ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

না খেয়ে দিন কাটাচ্ছে কাশ্মীরিরা

থমথমে কাশ্মীরে দোকান-বাজার-এটিএম বুথও বন্ধ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১২:০২ এএম

টানা তিনদিন ধরে কাশ্মীরে সবকিছু বন্ধ। বাজার খোলা নেই, এটিএম বুথও বন্ধ। কেউ চাইলেও ঘর থেকে বের হতে পারছে না, কারো সঙ্গে যোগাযোগও করতে পারছে না। কার্যত বিশ্ব থেকে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে এই ভূস্বর্গ। এভাবে সব কিছু বন্ধ থাকলে দরিদ্র লোকজন তীব্র খাদ্য সংকটে পড়বেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গত সোমবার ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করা হয়। এর ফলে প্রায় সাত দশক ধরে কাশ্মীর যে বিশেষ মর্যাদা পাচ্ছিল তা হারাতে হলো। জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পাশাপাশি সেখানে গত রোববার থেকেই কারফিউ চলছে। যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, প্রতিটা রাস্তায় ও গলির মুখে নিরাপত্তা বাহিনীর পাহারা দিচ্ছে। দোকান, স্কুল-কলেজ, মোবাইল, ল্যান্ডফোন, ইন্টারনেট পরিষেবা- এমনকি টিভি চ্যানেলগুলোও বন্ধ। কাশ্মীরের বেশিরভাগ নেতাই আটক হয়েছেন। কাশ্মীরে অচলাবস্থায় বন্ধ হয়ে গেছে স্বাভাবিক খাবার সরবরাহ। ব্যাংক ও এটিএমগুলোতেও অর্থ নেই। নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে দোকানগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন কাশ্মীরবাসী। ৭২ ঘণ্টা পার না হতে তাই দোকানগুলোতেও শেষ হয়ে গেছে খাবার। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বেড়ে গেছে বহুগুণ। তিন দিন ধরে চলা এই অচলাবস্থায় না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে নিম্নবিত্ত অনেক কাশ্মীরির। গত সোমবার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করায় জম্মু-কাশ্মীর ৩৭০ অনুচ্ছেদের বিশেষ অধিকার হারাচ্ছে। এ ছাড়া হারাচ্ছে পূর্ণাঙ্গ রাজ্যের মর্যাদাও। ভেঙে দুই ভাগ করা হচ্ছে কাশ্মীরকে। জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ দুটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে। যে চুক্তির মাধ্যমে কাশ্মীর ভারতের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল, সেই চুক্তি বাতিল হওয়ার কারণে অন্যান্য রাজ্য থেকে কাশ্মীরে স্থায়ী আবাসস্থল গড়ে তোলা লাখ লাখ মানুষ এখন যেকোনো উপায়ে সেখান থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা করছেন। হাজার হাজার মানুষ কাশ্মীর ছেড়ে অন্যত্র যাওয়ার চেষ্টা করছেন। তাদের কেউ কেউ বাসস্থান না পেয়ে স্টেশনে বেশ কয়েক দিন কাটিয়ে দিয়েছেন। সেখান থেকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগও করতে পারছেন না। এ অচলাবস্থায় কাশ্মীরে খাদ্যে স্বল্পতা দেখা দিয়েছে। এখনও থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে কাশ্মীরে। বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। এদিকে, সেখানকার সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ থাকায় গত কয়েকদিন ধরেই কাশ্মীরের বাইরে থাকা লোকজন তাদের পরিবারের সঙ্গে কোনভাবেই যোগাযোগ করতে পারছে না। এক কাশ্মীরি জানিয়েছেন, তিনি বর্তমানে দিল্লিতে আছেন। মা-বাবাকে একা রেখেই দিল্লি গেছেন তিনি। তার বাড়ি শ্রীনগরে। কাজের সূত্রে তাকে দিল্লি থাকতে হচ্ছে। গত ২ আগস্ট শেষবারের মতো বাড়ি গিয়েছিলেন। সে সময়ই পরিস্থিতি অন্য রকম লাগছিল। অমরনাথে নাশকতার আশঙ্কার কথা জানিয়ে বারামুলায় জাতীয় সড়কে গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেয় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার? অথচ দুই এলাকা দু’দিকে অবস্থিত। এমন পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ বাড়ায় এটিএম থেকে টাকা তুলেছিলেন ৪ আগস্ট সকালে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে দোকান-বাজার, এটিএম বুথ সব কিছুই বন্ধ আছে। শহরজুড়ে চলছে কারফিউ। তবে কাশ্মীরে প্রত্যেকের বাড়িতেই থাকে শাক-সবজির বাগান। তা দিয়েই তাদের প্রতিদিনের খাবার-দাবার চলে যায়। কিন্তু এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে পরবর্তীতে কী হবে সেটা কেউই জানে না। কেউ দিনের বেলা গাড়ি নিয়ে বের হলে সেনারা আটকাচ্ছে। রাতের দিকে পাহারা কম থাকে। সে কারণে লোকজন রাত ১০টার পর বাইরে যাচ্ছেন। ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের প্রতিবাদ হচ্ছে, লোকজন বিক্ষোভ করছে। সেনারাও পাল্টা কাঁদানে গ্যাস ছুড়ছে। তবে শহরের হাসপাতাল সংলগ্ন ওষুধের দোকানগুলো খোলা আছে। নার্সিংহোম, হাসপাতালে গেলে চিকিৎসা হচ্ছে ঠিকই, কিন্তু সেখানে যাওয়ার কোন উপায় নেই। যাদের গাড়ি নেই, তাদের কেউ অসুস্থ হলে কিভাবে হাসপাতালে নেবে? কারণ অ্যাম্বুল্যান্স ডাকাতো সম্ভব হচ্ছে না কারণ সব ফোনের সংযোগই তো বন্ধ। কোথাও আগুন লাগলেও একই অবস্থা হবে। তিনদিন পর সেখানে টিভির স¤প্রচার চালু হয়েছে। এনডিটিভি, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (27)
Zakir Hossain Shipon ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 1
হেফাজত করার মালিক মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন
Total Reply(0)
Zakir Hossain Shipon ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 1
হেফাজত করার মালিক মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলামিন
Total Reply(0)
Shahjan Shiraj ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 2
Red Cross should come up
Total Reply(0)
Md Sharif Sarker ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪২ এএম says : 1
হে আল্লাহ তোমার রহমত নাজিল কর।
Total Reply(0)
Md Shohidul Islam ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 2
মদি‘মু’সলিম বিদ্বেষী ভারত সরকার প্রতি সপ্তাহে শত শত কাশ্মীরিকে হ’ত্যা করছে। ভারত কাশ্মীরকে আরেক ফিলিস্তিন বানাতে চায়। মু’সলমানদের কাশ্মীর থেকে তাড়িয়ে সেখানে হিন্দুদের বসতি স্থাপন করতে চায়।’
Total Reply(0)
বনফুল কেয়া ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 1
আল্লাহ্ সবাইকে হেফাজত করুন
Total Reply(0)
Akmal Hossain Bachchu ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 1
আল্লাহ আপনি রক্ষা করুন আর অন্যায়কারীকে কঠিন শাস্তি দিন। আমিন।
Total Reply(0)
Md Ismail ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪৩ এএম says : 3
India is taking the advantage of the Muslim world's ununity in respect of oppressing the Indian Muslims !
Total Reply(0)
Chowhan Bd ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১:৪৪ এএম says : 1
আল্লাহ তুমি মুসলমানদের হেফাজত কর
Total Reply(0)
md. Kamal ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১০:৪৩ এএম says : 1
Allah majlumderke hefajot korun. R jalemder dangso korun.
Total Reply(0)
Kamal Rashid ৯ আগস্ট, ২০১৯, ১০:৪৪ এএম says : 2
ইয়া আল্লাহ মেহেরবানি করে কাশ্মীরি মুসলিম ভাই -বোন দেরকে হেফাযত করুন,অবিলম্বে তাদের কস্টের অবসান করুন এবং জালিমের সমুচিত শান্তি দান করুন।আমীন।
Total Reply(0)
আরিফ হোসেন ১০ আগস্ট, ২০১৯, ১:৩৯ পিএম says : 1
আল্লাহ উনাদের হেফাযত করেন। অত্যাচারীর অত্যাচার থেকে জুলুম কারির যুলুম থেকে।
Total Reply(0)
আরিফ হোসেন ১০ আগস্ট, ২০১৯, ১:৩৯ পিএম says : 1
আল্লাহ উনাদের হেফাযত করেন। অত্যাচারীর অত্যাচার থেকে জুলুম কারির যুলুম থেকে।
Total Reply(0)
Suruj ১০ আগস্ট, ২০১৯, ৩:১২ পিএম says : 2
কেন এটা কি বাংলাদেশ সরকারের চোখে পড়ে না শুধু পারে ভারতের দালালি করতে
Total Reply(0)
BAHAUDDIN HOWLADAR ১১ আগস্ট, ২০১৯, ১১:৪৮ এএম says : 1
হতাশ হয়োনা। নিশ্চয়ই আল্লাহ তোমাদের সাথে আছে।আমিন।
Total Reply(0)
Sheikh rasel mahmud ১১ আগস্ট, ২০১৯, ৩:১৭ পিএম says : 1
Allah tader tumi sokti dao ora jeno hefajote thake
Total Reply(0)
আজিম ১১ আগস্ট, ২০১৯, ৯:৩৯ পিএম says : 1
ইয়া আল্লাহ্ এই মজলুম ভাইদেরকে জালেমদের হাত থেকে রখ্খা করুন ।আমিন
Total Reply(0)
Honest MAN ১২ আগস্ট, ২০১৯, ১০:০৭ পিএম says : 1
হে আল্লাহ্ কাশ্মীরের মুসলমান দেরকে তুমি রক্ষা করো
Total Reply(0)
Honest MAN ১২ আগস্ট, ২০১৯, ১০:০৭ পিএম says : 1
হে আল্লাহ্ কাশ্মীরের মুসলমান দেরকে তুমি রক্ষা করো
Total Reply(0)
Najma ১৩ আগস্ট, ২০১৯, ৭:১২ এএম says : 1
আল্লাহ তাদের হেফাজত করুন
Total Reply(0)
Md.Mostafizur Rahaman ১৩ আগস্ট, ২০১৯, ৮:৪২ পিএম says : 2
ভারত মুসলিম বিদ্বেষী হওয়া সত্ত্বেও মুসলমানদের সবচেয়ে বেশি। তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ হল সৌদি আরবের বিনিয়োগ।
Total Reply(0)
Zuwel Prodhan ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ১১:৪৮ পিএম says : 0
He Allah Tomi oder hefajot koro...
Total Reply(0)
Zuwel Prodhan ২৩ আগস্ট, ২০১৯, ১১:৪৯ পিএম says : 0
He Allah Tomi oder hefajot koro...
Total Reply(0)
MD KAYAS HAMED ২৬ আগস্ট, ২০১৯, ৮:০৮ এএম says : 0
হে আল্লাহ কাশ্মীরের মুসলমান দেরকে আপনি হেফাজত করুন । বেইমান দের হেদায়েত দান করুন ।
Total Reply(0)
MD KAYAS HAMED ২৬ আগস্ট, ২০১৯, ৮:০৯ এএম says : 0
হে আল্লাহ কাশ্মীরের মুসলমান দেরকে আপনি হেফাজত করুন । বেইমান দের হেদায়েত দান করুন ।
Total Reply(0)
Sagorahamed joy ৩১ আগস্ট, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
হে আল্লাহ কাশ্মীরী মুসলীম দের প্রতি তুমি সহায় হউন
Total Reply(0)
Sk. Azhar Hossain ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:৪১ পিএম says : 0
Allah Pak app sabki hifazat farmaye
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন