ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ

প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে উত্তর কোরিয়ায় ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ জুন, ২০১৯, ৩:০৮ পিএম

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড জে ট্রাম্প ও উত্তর করিয়ার স্বৈরশাসক কিম জং উনের সঙ্গে দীর্ঘ পত্রালাপ চলছিল এতদিন। তবে এবার মার্কিন ইতিহাসে প্রথম কোনও প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প পা রাখলেন উত্তর কোরিয়ায় মাটিতে। রোববার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মাঝে থাকা অসামরিকক্ষেত্রে যান। সেখানেই কিম জং উনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একে অপরকে ‘হ্যালো’ বলেন দুই রাষ্ট্র নেতা। এরপর আরও কিছু পা হেঁটে একেবারে উত্তর কোরিয়ার মাটিতে পা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সেখানেও আরও একবার উনের সঙ্গে হাত মেলান তিনি। দুই রাষ্ট্রনেতার এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের ছবি মুহূর্তেই হয় ক্যামেরা বন্দি। তারপরই দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে হয় বৈঠক। আর তা রোববার সারা বিশ্বের কাছে হয়ে উঠল প্রধান আলোচনার বিষয়।

১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ কোরিয়ার যুদ্ধের পর আমেরিকার সাথে উত্তর কোরিয়ার সম্পর্ক তলানিতে গিয়ে ঠেকে। প্রধানত সামরিক ও বিশেষ করে দিনের পর দিন পরমানু শক্তি বৃদ্ধি ও স্বৈরশাসন নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কের এই অবনতি ঘটে। কিন্তু কিম শাসনে আসার পর থেকেই সেই বরফ গলতে শুরু করে। যার জেরে দীর্ঘ দিনের শত্রুতা কাটিয়ে ফের একবার এই অসামরিক ক্ষেত্রেই উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে হাত মেলান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জে ইন। আর তার আগে থেকেই আমেরিকার সঙ্গে ধীরে ধীরে সম্পর্কের উন্নতি করতে থাকে উত্তর কোরিয়া। শুরু হয় ট্রাম্প-উন চিঠি চালাচালি। তার মধ্যেই পরপর দুই দু’বার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক বাতিল করেন। যদিও চিঠিতে শুরু হয় ইতিবাচক আলোচনা। আর সেই সবের মধ্যেই এবার সরাসরি উত্তর কোরিয়ার মাটিতে এদিন পা রাখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সূত্র: টিওআই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
M nasiruddin shah ১ জুলাই, ২০১৯, ১২:৩৪ এএম says : 0
বিশ্বের প্রভাবশালী দুই জিবন্ত সয়তান বিশ্ব মানবতার দুষমন ইসলামের শক্র সারাবিশ্বের অশান্তির পরিকল্পক একত্রীকরণ হয়েছে। ক্ষমতাধর বিশাল অত্যাধনিক অস্ত্রের অধিকারী। অস্ত্রের শক্তি ডলারের শক্তির কাছে ঈমান হারা ক্ষনস্হায়ী দুনিয়াই ক্ষমতাই থাকা রাজা বাদশারা তোমাদের ইশারার গোলাম হয়ে রাষ্ট্র পরিচালনায় আল্লাহর বিচারের ভয়ংকর শাস্তি তোমাদের জন্য প্রস্তুত। একজন প্রকৃত মুসলমানের শ্রেষ্ঠ সম্পদ তার ঈমান। আল্লাহ তার রাসুল{সাঃ}অনুসৃত সুন্নতের গোলাম হওয়া। আমরা প্রকাশ্য দুষমন সয়তান জেনেও তার অনুসরণ করছি। আল্লাহ আপনি আমাদের বুঝার তৌফিক দিন। জিবন সামান্য কটিদিন মাত্র। আখেরাত চিরস্থায়ী।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন