ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

ভারত সফর অনিশ্চিত বিশেষ সংবাদদাতা

প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

এ বছরের আগস্ট-সেপ্টেম্বরে প্রস্তাবিত একমাত্র টেস্টটি ইডেন গার্ডেনস, না অন্য কোন ভেন্যুতেÑ এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা কম হয়নি। তবে গত মাসে আইপিএল দর্শন শেষে বাংলাদেশ দলের ভারত সফরের অগ্রগতির কোন খবর মিডিয়াকে যখন জানাতে পারেননি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমপি, তখন থেকেই এই সফরটি ঝুলে থাকার শংকা হয়েছে প্রবল। টেস্ট মর্যাদা পাওয়ার ১৬ বছর পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে আতিথ্য দেয়ার প্রতিশ্রæতি দিয়ে দ্বি-পাক্ষিক সফরসূচীতে তা চূড়ান্ত করে আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামে অন্তর্ভুক্ত করে ও কথা রাখছে না বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)।
এ মাসে জিম্বাবুয়ে সফর, জুলাই মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারত ক্রিকেট দলের সফরসূচী ইতোমধ্যে হয়েছে ঘোষিত। আগামী অক্টোবরে ভারতের মাটিতে নিউজিল্যান্ড, নভেম্বরে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোমে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ ও বিসিসিআই চূড়ান্ত করে ফেলেছে। তবে আগামী আগস্টে বাংলাদেশকে আতিথ্য দেয়ার বিষয়টি এখনো নিশ্চিত করেনি ক্রিকেট বিশ্বে সবচেয়ে ধনাঢ্য এবং প্রভাবশালী বোর্ড বিসিসিআই। এ বছরে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ভারত সফরের সম্ভাবনা তাই ক্ষীণ হয়ে পড়েছে, তা ধরেই নিয়েছেন বিসিবি’র সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজনÑ ‘এ বছর কম করে হলেও ৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলবে ভারত, তাই আগস্ট-সেপ্টেম্বরে আমাদের জন্য শ্লট খুঁজে বের করতে না পারলে অনিশ্চিত হয়ে পড়বে ভারত সফর। তারা এখনো ‘না’ বলেনি, তবে আমরা বলছি সফরের জন্য নির্দিষ্ট তারিখ ঠিক করে তা আমাদেরকে জানাতে।’
আগস্টের শেষ সপ্তাহ ও সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ ছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আগামী ডিসেম্বরের শেষ ও জানুয়ারীর প্রথম সপ্তাহও ফাঁকা আছে ভারতের। তবে আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারীতে ২ টেস্ট, ৩ ওয়ানডে এবং ২টি-২০ খেলতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নিউজিল্যান্ড সফরসূচী সম্প্রতি চূড়ান্ত হওয়ায় ভাবনায় পড়েছে বিসিবি। কারণ, আইসিসি’র এফটিপি অনুযায়ী ২০১৮ সাল পর্যন্ত আর কোন শ্লটই যে হাতে নেই তাদের। তবে বাংলাদেশ দলকে আতিথ্য দিতে বিসিবিকে যতোই তারা আশ্বস্ত করুক না কেন, বাংলাদেশ দলের ভারত সফর ঝুলে রইছে বিসিসিআই’র টিভি ব্রডকাস্টারের অনাগ্রহে। রেকর্ড ৩৮৫১ কোটি রূপীতে ৮ বছরের জন্য ভারতের টিভি ব্রডকাস্ট রাইটস কিনেছে যে প্রতিষ্ঠান, বাংলাদেশ দলের ভারত সফর নিয়ে তেমন কোন আগ্রহই যে দেখাচ্ছে না তারা। তাদের অনাগ্রহকেই এই সফরে বাংলাদেশ দলকে ভারতে আতিথ্য দেয়ার পথে বড় বাধা দেখছেন বিসিবি’র সিইও নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজনÑ ‘আগে ব্যক্তিগত সম্পর্কের কারণে অনেক কিছু হতো। এখন কমার্শিয়াল বিষয়টি সেখানে গুরুত্ব পাচ্ছে বেশি। এখানে ব্রডকাস্ট রাইটস প্রতিষ্ঠান বড় ভূমিকা রাখছে। বিসিসিআইকে হোম সিরিজ আয়োজনে কাকে আতিথ্য দেয়া লাভজনক, সে ব্যাপারে প্রভাবিত করছে। তারাই মূলত: সিরিজের মূল্য নির্ধারণ করে অপেক্ষাকৃত লাভজনক সিরিজ আয়োজনকে দিচ্ছে গুরুত্ব।’
২০১৯ সালে দ্বি-স্তর বিশিষ্ট টেস্ট প্রবর্তিত হলে ভারতের সাথে টেস্ট খেলার সুযোগ হারাবে বাংলাদেশ। কবে আসবে দ্বি-পাক্ষিক চুক্তিতে বাংলাদেশ দলের ভারত সফর, তা ভাগ্যের উপরই ছেড়ে দিতে হচ্ছে বিসিবিকে। দ্বি-পাক্ষিক সফরসূচীর ভাগ্য তাহলে এখন মিডিয়া এন্ড মার্কেটিং রাইটসের মর্জির উপর!

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন