ঢাকা, সোমবার , ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনা, প্রতিপক্ষ ব্রাজিল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ জুন, ২০১৯, ১২:০৪ এএম

লাউতুরো মার্টিনেজ ও জিওভানি লো সেলসোর গোলে ভেনেজুয়েলাকে হারিয়ে কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে উঠেছে আর্জেন্টিনা। যেখানে তাদের অপেক্ষায় রয়েছে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী ব্রাজিল। আগামী ৩ জুলাই দেখা যাবে ফুটবলের সবচেয়ে কাঙ্খিত লড়াই।

রিও ডি জেনিরোর মারাকানা স্টেডিয়ামে পরশু ভেনিজুয়েলাকে ২-০ গোলে হারায় লা আলবাসিলেস্তেরা। সাও পাওলোতে অনুষ্ঠিত দিনের আরেক ম্যাচে নির্ধারিত সময়ের ম্যাচটি গোলশুন্য ড্র থাকার পর পেনাল্টিতে কলম্বিয়ারেক ৫-৪ গোলে পরাজিত করে সেমিফাইনালে উঠেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন চিলি।

হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করা লিওনেল স্কালোনির দলের এটি ছিল আরেকটি উন্নত পারফরমেন্স। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ২৬ বছরের শিরোপাখরা কাটানোর মিশনে লিওনেল মেসির দল এবার কোপা আমেরিকায় খেলতে এসেছে। ভেনিজুয়েলার বিপক্ষে দুটি গোলেরই যোগানদাতা অগুয়েরো বলেছেন, ‘আমরা আর্জেন্টিনা। যখনই আমরা নক-আউট পর্বে খেলতে আসি, বিষয়টি আমাদের শক্তিশালী করে তোলে। ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচটা মোটেই সহজ হবে না। কিন্তু আমরা জার্সির মর্যাদা রাখতে নিজেদের সর্বোচ্চ চেষ্টাই করবো।’

শুরু থেকেই এদিন ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ছিল আর্জেন্টিনার অনুকূলে। ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই ডানদিক থেকে মার্টিনেজের নিখুঁত পাস পেয়েছিলেন আগুয়েরো। কিন্তু ম্যানচেস্টার সিটি ফরোয়ার্ডের লো ক্রস শট সহজেই পা দিয়ে আটকে দেন গোলরক্ষক ফারিনেজ। জারমান পাজেলা অনেকটা ফাঁকায় থাকলেও তার ফ্লিক ব্যাক পোস্টে লেগে ফেরত আসে। একের পর এক আক্রমণে ভেনেজুয়েলার রক্ষনভাগ ব্যস্ত রাখেন মেসি-আগুয়েরোরা। প্রথম ১০ মিনিটে ৮০ শতাংশ পজিশন ছিল আর্জেন্টাইনদের দখলে। এ সময় বেশ কয়েকটি কর্নারও আদায় করে নিয়েছিল আকাশী-সাদা জার্সিধারীরা। শেষ পর্যন্ত অগুয়েরো শট থেকে সুযোগ সন্ধানী মার্টিনেজ ফ্লিক করে বল জালে জড়ালে ১০ মিনিটে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। ৭৪তম মিনিটে আগুয়েরোর শট ফারিনেজ ধরতে ব্যর্থ হলে ফিরতি বল লো সেলসো জালে জড়ান। আগুয়েরো-মার্টিনেজরা বেশ কয়েকটি সুযোগ হাতছাড়া না করলে ব্যবধান আরো বড় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারত আর্জেন্টিনা।

ভেনেজুয়েলার কোচ রাফায়েল ডুডামেল বলেন, ‘আমরা ম্যাচের সঠিক আবহই বুঝতে পারিনি। এই সময়ের মধ্যে ম্যাচটি শেষ হয়ে গেছে। অবশ্যই এবারের টুর্নামেন্টে আমাদের নেতিবাচক থেকে ইতিবাচক অনেক কিছুই অর্জিত হয়েছে।’

ফাইনালে স্বাগতিক দলের বিপক্ষে খেলতে হবে মেসিদের। তবে এই ম্যাচে কেউই ফেবারিট নয় বলে মন্তব্য করেন মেসি। মঙ্গলবার বেলো হরিজন্তের ম্যাচকে সামনে রেখে ৩২ বছর বয়সী বার্সেলোনা তারকা বলেন, ‘এটা বলা কঠিন এই ম্যাচে কে ফেবারিট। মূলত কোপা আমেরিকার মত টুর্নামেন্টে বিষয়টি আরো কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। এখানে যেকোন দলই প্রতিপক্ষকে পরাজিত করার যোগ্যতা রাখে। আমরা সবসময়ই তাদের শ্রদ্ধা করি, আমরা জানি ব্রাজিল কেমন দল।’

বৃহস্পতিবার কোয়ার্টার ফাইনালে ৪০ মিনিটেরও বেশী সময় একজন কম খেলোয়াড় থাকার পরও প্যারাগুয়ের বিপক্ষে পোর্তো আলেগ্রেতে নির্ধারিত সময়ে কোন গোল করতে পারেনি ব্রাজিল। পরে পেনাল্টিতে জয়ী হয়ে স্বাগতিকরা শেষ চার নিশ্চিত করে। মেসি বলেন, ‘ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের আগে আমরা বেশ ভাল ফর্মে আছি। কিন্তু আমাদের অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। কোপা আমেরিকায় এখন পর্যন্ত আমি সেরাটা দিতে পারিনি। তবে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে দলের পারফরমেন্সে আমি খুশী। বিশেষ করে রক্ষণভাগে আমাদের কোন সমস্যা নেই। আজ আমরা তাদের কোন সুযোগ দেইনি। বরং কাউন্টার অ্যাটাকগুলো কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছি।’

প্রতিযোগিতায় নক আউট পর্বে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী দলের বিপক্ষে আগের চার বারের কোনো বারই জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের বাউন্সি মাঠ সেটাকে এবার আরো কঠিন করে তুলতে পারে। ব্রাজিলের মাঠ সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে মেসি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে কি, এখানকার পিচগুলো দারুণ কঠিন। এখানে ভাল ফুটবল উপহার দেয়া যায় না। প্রতিটি ক্ষেত্রেই বল বেশ বাউন্স করে।’
আর্জেন্টিনা ২ : ০ ভেনিজুয়েলা
চিলি ০ : ০ কলম্বিয়া
(টাইব্রেকারে চিলি ৫-৪ ব্যবধানে জয়ী)

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন