ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

শিরোপা পুনরুদ্ধারে বদ্ধপরিকর কিশোরীরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০১৯, ৮:৩৩ পিএম

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা পুনরুদ্ধারে বদ্ধপরিকর বাংলাদেশের কিশোরীরা। টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের দ্বিতীয় শিরোপা জয়ের পথে বাধা শক্তিশালী ভারত। মঙ্গলবার দু’দল ছোটদের সাফের ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে। ভুটানের চাংলিমিথান স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হবে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচটি।

নারী ফুটবলে এখন বাংলাদেশের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে দাড়িয়েছে ভারত। আর এই প্রতিদ্বন্দ্বীতা যেন কিছু বেশী অনূর্ধ্ব-১৫ পর্যায়ে। যা দেখা গেছে গেল দু’আসর এবং এবারের লিগ পর্বে দু’দলের হাড্ডা-হাড্ডি লড়াইয়ে। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। ২০১৭ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত ওই আসরের ফাইনালে ১-০ গোলে ভারতীয়দের হারিয়ে প্রথম শিরোপা ঘরে তুললেও পরের আসরেই তা খোঁয়ায় লাল-সবুজের কিশোরী দল। গত বছর ভুটানে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের ফাইনালে ভারত ১-০ গোলে বাংলাদেশকে হারিয়ে প্রতিশোধ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়। এবার তৃতীয় আসর নিয়ে টানা তিনবার ফাইনালে দেখা দু’দলের। এর আগে লিগ পর্বে বাংলাদেশ-ভারত লড়াইটাও ছিল শ্বাসরুদ্ধকর। রোববার লিগের শেষ ম্যাচে ১-১ ব্যবধানে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়লেও মঙ্গলবার ফাইনালে ভারতকে হারাতে চায় কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের শিষ্যরা। সোমবার ফাইনাল পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান কোচ ছোটন। বাংলাদেশ কোচ আশা করছেন ফাইনাল ম্যাচটিও হবে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। ছোটন বলেন,‘ফাইনাল খেলাটি যথেষ্ট প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। যে কোন দলই জিততে পারে। দু’দলের জন্যই ফিফটি-ফিফটি চান্স।’ তবে একটি দুঃসংবাদ দেন বাংলাদেশ কোচ, ‘আমার দলে একটি ইনজুরি সমস্যা আছে। আমাদের অধিনায়ক-ফরোয়ার্ড শামসুন্নাহার জুনিয়র গ্রোয়েন ইনজুরিতে পড়েছে।’ তাহলে কি অধিনায়কের ফাইনালে খেলার সম্ভাবনা নেই? এমন প্রশ্নে ছোটনের উত্তর, ‘এটা এখনই বলা যাচ্ছে না। ফাইনালের আগে আমাদের হাতে এখনও বেশ কয়েক ঘণ্টা সময় আছে। আমরা আপ্রাণ চেষ্টা করছি শামসুন্নাহারকে ফিট করে তোলার জন্য। ওর জন্য শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করবো। দেখা যাক কি হয়।’

ভারত যেহেতু আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে, তাই তাদের বিপক্ষে ফাইনালে বাংলাদেশ দলও আক্রমণাত্মক ফুটবলই উপহার দেবে বলে জানান লাল-সবুজের কোচ। তিনি আরো বলেন,‘আমি ফুটবলারদের ধন্যবাদ জানাই, তারা ভালো খেলে শিরোপা জয়ের খুব কাছে চলে এসেছে। টুর্নামেন্ট খেলতে ঢাকা ছাড়ার আগে আমি বলেছিলাম, সম্পূর্ণ নতুন একটি দল নিয়ে ভুটান যাচ্ছি। প্রত্যাশা ছিল আগের দু’আসরের মতো ফাইনালে খেলার। প্রথম লক্ষ্য পূরণ হয়েছে। এবার শিরোপা পুনরুদ্ধারের মিশন। আশাকরছি মেয়েরা তা করে দেখাতে পারবে।’

তিনি জানান, বাংলাদেশের মেয়েদের মনোবল খুব ভাল আছে এবং সোমবার তারা রিকভারি ট্রেনিংয়ে অংশ নিয়েছে। শিরোপা জেতার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন গোলাম রব্বানী ছোটন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন