ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ০৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

সারা বাংলার খবর

নেত্রকোনায় শিশুর গলা কাটা মস্তক নিয়ে ঘুরে বেড়ানো ঘটনায় শিশু হন্তারক গণপিটুনিতে নিহত

নেত্রকোনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৪:৩৪ পিএম | আপডেট : ৫:১৯ পিএম, ১৮ জুলাই, ২০১৯

নেত্রকোনা জেলা শহরে প্রকাশ্য দিবালোকে শিশুর গলা কাটা মস্তক নিয়ে ঘুরে বেড়ানো ঘটনায় শিশু হন্তারক অজ্ঞাত যুবক গণপিটুনিতে নিহত হয়েছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এক অজ্ঞাত যুবক বারহাট্টা রোডস্থ শ্রমিক ইউনিয়নের সামনে মেথর পট্টিতে মদ পান করার পর মাতলামি করার সময় তার ব্যাগ থেকে একটি শিশুর গলাকাটা মস্তক (মুন্ডু) মাটিতে পড়ে যায়। এ সময় স্থানীয় জনতা তা দেখে ফেলে। মূহুর্তে খবরটি আশপাশে ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত শত শত জনতা ওই যুবককে ধাওয়া করে নিউটাউন পঁচা পুকুর (অনন্ত পুকুর) পাড়ে তাকে গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ পুকুর পাড় থেকে শিশুর গলা কাটা মস্তক এবং অজ্ঞাত যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ খবর সারা শহরে ছড়িয়ে পড়লে ছাত্র শিক্ষক অভিভাবক মহলে চরম আতংক ছড়িয়ে পড়ে। উৎসুক জনতা শিশুর গলাকাটা মস্তক এবং শিশু হত্যাকারীর লাশ দেখার জন্য পুকুর পাড়ে ভীড় জমায়। এ সময় উৎসুক জনতার ভীড় সামাল দিতে পুলিশকে গলদগর্ম হতে হয়।
ফেইস বুকে গলা কাটা শিশু ছবি মূহুর্তে ভাইরাল হলে খবর পেয়ে কাটলী এলাকার রিক্সা চালক রইস উদ্দিন থানায় গিয়ে জানায়, গলা কাটা শিশুটি তার পুত্র সজিবের। তার বয়স ৮ বছর। আজ বেলা ১১ টার দিকে সজিব তার কাছে আইসক্রীম খাবার জন্য ৫টি টাকা চায়। কিন্তু হাতে টাকা না থাকায় তিনি সে সময় সজিবকে আইসক্রীম খাওয়ার টাকা দিতে পারেনি।
এ ব্যাপারে নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম আশরাফুল আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,গলা কাটা শিশু এবং গণপিটুনিতে নিহত যুবকের পরিচয় পাওয়া গেছে। শিশুটির নাম সজিব (৮), আর যুবকের নাম রবিন (২২)। সে উত্তর কাটলীর রিক্সাচালক আলকাছ মিয়ার পুত্র। এলাকাবাসী জানায়, সে মাদকাসক্ত। শিশুটির বাকী দেহ উত্তর কাটলীর একটি নির্মানাধীন তিন তলার বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বাসাটির মালিক বারহাট্টা উপজেলার চিরাম গ্রামের কায়কোবাদের। কি কারণে শিশুটিকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (14)
Md Lutfur Rahman Khan ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৮:০৫ পিএম says : 0
এই অবুঝ ছেলেটিকে মারার পেছনে রবিনের কি কোনো স্বার্থকতা ছিল? যদি না থাকে তাহলে অবুঝ বাচ্চাটিকে এভাবে কেন অকারনে মারবে।হয়তো বা কোনো স্বার্থকতা রবিনের ছিল।
Total Reply(0)
S A Ariyan ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৭:৩১ পিএম says : 0
মানুষ এতো নিঠুর হয়েছে যে মানুষ মানুষ কে মেরে ফেলছে।
Total Reply(0)
S A Ariyan ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৭:৩২ পিএম says : 0
মানুষ এতো নিঠুর হয়েছে যে মানুষ মানুষ কে মেরে ফেলছে।
Total Reply(0)
Rony rahman ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:৩০ পিএম says : 0
Aj jeta sotti ghotona .. kal keno abar seta gujob?
Total Reply(0)
Rony rahman ১৮ জুলাই, ২০১৯, ১০:৩০ পিএম says : 0
Aj jeta sotti ghotona .. kal keno abar seta gujob?
Total Reply(0)
Likhon ১৮ জুলাই, ২০১৯, ৫:১৫ পিএম says : 0
asole amra kothay achi jekhane sottotao keu bolte chay na
Total Reply(0)
Abu Thaher Sahin ১৯ জুলাই, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
মানুষ নামের জীব গুলা কি করে এত অমানুষ হচ্ছে।
Total Reply(0)
Abu Thaher Sahin ১৯ জুলাই, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
মানুষ নামের জীব গুলা কি করে এত অমানুষ হচ্ছে।
Total Reply(0)
Abu Thaher Sahin ১৯ জুলাই, ২০১৯, ১:০৬ এএম says : 0
মানুষ নামের জীব গুলা কি করে এত অমানুষ হচ্ছে।
Total Reply(0)
মাহবুবুল আলম বাচ্চু ২০ জুলাই, ২০১৯, ১১:১৩ এএম says : 0
শুধুমাত্র টাকা এবং নারীদেহের জন্য শ্রেষ্ঠ মানুষ কতটা নিচে নেমেছে।
Total Reply(0)
মাহবুবুল আলম বাচ্চু ২০ জুলাই, ২০১৯, ১১:১৪ এএম says : 0
শুধুমাত্র টাকা এবং নারীদেহের জন্য শ্রেষ্ঠ মানুষ কতটা নিচে নেমেছে।
Total Reply(0)
ওবাইদুল ২১ জুলাই, ২০১৯, ৫:৩০ পিএম says : 0
গণপিটুনির ঘটনা বাড়ার কারণ হলো সরকারের প্রশাসনিক ব্যার্থতার প্রমাণ । মানুষ এখন বিচার বিভাগের উপর আস্থা রাখতে পারছে না বলেই মনে হচ্ছে ।
Total Reply(0)
Md. Ariful ২৪ জুলাই, ২০১৯, ৩:৩৬ পিএম says : 0
মানুষ এতো নিঠুর হয়েছে যে মানুষ মানুষ কে মেরে ফেলছে।
Total Reply(0)
Rashed Mallik ২৫ জুলাই, ২০১৯, ১:৩৩ পিএম says : 0
পদ্মা সেতুতে মানুষের মাথা লাগবে এটা ১০০ভাগ গুজব । তবে আমার প্রশ্ন মানুষের মাথা কাটা হচ্ছে কী কারণে? মাথা যে কাটা হচ্ছে এটাওতো সত্যি ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন