব ছিল স্পষ্ট। শেষদিকে কিছুটা গোছালো ফুটবলের চেষ্টা করা আর্জেন্টিনা একটি গোল আদায় করে নেয় বটে, কিন্তু তাদের খেলায় স্বয়ং আর্জেন্টাইনদেরও মন ভরার কথা নয়। দুই দল দুটি করে মোট চারটি শট লক্ষ্যে রাখতে পারে।

ম্যাচের অধিকাংশ সময় বল ছিল মাঝমাঠে। বিশ^কাপের পর থেকে ছয় ম্যাচ অপরাজিত থাকা মরক্কোর খেলায় আক্রমণাত্মক মনোভাব ছিল স্পষ্ট। আর আর্জেন্টিনা মেতে ছিল ভুল পাসিং ফুটবলে। বলের দখলেও এগিয়ে ছিল স্বাগতিকরা। অগোছালো ফুটবলের কারণে কিছুক্ষণ পর পর ফঅউলের বাঁশি বাজাতে হয়েছে রেফারিকে। গড়ে প্রতি দুই মিনিটে একবার করে ফাউলের বাঁশি বাজিয়েছেন রেফারি, পকেট থেকে হলুদ কার্ড বের করেছেন মোট ৬ বার। প্রথমার্ধেই বাজে ফাউলকে কেন্দ্র করে বেশ কয়েকবার দুই দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। খেলাও এসময় বন্ধ ছিল।
দ্বিতীয়ার্ধেও খেলা একই ধারায় বইতে থাকে। দুই দলই বেশ কয়েকজন করে খেলোয়াড় বদল করায় শেষদিকে কিছুটা গোছালো ফুটবলের দেখা মেলে। এসময় গোলের দেখা পেয়ে যায় সফরকারীরা। রিভার প্লেট ফরোয়ার্ড মাটিয়েস সুয়ারেজের পাস ধরে ডানদিকে জায়গা বের করে ছোট ডি বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের কোনাকুনি শটে গোলটি করেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড কোররেয়া। মেসি, ডি মারিয়া, আগুয়েরোদের অনুপস্তিতিতে এদিন আক্রমণের নেতৃত্বে ছিলেন পাওলো দিবালা।

চার দিন আগে মাদ্রিদে ভেনিজুয়েলার কাছে ৩-১ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপের পর দীর্ঘ বিরতি শেষে এই শ্যাচ দিয়ে জাতীয় দলে ফেরেন মেসি। পরের দিন পানামার সঙ্গে ১-১ ড্র করে ব্রাজিল।

সব জয়ই স্বস্তির। কিন্তু এই জয় লা আলবিসেলেস্তে কোচ লিওনেল স্কালোনিকে কতটা স্বস্তি এনে দেবে এই প্রশ্ন রয়েই যাচ্ছে। সামনে কোপা আমেরিকা মহারণ। এর মধ্যে আর প্রস্তুতি ম্যাচও নেই। এমন সময় দলের এমন অগোছালো ভাব যে কোনো কোচের কপালে ভাজ ফেলতে বাধ্য।

অন্যদিকে, ঘরের মাঠে লাতিন শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে নামার আগে আত্মবিশ্বাসের রসদ পেলেন ব্রাজিল কোচ তিতে।

এক নজরে ফল
জাপান ১ : ০ বলিভিয়া
কোরিয়া রিপাবলিক ২ : ১ কলম্বিয়া
সংযুক্ত আরব আমিরাত ০ : ০ সিরিয়া
নাইজেরিয়া ১ : ০ মিসর
সেনেগাল ২ : ১ মালি
আলজেরিয়া ১ : ০ তিউনিসিয়া
চেক রিপাবলিক ১ : ৩ ব্রাজিল
জিব্রাল্টার ০ : ১ এস্তোনিয়া
মরক্কো ০ : ১ আর্জেন্টিনা
যুক্তরাষ্ট্র ১ : ১ চিলি

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন