ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পীরগাছায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

পীরগাছা (রংপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯:৩৮ পিএম

রংপুরের পীরগাছায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) এ ব্যাপারে ওই ইউনিয়নের ১২ ইউপি সদস্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ দাখিল করেছেন। ফলে ইউনিয়নটির কার্যক্রমে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।
অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার পারুল ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ খাঁন দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে নিজ খেয়াল খুশিমত বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। তার বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যদের স্বাক্ষর জাল করার অভিযোগ রয়েছে।
ইউপি সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, ভিজিএফ-ভিজিডি, এডিবি, বয়স্ক-বিধবা, মাতৃত্ব ও প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদানের ক্ষেত্রে তিনি নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে সুবিধাভোগিদের কাছ থেকে অর্থ গ্রহণ করে থাকেন। এদিকে প্রতিবছর এলজিএসপি প্রকল্পের সমুদয় টাকা ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে আতœসাত করেন। এতে ইউনিয়নটিতে উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যাহত হয়ে পড়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে হতদরিদ্র পরিবারের বসতবাড়ি নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নে তিনি কথিত সুবিধাভোগিদের নিকট অর্থের বিনিময়ে ঘর প্রদান করায় প্রকৃত হতদরিদ্ররা বঞ্চিত হয়েছেন। বিভিন্ন সময়ে ইউনিয়ন পরিষদের রাস্তায় লাগানো গাছ বিক্রির কমিশনের ৮ লাখ টাকা এ্যাম্বুলেন্স ক্রয়ের নামে পকেটস্থ করেছেন।
ইউপি সদস্যদের সম্মানী ভাতা (ইউপি অংশ) তিন বছর যাবত প্রদান না করে তালবাহনা করে আসছেন। চেয়ারম্যানের এসকল কাজের প্রতিবাদ করলে ইউপি সদস্যদের লাঞ্চিত ও হয়রানির শিকার হতে হয়।
এ বিষয়ে পারুল ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ খান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ইউপি সদস্যদের অভিযোগ সত্য নয়। তাদের স্বার্থ হাসিল না হওয়ায় এ অভিযোগ করছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
MD. SHAJALAL ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:২০ পিএম says : 0
যদি এভাবে ইউপি চেয়াম্যান অনিয়ম করেন। তাহলে তিনি দোষী। কিন্তু তিনি ক্ষমতা পাওয়ার পর থেকে এ সমস্ত অনিয়ম হচ্ছে--------এটা মানলাম। এ বিষয়টা তার শেষ সময়ে প্রকাশ হবে এটা কেমন করে মানা যায়। এটা নিশ্চয় তাদের ভাগাভাগির মধ্যে সমস্যা হচ্ছে তাই একখন মিডিয়া, প্রেস নিয়ে আসা হয়েছে। আমার মূল কথা হচ্ছে তিনি যদি কোন অনিয়ম করে থাকেন তাতে তিনি একা দোষী নন.......... সেখানে তার সদস্যরাো দোষী বটে। বিধুবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, মার্তৃভাতা সকল কিছু তিনি একাই করছেন কী............ এটা মিডিয়ার কাছে আমার প্রশ্ন রইলো। যদি তিনি একাই সব কিছু করেন তাহলে তিনি একক ভাবে দোষী। আর যদি তার সদস্যরা কোন প্রকার কার্ড করে দেন-তাতে তারা টাকা নেন নি। অবশ্যই নিচে। আর যদি নিয়ে থাকেন তাহলে তারাও সমান ভাবে দোষী। আমি মিডিয়ার নিকট আশার রাখি আমার প্রত্যেকটি ভাষা বুঝার চেষ্টা করবেন।
Total Reply(0)
Ashik ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:২৬ পিএম says : 0
one year par hower por amon akta report kra hoyecilo tokhon elakar netagon chairman k onk bujay bole j esob saro sotik vabe kaj koro sobai mile...tokhon chairman kotha dileo abar sei akoi kaj kore jcce..ghotona sunte paren.
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন