ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

শারজাহ যুবরাজের মৃত্যু

দ্য বিস্ট | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০১৯, ১২:০৭ এএম


পার্টি-প্রেমী শারজার যুবরাজ শেখ খালিদ ইবন সুলতান আল কাসিমি লন্ডনে মারা গেছেন। গত ১ জুলাই সোমবার সকালে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। সাতটি আমিরাত নিয়ে উপসাগরীয় তেলসমৃদ্ধ দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই) গঠিত। শারজা আমিরাত তার অন্যতম।

গত বুধবার ব্যাপক আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাকে শারজায় দাফন করা হয়। লন্ডনের দ্য সান সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবরে দাবি করা হয়, মাদক-ব্যবহৃত এক পার্টির পর শেখ খালিদ তার নাইটসব্রিজ পেন্টহাউসে মারা যান।
৩৯ বছর বয়স্ক ফ্যাশন ডিজাইনার প্লেবয় শেখ খালিদ ছিলেন শারজা আমিরাতের শাসক ও ইউএই ফেডারেল সুপ্রিম কাউন্সিলের সদস্য শেখ সুলতান বিন মুহাম্মদ আল কাসিমের দ্বিতীয় পুত্র। তার বড় ভাই শেখ মোহাম্মদ বিন সুলতান আল কাসিমি ১৯৯৯ সালে অতিরিক্ত পরিমাণ হেরোইন সেবন করে মারা যাওয়ার পর শেখ খালিদকে যুবরাজ ঘোষণা করা হয়। উক্ত শেখ মোহাম্মদ সাসেক্সে একটি ৩০ লাখ পাউন্ড মূল্যের ম্যানোরে (বাড়ি) বাস করতেন।

দ্য সান অজ্ঞাতনামা সূত্রের বরাত দিয়ে জানায়, পুলিশ আল কাসিমির বাড়িতে কিছু পরিমাণ এ ক্লাস মাদক পেয়েছে। সূত্র বলে, ধারণা করা হচ্ছে যে, বাড়িতে একটি পার্টি অনুষ্ঠিত হয়। আগত অতিথিরা মাদক গ্রহণ করে ও যৌনকর্মে লিপ্ত হয়। সন্দেহ করা হচ্ছে যে, শেখ খালিদ মাদক নেয়ার কারণেই হঠাৎ করে মারা যান। পুলিশি তদন্তের সাথে অভ্যন্তরীণ তদন্ত শুরু এবং বাড়ির কর্মচারিদের মুখ খুলতে নিষেধ করা হয়েছে।

প্লেবয় যুবরাজ আল খালিদ লন্ডনের সেন্ট মার্টিনস-এ স্থাপত্য ও ফ্যাশন ডিজাইনে পড়াশোনা করেন। ২০১৬ সালে তিনি কাসিমি নামে ফ্যাশন ব্রান্ড প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি লন্ডন ও প্যারিস ফ্যাশন সপ্তাহগুলোতে তার সংগ্রহ প্রদর্শন করেন।

কাসিমি ওয়েবসাইটে এক বিবৃতিতে বলা হয়, সামাজিক-রাজনৈতিক বিষয়গুলোতে সংবেদনশীল অনুভ‚তি সত্তে¡ও খালিদ তার দৃঢ়তার জন্য প্রশংসিত ছিলেন। তার লক্ষ্য ছিল সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক আবহ স্পন্দিত সুন্দরভাবে তৈরি সামগ্রী সজ্জিত একটি বিশ^। গোয়েন্দারা এ নতুন ট্র্যাজেডিকে অব্যাখ্যাত বলে মনে করছেন।
খালিদের পিতা শারজায় তিনদিনের সরকারি শোক পালনের কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেছেন, তার ছেলে এখন আল্লাহর হেফাজতে আছে। আমিরাতি শাসকদের জন্য খারাপ সময় যাচ্ছে। ডেইলি বিস্ট জানায়, গত সপ্তাহে দুবাইর শাসকের স্ত্রী প্রিন্সেস হায়া তাকে ত্যাগ করে চলে যান। এখন তিনি লন্ডনে আছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (11)
Mahbubur Rahman Imtiaz ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২১ এএম says : 0
এগুলো সত্য কারে দুঃখ জনক। কিন্তু পুরো মুসলিম বিশ্ব এক হলে এগুলো প্রতি রোধ করা যাবে না হয় দিন দিন বেড়ে চলছে আর লন্ডন এ তো বৈধতা দিয়েছে সেক্স ও মদপান আর বর্তমান সময়ে আমাদের বাংলাদেশ ও এর প্রভাব অতিরিক্ত ভাবে বেড়ে ছে যেন এই মুসলিম দেশে সেক্স ও মদপান বৈধ এমন ভাবে চলচেএটার জন্য প্রতিরোধ গড়ে তোলা প্রয়োজন? মনে করি
Total Reply(0)
Harun Rasid ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
আল্লাহ আরব দেশ শাসকদের হেদায়ত করেন ঈমান দারক করেদেন। আরবের মানুষ যদি কোফরি পথে চলে মুসলমানের বড় বদনাম আল্লাহ আরব সহ বিশ্ব মুসলমানদে ঈমানি শক্তি দান করেন দিনের পথে চলার মত ঈমানি শক্তি দান করেন সত চরিত্র বান করেন।
Total Reply(0)
Hasan Mahmud Aljan ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২২ এএম says : 0
এর জন্য কীভাবে শোক পালন করে
Total Reply(0)
Luca Trevisan Tulio ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
অঢ়েল অর্থ সম্পদ প্রাচুর্য বিত্ত বৈভবের মালিক হলে,, মানুষের হিতাহিত জ্ঞান লোপ পায় ।
Total Reply(0)
Shafiqul Islam Shawon ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
অপকর্মের কারনে মৃত্যু তার জন্য অাবার রাষ্ট্রীয় শোক!! দুঃখজনক
Total Reply(0)
Sumit Paul ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
তার কপালে মৃত্যু যেখানে লেখা ছিল সেখানেই হয়েছে।
Total Reply(0)
Gazi Mamun ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৩ এএম says : 0
আস্তাগফিরুল্লাহ! টাকার কাছে এরা ঈমান বিক্রি করে দিয়েছে।
Total Reply(0)
Habib Mallik ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
এরা সরকারের কিছুই না, মারা গেছে নিজের দেশ ছেড়ে অন্য এক দেশে সেক্স এন্ড ড্রাগস পার্টি করতে গিয়ে, তার জন্য সাড়া দেশ জাতিয় শোক দিবস পালন করছে???
Total Reply(0)
Kamal Husaain ৫ জুলাই, ২০১৯, ১:২৪ এএম says : 0
এরা দুনিয়াতেই মগ্ন ছিল এরা ভাবছে দুনিয়ায় সবকিছু
Total Reply(0)
জিয়াউর রহমান ৫ জুলাই, ২০১৯, ৮:৩৯ এএম says : 0
এরা মুসলমান নাকি ইহুদীর চর বুঝা অসম্ভব। এরকম শাসক বসিয়ে আরব দেশগুলোকে ইহুদি খ্রিস্টান এর রাষ্ট্রে পরিণত করছে। হায় আফসোস! মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাই ওয়াসাল্লাম কি দেশটা এমন রেখে গিয়েছিলেন এরকম জালিমদেরকে, মদখোর, জুয়াখোর, যিনাকারীদেরকে দেশ পরিচালনা কথা বলে গেছেন?
Total Reply(0)
Abul Mia ৫ জুলাই, ২০১৯, ১০:২৪ পিএম says : 0
"তিনি বলেছেন, তার ছেলে এখন আল্লাহর হেফাজতে আছে।" হাহাহাহা....জাহান্নামে পইচা মর এখন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন